মেসি-নেইমারদের রুখে দিয়েছে ক্লাব ব্রাগা

মেসি-নেইমারদের রুখে দিয়েছে ক্লাব ব্রাগা

উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ

পিএসজির হয়ে মূল একাদশের অভিষেকটা সুখকর হলোনা লিওনেল মেসির। বুধবার চ্যাম্পিয়ন্স লিগের প্রথম ম্যাচে বেলজিয়াম চ্যাম্পিয়ন ক্লাব ব্রাগার সাথে ১-১ গোলে ড্র নিয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হয়েছে ফরাসি জায়ান্টদের। ব্রাগার ইয়ান ব্রেয়ডেল স্টেডিয়ামে এ্যান্ডার হেরেরার গোলে ১৫ মিনিটে এগিয়ে গিয়েছিল পিএসজি। কিন্তু দারুন আত্মবিশ্বাসী ব্রাগার হয়ে ২৭ মিনিটে সমতা ফেরান হ্যান্স ভানাকেন। পুরো ম্যাচের পারফরমেন্স বিচারে এই এক পয়েন্ট প্রাপ্য ছিল ব্রাগার।

এর আগে পিএসজির হয়ে লিগ ওয়ানে রেইমসের বিপক্ষে ম্যাচে বদলী হিসেবে অভিষেক হয়েছিল মেসির। ঐ ম্যাচটিতে মাত্র ২৪ মিনি তিনি খেলার সুযোগ পেয়েছেন। কাল পুরো ৯০ মিনিট মাঠে থাকলে কোন গোলের দেখা পাননি। যদিও প্রথমার্ধে তার একটি শট বারে লেগে ফেরত আসে। বিরতির পরেই ব্রাগা গোলরক্ষক সাইমন মিগনোলেটকে পরীক্ষায় ফেলেছিলেন আর্জেন্টাইন সুপারস্টার।

এই প্রথমবারের মত কোচ মরিসিও পচেত্তিনো পিএসজির আক্রনভাগে তিন তারকা মেসি, নেইমার ও কিলিয়ান এমবাপ্পেকে একসাথে মাঠে নামিয়েছিলেন। আক্রমনভাগের এই ত্রয়ীকে নিয়ে অবশ্য পোচেত্তিনো বলেছেন, ‘একে অপরের সাথে পরিচিত হতে তাদের আরো কিছুটা সময় লাগবে।’

দ্বিতীয়ার্ধে ইনজুরির কারনে মাঠ ত্যাগ করেন এমবাপ্পে। এই ম্যাচে পয়েন্ট হারানোয় গ্রুপ পর্ব অনেকটাই কঠিন হয়ে পড়লো পিএসজির কাছে। ইতোমধ্যেই গ্রুপ-এ’ এবারের আসরে ডেথ গ্রুপ হিসেবে বিবেচিত হচ্ছে। গ্রুপের অপর প্রতিদ্বন্দ্বী ম্যানচেস্টার সিটি কাল আরবি লিপজিগের বিপক্ষে ৬-৩ গোলের জয়ের মাধ্যমে উড়ন্ত সূচনা করেছে। পরের ম্যাচে পিএসজি গতবারের রানার্সÑআপ সিটিকে আতিথ্য দিবে। গত মৌসুমে এই সিটির কাছে সেমিফাইনালে পরাজিত হয়ে বিদায় নিতে হয়েছির ফরাসি জায়ান্টদের।

পচেত্তিনো বলেন, ‘খেলোয়াড়দের  প্রচেষ্টা দেখে আমি সন্তুষ্ট। রাতটা আমাদের পক্ষে  ছিলনা। কিন্তু আমাদের শান্ত থেকে পরিশ্রম চালিয়ে যেতে হবে। সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হচ্ছে সবকিছু গুছিয়ে নিতে আমাদের কিছুটা সময়ের প্রয়োজন। আমাদের অবশ্যই ভাল কিছুর জন্য চেষ্টা চালিয়ে যেতে হবে।’

১৯৭৮ সালে ইউরোপীয়ান কাপের রানার্স-আপ ক্লাব ব্রাগার রয়েছে  সমৃদ্ধ ইতিহাস । কালকের ম্যাচে ড্রয়ের মাধ্যমে বেলজিয়ামের চ্যাম্পিয়ন ক্লাবটি তার এক ঝলকও প্রমান করেছে।

এদিকে ইতোমধ্যেই ‘এমএনএম’ তকমা লেগে যাওয়া মেসি, নেইমার ও এমবাপ্পের দিকেই কাল পুরো ফুটবল বিশ্বের নজড় ছিল। তারকা সমৃদ্ধ পিএসজির বিপক্ষে ক্লাব ব্রাগা যে ধরনের সাহসিকতা দেখিয়েছে সেটাই যথেষ্ঠ। অধিনায়ক ভানাকেন সমতাসূচত গোলটি দিয়েছেন। দীর্ঘদেহী তরুণ স্ট্রাইকান চার্লস ডি কেটেলিয়ার পিএসজির জন্য হুমকি হয়ে দেখা দিয়েছেন। ডাচম্যান নোয়া ল্যাং নিয়মিত ডানদিক থেকে আচরাফ  হাকিমিকে বিপদে ফেলেছেন।

ব্রাগা কোচ ফিলিপ ক্লেমেন্ট করেছেন, ‘আমরা আজ সত্যিকার অর্থেই নিজেদের প্রমান করেছি। খেলোয়াড়রা ঐতিহাসিক ম্যাচ খেলেছে। আমি দারুন গর্বিত। শারিরীক ভাবে আমরা যে অনেক বেশী শক্তিশালী সেটাই আজ প্রমান হয়েছে। এখন আমাদের এই ধারাবাহিকতা বজায় রাখার প্রতি মনোযোগী হতে হবে।’

নিষেধাজ্ঞা ও ইনজুরির কারনে কাল দলে ছিলেন না এ্যাঞ্জেল ডি মারিয়া, ইদ্রিসা গানা গুয়ে ও মার্কো ভেরাত্তি। কিন্তু তাদের অনুপস্থিতিকে দলের হতাশাজনক ড্রয়ের পিছনে সামনে নিয়ে আসেননি পচেত্তিনো। যদিও পিএসজির শুরুটা ভালই হয়েছিল। বামদিক থেকে এমবাপ্পে লো পাসে হেরেরা সফরকারীদের ১৫ মিনিটে এগিয়ে দেন। গত চার ম্যাচে এটা স্প্যানিশ মিডফিল্ডারের চতুর্থ গোল। হাকিমিকে কাটিয়ে এডুয়ার্ড সোবোল অনেকটা ফাঁকায় দাঁড়ানো ভানাকেনের দিকে বল বাড়িযে দিলে সমতা ফেরাতে কোন ভুল করেননি ব্রাগা অধিনায়ক। কিছুক্ষন পরেই মেসির কার্লিং শট ক্রসবারে লেগে ফেরত আসে। এরপর ভানাকেনের ফ্রি-কিক ও ডি কেটেলিয়ারের শট রুখে দেন কেইলর নাভাস।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




bangladesherkhela.com 2019
Developed by RKR BD