চতুর্থ রাউন্ডে চেলসি ‌ও ম্যানচেস্টার সিটি

চতুর্থ রাউন্ডে চেলসি ‌ও  ম্যানচেস্টার সিটি

লিগ টু’র ক্লাব ক্রলির কাছে ৩-০ গোলের হতাশাজনক পরাজয়ে এফএ কাপের তৃতীয় রাউন্ড থেকে বিদায় নিয়েছে প্রিমিয়ার লিগের দল লিডসের। তবে টিমো ওয়ার্নারের গোলখরা কাটিয়ে ওঠার দিনে চেলসি ও বার্নান্ডো সিলভা ঝলকে ম্যানচেস্টার সিটি সহজেই চতুর্থ রাউন্ড নিশ্চিত করেছে। করোনাভাইরাস মহামারীর কারণে ক্ষতিগ্রস্থ সূচীতে শুক্র ও শনিবার তৃতীয় রাউন্ডের ম্যাচে ঠাসা ছিল। তারই ধারাবাহিকতায় রোববারও বেশ কয়েকটি ম্যাচই অনুষ্ঠিত হয়। যদিও আন্ডারডগ ক্রলির কাছে লিডসের বিদায়ে এফএ কাপ থেকে আরো একটি বড় ক্লাবের পতন ঘটলো।

ওয়েস্ট সাসেক্সের দ্য পিপল’স পেনশন স্টেডিয়ামে, ক্রলির জয়টা ছিল একেবারেই অপ্রত্যাশিত। এই ধরনের জয়ে অবশ্য এফএ কাপের আর্কষণ অনেকাংশেই বেড়ে যায়। একইসাথে দিন শেষে ফুটবলের জয় হয়। পুরো ব্রিটেন জুড়ে করোনাভাইরাসের নতুন প্রবাহে বেশ কয়েকটি ক্লাবই কোভিড-১৯’এ আক্রান্ত হয়ে দারুণ বিপাকে পড়েছে। ফলে এ্যাস্টন ভিলা ও ডার্বির ম্যাচ দুটিতে দুই দলেরই সিনিয়র স্কোয়াডটি করোনায় আক্রান্ত হওয়ায় পুরো একাদশেই তরুণদের মাঠে নামাতে বাধ্য হয়। শুক্রবার ভিলার তারুণ্য নির্ভর দলটি প্রিমিয়ার লিগে লিভারপুলের কাছে পরাজিত হয়েছিল। ডার্বির তরুণ দলটি লিগের বাইরের দল ক্রলির কাছে পরাজয় বরণ করতে বাধ্য হয়। লিগ ওয়ানের দল ¯্রসবুরিতে করোনা ছড়িয়ে পড়ায় সাউদাম্পটনের বিপক্ষে তাদের ম্যাচটি বাতিল হয়।

যদিও এই মুহূর্তে লিগ বন্ধ না করে নির্ধারিত সূচী অনুযায়ী দর্শকশুন্য স্টেডিয়ামে ম্যাচ আয়োজনের অনুমতি দিয়েছে ব্রিটিশ সরকার। এফএ কাপও একই নিয়মে মাঠে চালু থাকবে বলেই সংশ্লিষ্ঠরা সিদ্ধান্ত নিয়েছে। শীর্ষ লিগে ফিরে আসার পর লিডস বর্তমানে প্রিমিয়ার লিগ টেবিলের ১২তম স্থানে অবস্থান করছে। কিন্তু লিডস বস মার্সেলো বিয়েসলা সাতটি পরিবর্তন করে মূল একাদশ সাজানোর খেসারত কাল দিয়েছেন। আন্ডারডগ ক্রলির কাছে কালকের দিনটা ছিল একেবারেই রূপকথার গল্পের মত। প্রথমার্ধ গোলশুণ্য থাকার পর ৫১ মিনিটে ক্যারিয়ারের প্রথম গোল করেন ইংলিশ ডিফেন্ডার নিক সারুলা। দুই মিনিট পর এ্যাশলে নাদেসানসের লো শট আটকানোর সাধ্য ছিলনা লিডস গোলরক্ষক কিকো ক্যাসিয়াসের। ৭০ মিনিটে পোস্টের খুব কাছে থেকে দলের হয়ে তৃতীয় গোলটি করেন জর্ডান টানিক্লিফ।

