আলমেরিয়াকে হারাতে ঘাম ঝরলো রিয়ালের

আলমেরিয়াকে হারাতে ঘাম ঝরলো রিয়ালের

৭ বছর পর লা লিগায় ফেরা আলমেরিয়াকে হারাতে ঘাম ঝরাতে হয়েছে চ্যাম্পিয়ন রিয়াল মাদ্রিদের। তুলনামূলক দুর্বল এই প্রতিপক্ষকে হারাতে চ্যাম্পিয়নস লীগের শিরোপাধারী রিয়াল মাদ্রিদের বেগ পেতে হয়েছে বেশ। রোববার রাতে মৌসুমে নিজেদের প্রথম ম্যাচে আলমেরিয়ার পাওয়ার হর্স স্টেডিয়ামে শুরুতে পিছিয়ে পড়ে ২-১ গোলের জয় পায় কার্লো আনচেলত্তির দল।

লার্জি রামাজানির গোলে শুরুতেই এগিয়ে যায় আলমেরিয়া। স্বাগতিকরা লিড ধরে রেখেছিল ৬১ মিনিট পর্যন্ত। এরপর লুকাস ভাসকেজ ও ডেভিড আলাবার লক্ষ্যভেদে জয় পায় রিয়াল।

দ্বিতীয়ার্ধে ম্যাচে ফিরলেও গোটা সময় অনুমিতভাবে ছিল রিয়াল মাদ্রিদের আধিপত্য। ৬৮ শতাংশ বল দখলে রেখে প্রতিপক্ষের গোলবারের উদ্দেশ্যে মোট ২৯টি শট নেয় লস ব্লাঙ্কোরা। যার মধ্যে ১৫টি ছিল লক্ষ্যে। অপরদিকে ৩২ শতাংশ বল দখলে রাখা আলমেরিয়া ১০টি শটের ৬টি রাখে লক্ষ্যে। ম্যাচের চতুর্থ মিনিটেই এগিয়ে যাওয়ার সুযোগ এসেছিল রিয়াল মাদ্রিদের। তবে চুয়ামেনির পাসে ২৫ গজ দূর থেকে ভাসকেজের প্রচেষ্টা অল্পের জন্য লক্ষ্যে থাকেনি।

উল্টো দুই মিনিটের ব্যবধানে এগিয়ে যায় আলমেরিয়া। মাঝমাঠ থেকে সতীর্থের লম্বা পাসে বল পেয়ে ডি-বক্সে ঢুকে পড়েন রামাজানি। এরপর ডান পায়ের নিচু শটে জাল খুঁজে নেন এই বেলজিয়ান ফরোয়ার্ড। ৮ম মিনিটে আক্রমণে গিয়েছিল রিয়াল। কামাভিঙ্গার পাস পেয়ে লক্ষ্যে শট নেন ফেদেরিকো ভালভারদে। তবে তার শট কর্নারের বিনিময়ে প্রতিহত করেন আলমেরিয়ার গোলরক্ষক ফার্নান্দো মার্টিনেজ। ২৮তম মিনিটে টনি ক্রুসের ক্রসে বেনজেমার হেড ফিরিয়ে জাল অক্ষত রাখেন এই স্প্যানিশ গোলরক্ষক।

প্রথমার্ধে অনেক সুযোগ তৈরি করেও বারবার আলমেরিয়ার রক্ষণে পরাস্ত হয় রিয়ালের খেলোয়াড়রা। অবশেষে দ্বিতীয়ার্ধে ৬১তম মিনিটে কাক্সিক্ষত গোলের দেখা পায় রিয়াল। ভিনিসিউসের শট ফিরিয়ে দিয়েছিলেন ফার্নান্দো মার্টিনেজ। ফিরতি শটে ভাসকেজকে পাস দেন বেনজেমা। বাকি কাজ সহজেই সারেন স্প্যানিশ মিডফিল্ডার। ৭৪ মিনিটে মেন্ডির বদলি হিসেবে মাঠে নামেন ডেভিড আলাবা। মাঠে নামার এক মিনিট পরই রিয়ালকে লিড এনে দেন এই অস্ট্রিয়ান তারকা। আলাবার চমৎকার ফ্রি-কিক পোস্টের ভেতরের দিকে লেগে জালে জড়ায়।

তারুণ্যে ভরপুর রিয়াল মাদ্রিদের স্কোয়াড। তবে চুয়ামেনি, কামাভিঙ্গাদের মতো তরুণ তারকাদের পারফরম্যান্স সন্তুষ্ট করতে পারেনি কোচ কার্লো আনচেলত্তিকে। তিনি বলেন, ‘তরুণ তারকারা তাদের স্বাভাবিক খেলাটা খেলতে পারেনি, তাদের যেমনটা অনুশীলনে দেখেছি। তারা খুব খারাপও খেলেনি, তবে এর চেয়ে ভালো খেলতে পারত। হাফটাইমে কামাভিঙ্গাকে নামিয়ে আনি, তার মানে এই নয় যে সে মাঠে ভুল খেলছিল। আমরা দ্বিতীয়ার্ধে আরও আক্রমণাত্মক খেলতে চাইছিলাম।’

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




bangladesherkhela.com 2019
Developed by RKR BD