জয় দিয়েই কোর্টে ফিরলেন ফেদেরার

জয় দিয়েই কোর্টে ফিরলেন ফেদেরার

জয় দিয়েই একবছরেরও বেশি সময় পর প্রতিযোগিতামূলক টেনিসে ফিরলেন রজার ফেদেরার। দোহায় কাতার ওপেনের রাউন্ড ১৬-এ ব্রিটেনের এক নম্বর টেনিস তারকা ড্যান ইভান্সকে ৭-৬ (৮), ৩-৬ ‌ও ৭-৫ গেমে হারান সুইস কিংবদন্তি।
 
২০২০ অস্ট্রেলিয়ান ওপেন সেমিফাইনালের পর ফেদেরার সাময়িক বিরতি নিয়েছিলেন টেনিস থেকে। ৪০৫ দিন পর কোর্টে ফিরলেন স্বমহিমায়। মাঝের সময়টা হাঁটুতে জোড়া অস্ত্রোপচারের এবং অস্ত্রোপাচার পরবর্তীতে নিজেকে ফিট করে তোলার কাজে ব্যয় করেন ২০টি গ্র্যান্ড স্ল্যাম জয়ের নায়ক। গত বছর অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের পর যুক্তরাষ্ট্র ওপেন এবং ফরাসি ওপেন থেকে নাম প্রত্যাহার করে নিয়েছিলেন রজার। টুরো ২০২০ সালেই আর কোর্টে নামবেন না বলে ঘোষণা দিয়েছিলেন।

ধারণ করা হয়েছিল বছরের প্রথম গ্র্যান্ড স্ল্যাম অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের আগে ফিট হয়ে উঠবেন। কিন্তু সময় কিছুটা বেশি লেগে যাওয়ায় ২০২১ রড লেভার এরেনায় আর নামা হয়নি ফেদেরারের। এরইমাঝে অবসরের জল্পনাও ভেসে উঠেছিল। যদিও সেগুলো উড়িয়েই দিয়েছিরেন তিনি। এবারের লক্ষ্য আসন্ন উইম্বলডন এবং অলিম্পিক গেমস। তার আগে কাতার ওপেন দিয়ে প্রত্যাবর্তন ঘটল তাঁর।
 
তবে দোহার খালিফা স্পোর্টস কমপ্লেক্সে ২ ঘন্টা ২৪ মিনিটের লড়াইয়ের পর বেশ বিধ্বস্ত দেখাচ্ছিল ঊনচল্লিশের ফেদেরারকে। কিন্তু জয় দিয়ে শেষ করে খুশি ফেদেরার জানান হাঁটুতেও কোনও সমস্যা অনুভূত হয়নি। তিনি যে ক্লান্ত হয়ে পড়েছিলেন সেকথা নিজেই স্বীকার করে নেন। বলেন, 'কোর্টে ফিরে ভালো লাগছে। জিতি বা হারি এই যে কোর্টে দাঁড়িয়ে আছি এতেই খুশি। নিঃসন্দেহে জয়ের অনুভূতি আলাদা। খুব ভালো ম্যাচ হয়েছে। ড্যান সত্যি ভালো খেলেছে। গত দু’সপ্তাহ ধরে ও আমার অনুশীলনের সঙ্গী। আমরা প্রায় ২০টার উপর সেট খেলেছি।'

ক্লান্তি প্রসঙ্গে ২০টি গ্র্যান্ড স্ল্যামের মালিক বলেন, 'হ্যাঁ আমি ক্লান্ত হয়ে পড়েছিলাম। আমি ম্যাচের চেয়ে আমার ক্লান্তির দিকেই বেশি ফোকাস করছিলাম। ড্যানের আমার তুলনায় অনেক বেশি এনার্জি ছিল। তবে আমি ভালো সার্ভিস করেছি আর আমার মনে হয় আমি সারা ম্যাচে ভালোই খেলেছি।'

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




bangladesherkhela.com 2019
Developed by RKR BD