চেলসির জয় দ্বিতীয় স্থানে লিস্টার

চেলসির জয় দ্বিতীয় স্থানে লিস্টার

মেসন মাউন্টের একমাত্র গোলে ১০ জনের ফুলহ্যামকে প্রিমিয়ার লিগের ম্যাচে পরাজিত করেছে চেলসি। এদিকে সাউদাম্পটনকে ২-০ গোলে পরাজিত করে টেবিলের দ্বিতীয় স্থানে উঠে এসেছে লিস্টার সিটি। গত ছয়টি ম্যাচে মাত্র একটি জয় ও চারটিতে পরাজিত হওয়ায় চেলসি বস ফ্রাংক ল্যাম্পার্ড বেশ চাপের মুখে পড়েছিলেন। লন্ডনের ক্রাভেন কটেজে তাই টেবিলের ১০ম স্থানে থেকে ম্যাচ শুরু করেছিল ব্লুজরা। কিন্তু কষ্টার্জিত জয়ে শেষ পর্যন্ত ল্যাম্পার্ডকে গুরুত্বপূর্ণ তিন পয়েন্ট উপহার দিয়েছে শিষ্যরা। 

বিরতির ঠিক আগে সিজার আজপিলিকুয়েটাকে ফাউলের অপরাধে লাল কার্ড দেখে মাঠ ত্যাগে বাধ্য হন ফুলহ্যাম ডিফেন্ডার এ্যান্টোনি রবিনসন। যে কারনে পুরো দ্বিতীয়ার্ধই একজন কম নিয়ে খেলতে হয়েছে স্বাগতিকদের। কিন্তু সেই সুবিধাকে কাজে লাগাতে বেশ কষ্ট করতে হয় চেলসিকে। শেষ পর্যন্ত ৭৮ মিনিটে ২০ গজ দুর থেকে ইংলিশ মিডফিল্ডার মাউন্ট ডেডলক ভাঙ্গতে সক্ষম হন। বড়দিনের আগে ওয়েস্ট হ্যামকে পরাজিত করার পর প্রথম জয় তুলে নিতে এই এক গোলই যথেষ্ঠ ছিল। 

এই জয়ে একলাফে তিনধাপ এগিয়ে সপ্তম স্থানে উঠে এসেছে চেলসি। ম্যাচ শেষে ল্যাম্পার্ড বলেছেন, ‘অবশ্যই এই ধরনের জয় পাওয়াটা সবসময়ই আনন্দের। সাম্প্রতিক সময়ে আমাদের জন্য লিগটা ভাল যাচ্ছেনা। যে কারণে প্রতিটি ম্যাচই গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠেছে। খেলোয়াড়দের যোগ্যতার উপর আমার পূর্ণ আস্থা আছে। আমরা জানতাম একসময় ঠিকই গোল আদায় করে নিতে পারবো। কারণ ম্যাচে চাপটা সব সময়ই ছিল। শুধুমাত্র ধৈর্য্য সহকারে এগিয়ে যাওয়াটা গুরুত্বপূর্ণ ছিল এবং আমরা তা সফলভাবেই করতে পেরেছি।’

গত ছয় ম্যাচে প্রথম পরাজয়ে ফুলহ্যামে রেলিগেশন জোনেই থাকলো।

এদিকে ব্রেন্ডন রজার্সের অধীনে আরো একটি সফল মৌসুম বেশ আনন্দের সাথে উপভোগ করছে লিস্টার। আগামী মঙ্গলবার তারা চেলসির মোকাবেলা করবে। তার আগে সাউদাম্পটনের সাথে ম্যাচটা গুরুত্বপূর্ণ ছিল। চেলসির সাথে সমান ২৯ পয়েন্ট নিয়ে অষ্টম স্থানে থাকা সাউদাম্পটনকে ২-০ গোলে পরাজিত করতে অবশ্য ফক্সেসদের খুব একটা কষ্ট করতে হয়নি। 

কিং পাওয়ার স্টেডিয়ামের এই জয়ে  লিস্টার শীর্ষে থাকা ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের থেকে এক পয়েন্ট পিছিয়ে দ্বিতীয় স্থান পুনরুদ্ধার করেছে। ৩৭ মিনিটে জেমস ম্যাডিসনের গোলে এগিয়ে যায় লিস্টার। গোলের পর প্রিমিয়ার লিগের নতুন গাইডলাইন অনুযায়ী সতীর্থদের সাথে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখেই উদযাপন করেছেন এই মিডফিল্ডার।

দ্বিতীয়ার্ধে সেইন্টসদের হয়ে শট পোস্টে লাগান স্টুয়ার্ট আর্মস্ট্রং। যদিও কোভিড-১৯ পজিটিভ হওয়া সফরকারীরা দলের সর্বোচ্চ গোলদাতা ড্যানি ইনগিসকে খুব মিস করেছে। ম্যাচ শেষের ইনজুরি টাইমে হার্ভি বার্নস কাউন্টার এ্যাটাক থেকে ব্যবধান দ্বিগুন করার পাশাপাশি লিস্টারের জয় নিশ্চিত করেন।

দিনের আরেক ম্যাচে টেবিলের তলানির দিকে থাকা দুই দলের লড়াইয়ে ওয়েস্ট ব্রুম ৩-২ গোলে উল্ফসকে পরাজিত করেছে। স্লাভেন বিলিচের স্থলাভিষিক্ত হবার পর পাঁচ ম্যাচে জয়বিহীন থাকা নতুন কোচ স্যাম অলড্রিচের অধীনে এই প্রথম জয় পেল ওয়েস্ট ব্রুম। এই জয়ের পরেই তলানির থেকে দ্বিতীয় স্থানেই থাকলো ওয়েস্ট ব্রুম। তবে রেলিগেশন জোন থেকে রক্ষা পেতে আর মাত্র তিন পয়েন্ট দুরে রয়েছে।

লিডসকে ১-০ গোলে পরাজিত করে ব্রাইটনও গুরুত্বপূর্ণ তিন পয়েন্ট অর্জন করেছে। ১৭ মিনিটে জয়সূচক গোলটি করেন নিল মপে। রেলিগেশন জোন থেকে গ্রাহাম পটারের দল এখন পাঁচ পয়েন্ট সুরক্ষিত রয়েছে। নয় ম্যাচে জয়বিহীন থাকার পর লিগে এটাই তাদের প্রথম জয়।

লন্ডন স্টেডিয়ামে বার্নলিকে ১-০ গোলে পরাজিত করে শীর্ষ চারের কাছাকাছি উঠে এসেছে ওয়েস্ট হ্যাম।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




bangladesherkhela.com 2019
Developed by RKR BD