মুস্তাফিজকে ডিউক সামলানোর পরামর্শ ডোনাল্ডের

মুস্তাফিজকে ডিউক সামলানোর পরামর্শ ডোনাল্ডের

টেস্ট ক্রিকেটের অনেক ম্যাচেই ‘কোকাবুরা’ বল ব্যবহার করা হয়। তবে ইংল্যান্ড ও ওয়েস্ট ইন্ডিজে টেস্ট ক্রিকেটে ব্যবহার করা হয় ‘ডিউক’ বল। আসন্ন বাংলাদেশ ও ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজেও ডিউক বল ব্যবহার করা হবে। এজন্য ডিউক বল নিয়ে বাংলাদেশের সেরা পেসার মুস্তাফিজুর রহমানকে টোটকা দিলেন টাইগারদের পেস বোলিং কোচ দক্ষিণ আফ্রিকার অ্যালান ডোনাল্ড।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের মাটিতে টেস্ট খেলার কোন অভিজ্ঞতাই নেই মুস্তাফিজের।  ওয়েস্ট ইন্ডিজের কন্ডিশনে ডিউক বলের আচার-আচরণ কেমন হবে, তা নিয়ে কোন কিছুই জানেন না ফিজ। তাই ডিউক বল নিয়ে ডোনাল্ডের ক্লাসে ঘাম ঝড়িয়েছেন মুস্তাফিজ।

একে-তো দলের পেস বোলিং কোচ, এরমধ্যে আবার ওয়েস্ট ইন্ডিজের মাটিতে ৫ টেস্ট ২০ উইকেট নেয়ার নজির আছে ডোনাল্ডের। তাই ডিউক বলকে নিয়ন্ত্রনের টোটকা নিতে ডোনাল্ডোর শরানাপন্ন হন মুস্তাফিজ।

অ্যান্টিগায় ক্রিকেট ওয়েস্ট ইন্ডিজ প্রেসিডেন্টস একাদশের বিপক্ষে যখন তিন দিনের প্রস্তুতি ম্যাচের দ্বিতীয় দিন মাঠে লড়ছে বাংলাদেশের বোলাররা। তখন স্টেডিয়ামের বাইরে অনুশীলন মাঠে নেমে ডোনাল্ডের সাথে সময় কাটান মুস্তাফিজ। ডিউক বল সর্ম্পকে ডোনাল্ডোর কাছ থেকে ধারনা নিয়ে, ফাঁকা নেটে বোলিং অনুশীলনও করেন ফিজ।

টোটকা নিয়ে মুস্তাফিজ কেমন শিখলেন, সেটি পরে জানান ডোনাল্ড। বিসিবির দেয়া এক ভিডিওতে ডোনাল্ড বলেন, ‘ফিজের সাথে মাত্রই একটি সেশন হলো। আইপিএলের পর প্রথম বোলিং করলো সে। বল নিয়ে কিছুটা ধারণা দিলাম তাকে। ডিউক বলে এটি তার প্রথম অভিজ্ঞতা। খুব সূক্ষ্ম পরিবর্তন করেছি তার গ্রিপে। মুস্তাফিজ বলেছে, বল বেশ ভালোভাবে তার হাত থেকে ডেলিভার হচ্ছে।’

৭২ ম্যাচে টেস্ট ক্যারিয়ারে ৩৩০ উইকেট শিকার করেছেন ডোনাল্ড। তাই ডিউক বলে খেলার ভান্ডার ভরপুর আছে তার। সেই অভিজ্ঞতা থেকে ডিউক বল নিয়ে ডোনাল্ড আরও বলেন, ‘কোকাবুরা থেকে এবার ডিউক বলের পালা। যে বলের সাথে আমি খুব ভালোভাবেই পরিচিত। ডিউক বল দিয়ে ওয়ারউইকশায়ারের হয়ে কাউন্টি ক্রিকেটে ও ইংল্যান্ডে টেস্ট ম্যাচ খেলেছি। এই বলের সিম বেশ উঁচু। আগেও যেমন আমরা দেখেছি, এই বলের সাথে মানিয়ে নিতে হলে, অনেক কাজ করতে হবে।’

কাউন্টি ক্রিকেটে ওয়ারউইকশায়ারের হয়ে ১২ বছর খেলেন ডোনাল্ড। ডিউক বলে ১৪১ ম্যাচে ৫৩৬ উইকেট নেন তিনি। ডিউক বল ও কোকাবুরা বলের মৌলিক পার্থক্য সিম-এ। ডিউক বলের সিম বেশি উচুঁ ও লম্বা সময় টিকে থাকে। কোকাবুরা বলের সিম নিচু থাকে, সিমের সাথে মিশে থাকে।  

২০১৫ সালে টেস্ট অভিষেকের পর এখন পর্যন্ত মাত্র ১৪টি ম্যাচ খেলেছেন মুস্তাফিজ। ১৪ ম্যাচে তার শিকার ৩০টি। গেল বছরের ফেব্রুয়ারিতে সর্বশেষ টেস্ট খেলেছেন ফিজ।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




bangladesherkhela.com 2019
Developed by RKR BD