৯ গোলের ম্যাচে দাপুটে জয় ম্যান সিটির

৯ গোলের ম্যাচে দাপুটে জয় ম্যান সিটির

উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ

আরবি লিপজিগের হয়ে হ্যাটট্রিক করে দলকে রক্ষা করতে পারলেন না ফরাসি মিডফিল্ডার ক্রিস্টোফার এনকুনকু। বুধবার ইতিহাদ স্টেডিয়ামে ৯ গোলের রোমাঞ্চকর ম্যাচে শেষ পর্যন্ত ৬-৩ ব্যবধানের জয় নিয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের মিশন শুরু করেছে ম্যানচেস্টার সিটি।

ম্যাচের ১৬ মিনিটে ডিফেন্ডার ন্যাথান আকের গোলে এগিয়ে যায় গতবারের ফাইনালিস্টরা। ২৮ মিনিটে জ্যাক গ্রীলিশের কর্ণার থেকে ব্যবধান দ্বিগুণ হয় সিটির। কেভিন ডি ব্রুইনার ক্রস হেডের সাহায্যে ক্লিয়ার করতে গেলে লিপজিগ ডিফেন্ডার নোর্ডি মুকিয়েলে আত্মঘাতি গোলের লজ্জা দেন। ৪২ মিনিটে জার্মান দলটি এনকুনুর হেড থেকে এক গোল পরিশোধ করে। বিরতির ঠিক আগে রিয়ারদমাহারেজের পেনাল্টি থেকে ৩-১ ব্যবধানে এগিয়ে যায় স্বাগতিকরা।

কিন্তু তারপরেও লিপজিগ থেমে থাকেনি। ৫১ মিনিটে ডানি ওলমোর ক্রস থেকে আবারো হেডের সাহায্যে গোল করে লিপজিগকে আশাবাদী করে তুলেন এনকুনকু। পাঁচ মিনিটর পর একক প্রচেষ্টায় দারুন এক গোল করে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের অভিষেকটা স্মরণীয় করে রাখলেন গ্রীলিশ।

ইংলিশ এই মিডফিল্ডার বলেছেন শেষ পর্যন্ত ইউরোপীয়ান ক্লাবের সর্বোচ্চ আসরে খেলার সুযোগ পেয়ে তিনি দারুন আনন্দিত। এ সম্পর্কে ২৬ বছর বয়সী গ্রীলিশ বলেন, ‘আমি ম্যাচটা দারুন উপভোগ করেছি। দীর্ঘদিনের অপেক্ষার আজ অবসান হলো। গত কযেক সপ্তাহ ধরে আমি এই ম্যাচটি খেলার জন্য মুখিয়ে ছিলাম। এটা আমার জন্য অসাধারণ একটি রাত ছিল। এই ম্যাচে সবকিছুই ছিল। শেষ পর্যন্ত জয় নিয়ে মাঠ ছাড়তে পারায় আমরা দারুন খুশী। অপেক্ষাকৃত তরুণদের নিয়ে গড়া সিটির এই দলটি ভবিষ্যতেও নিজেদের প্রমান করবে বলে সকলে আশাবাদী। আমি নিজেও একটি গোল ও একটি এসিস্ট করে দলের জয়ে ভূমিকা রেখেছি।’

কিন্তু আরো একবার ফরাসি ফরোয়ার্ড এনকুনকু ম্যাচকে জীবিত রাখতে সহযোগিতা করেন। ইউসুফ পোলসেনের পাস থেকে ৭৩ মিনিটে হ্যাটট্রিক পূরনের পাশাপাশি এনকুনকু লিপজিগ শিবিরে আবারো আশা জাগিয়ে রাখেন। লিপজিগের কোন খেলোয়াড় হিসেবে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে এনকুনকু হ্যাটট্রিক করার রেকর্ড গড়লেন। কিন্তু ম্যাচের শেষভাগে অপ্রতিরোধ্য সিটিকে আর আটকানো যায়নি। পর্তুগীজ ফুলব্যাক হুয়াও ক্যান্সেলোর দুরপাল্লা শটটি আটকানোর সাধ্য ছিলনা লিপজিগ গোলরক্ষক পিটার গুলাসির। লিপজিগ ফুল-ব্যাক এঞ্জেলিনো ৭৯ মিনিটে দ্বিতীয় হলুদ কার্ড দেখে মাঠ ত্যাগে বাধ্য হলে সফরকারীদের সব আশা কার্যত শেষ হয়ে যায়।

এই গ্রুপের অপর ম্যাচে ফরাসি ক্লাব  পিএসজি  বেলজিয়ান ক্লঅব ব্রাগার সাথে ১-১ গোলে ড্র করায় সিটি তিন পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে অবস্থান করছে।

এনিয়ে এবারের মৌসুমে ঘরের মাঠে তিন ম্যাচে সব মিলিয়ে ১৬ গোল করলো সিটিজেনরা। এর মধ্যে প্রিমিয়ার লিগে নরউইচ ও আসের্নালের বিপক্ষে পরপর দুই ম্যাচে পেপ গার্দিওলার দল ৫-০ গোলের জয় নিশ্চিত করেছে। কিন্তু তারপরেও গার্দিওলা পুরো সন্তুষ্ট হতে পারছেন না। বিশেষ করে রক্ষনভাগের উপর কোনভাবেই আস্থা রাখতে পারছেন না গার্দিওলা। দুই সপ্তাহ পরে পিএসজি সফরে ম্যাচটি যে মোটেই সহজ হবে না তা এখন থেকেই সতর্ক করে দিয়েছেন সিটি বস।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




bangladesherkhela.com 2019
Developed by RKR BD