১৯৫৮ সালে এফএ কাপে চতুর্থ টায়ারের ক্লাব অন্তর্ভূক্ত করা হয়। এ নিয়ে মাত্র দ্বিতীয়বারের মত চতুর্থ টায়ারের কোন ক্লাবের কাছে প্রিমিয়ার লিগের কোন ক্লাব তিন বা তার থেকেও বেশী গোলের ব্যবধানে এফএ কাপে পরাজিত হলো। ক্রলি বস জন ইয়েমস বলেছেন, ‘তোমাকে অবশ্যই এই পর্যায়ে এসে প্রতিটি ম্যাচ উপভোগ করতে হবে। এজন্য অবশ্য প্রত্যেককেই কঠোর পরিশ্রম করতে হয়েছে। ক্লাবকে স্বস্তির একটি জয় উপহার দেবার জন্য সবাইকে নিজ নিজ জায়গা থেকে উন্নতি করতে হয়েছে। আমরা সত্যিকার অর্থেই নিজেদের যোগ্যতার প্রমান দিয়েছি। দেখা যাক পরবর্তী রাউন্ডে কে আমাদের প্রতিপক্ষ হয়, তবে আমরা বর্তমানের প্রতিটি মুহূর্ত শতভাগ উপভোগ করতে চাই।’

এবারই প্রথমবারের মত এফএ কাপ থেকে এভাবে লজ্জাজনক বিদায় ঘটেনি লিডসের। ১৯৭১ সালে কোলচেস্টারের কাছে পরাজিত হয়ে এফএ কাপের তৃতীয় রাউন্ড থেকে বিদায় নিয়েছিল লিডস, যা এতদিন পর্যন্ত এই টুর্নামেন্টে ক্লাবের সবচেয়ে বড় ব্যর্থতা হয়ে আছে। ২০০৮ সালে অবশ্য লিডস হিউস্টনের কাছে অস্বস্তিকর পরাজয়ের অভিজ্ঞতা পেয়েছিল। ২০১৭ সালে লুটনের কাছে পরাজিত হয়ে বিদায় নিতে হয়।

আটবারের এফএ কাপ বিজয়ী ও গতবারের রানার্স-আপ চেলসি লিডসকে দেখিয়ে দিয়েছে আন্ডারডগের হুমকি থেকে কিভাবে রক্ষা পাওয়া সম্ভব। স্ট্যামফোর্ড ব্রীজে কাল চেলসি লিগ টু দল মোরকাম্বেকে ৪-০ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে। ১৮ মিনিটে মিডফিল্ডার ম্যাসন মাউন্ড ২৫ গজ দুর থেকে ব্লুজদের এগিয়ে দিয়ে নিজের ২২তম জন্মদিনকে স্মরণীয় করে রেখেছেন। ৪৪ মিনিটে কেই হাভার্টজের এসিস্টে ওয়ার্নার শেষ পর্যন্ত চেলসির স্কোরশিটে নাম লেখাতে সমর্থ হয়েছে। ৪৯ মিনিটে কালুম হাডসন-ওডুই গোল করার পর ৮৫ মিনিটে দলের হয়ে চতুর্থ গোলটি করেন হাভার্টজ।

ইতিহাদ স্টেডিয়ামে দিনের আরেক ম্যাচে দ্বিতীয় টায়ারের দল বার্মিংহামকে ৩-০ গোলে বিধ্বস্ত করে চতুর্থ রাউন্ড নিশ্চিত করেছে ম্যানচেস্টার সিটি। বুধবার লিগ কাপের সেমিফাইনালে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডকে পরাজিত করা দলটি থেকে চারটি পরিবর্তন করে মূল একাদশ সাজিয়েছিলেন পেপ গার্দিওলা। বার্নান্ডো সিলভা তাদের মধ্যে একজন। মূল দলে ফেরা এই পর্তুগীজ তারকার  আট মিনিটে গোলে এগিয়ে যায় সিটিজেনরা। ১৫ মিনিটে পোস্টের খুব কাছে থেকে ব্যবধান দ্বিগুন করেন সিলভা। ৩৩ মিনিটে দলের জয় নিশ্চিত করেন ফিল ফোডেন।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




bangladesherkhela.com 2019
Developed by RKR BD