দিল্লিকে ৫৯ রানে হারিয়ে প্লে-অফের দিকে পা কলকাতার

দিল্লিকে ৫৯ রানে হারিয়ে প্লে-অফের দিকে পা কলকাতার

দিল্লি ক্যাপিটালসকে ৫৯ রানে হারিয়ে আইপিএলের প্লে-অফ খেলার পথে অনেকটা এগিয়ে গেল কলকাতা নাইট রাইডার্স। ব্যাট হাতে ঝড় তুললেন নীতীশ রানা ও সুনীল নারিন। বল হাতে পাঁচ উইকেট নিয়ে কেকেআরের জয় নিশ্চিত করেন স্পিনার বরুণ চক্রবর্তী।

অতি গুরুত্বপূর্ণ এই ম্যাচে কলকাতা নাইট রাইডার্সের বিরুদ্ধে টসে জিতে ফিল্ডিং করার সিদ্ধান্ত নেয় দিল্লি ক্যাপিটালস। আবুধাবির শেখ জায়েদ স্টেডিয়ামের ব্যাটিং সহায়ক উইকেটে রান তাড়া করে ম্যাচ জিততে চেয়েছিলেন শ্রেয়স আইয়ার। পিচে ঘাস থাকায় কেকেআরকে অল্প রানে গুটিয়ে দেওয়াও তাঁদের লক্ষ্য বলে জানিয়েছিলেন দিল্লি অধিনায়ক।

সেই মতো শুরুটা দুর্দান্ত করেন দিল্লি ক্যাপিটালসের বোলাররা। ৪২ রানে ৩ উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে যায় কেকেআর। ৯, ১৩ এবং ৩ রান করে আউট হন যথাক্রমে ওপেনার শুভমান গিল, রাহুল ত্রিপাঠী এবং দীনেশ কার্তিক।

কেকেআরের দ্বিতীয় ওপেনার নীতীশ রানা ও সুনীল নারিন, দিল্লি ক্যাপিটালসের কার্যত সব বোলারকেই অবলীলায় মাঠের বাইরে পাঠান। রানা ও নারিনের ১১৫ রানের পার্টনারশিপ। চার ম্যাচ পর মাঠে নেমে ৩২ বলে ৬৪ রানের অনবদ্য ইনিংস খেলেন ক্যারিবিয়ান অলরাউন্ডার। ছটি চার ও চারটি ছক্কা আসে তাঁর ব্যাট থেকে। ৫৩ বলে ৮১ রান করেন রানা। ১৩টি টার ও একটি ছয় আসে তাঁর ব্যাট থেকে।

১৯৫ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে ব্যাটিং বিপর্যয়ের মুখে পড়ে দিল্লি ক্যাপিটালস। কোনও রান না করে আউট হন অজিঙ্কা রাহানে। ৬ রান করে সাজঘরে ফেরেন শিখর ধাওয়ান। ব্যর্থ হয় দিল্লির বাকি ব্যাটসম্যানরাও। একমাত্র অধিনায়ক শ্রেয়স আইয়ারের ব্যাট থেকে ৪৭ রান আসে। নির্ধারিত ২০ ওভারে ৯ উইকেট হারিয়ে ১৩৫ রান তুলতে সক্ষম হয় দিল্লি।

কেকেআরের জার্সিতে পাঁচ উইকেট নিয়ে দিল্লি ক্যাপিটালসের ব্যাটিং অর্ডারকে একাই শেষ করে দেন স্পিনার বরুণ চক্রবর্তী। চার ওভার বল করে তিনি মাত্র ২০ রান দেন। তিন উইকেট নেন কেকেআর পেসার প্যাট কামিন্স।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




bangladesherkhela.com 2019
Developed by RKR BD