বোলিং অক্যাশন পরিবর্তনের সুবিধা দেখছেন তাইজুল

বোলিং অক্যাশন পরিবর্তনের সুবিধা দেখছেন তাইজুল

বাঁ-হাতি স্পিনার তাইজুল ইসলাম নিজের বোলিং এ্যাকশন পরিবর্তনকে তিন ফরম্যাটের দলে জায়গা পোক্ত করার সুবিধা হিসেবে বিবেচনা করছেন। তাইজুল জানান, বোলিং পরামর্শক ড্যানিয়েল ভেট্টোরির পরামর্শে আত্মবিশ্বাস পেয়েছেন। ভেট্টরির বিশ্বাস অ্যাকশনে পরিবর্তন আনা তিন ফরম্যাটে নিজেকে প্রতিষ্ঠা করতে সহজ হবে।

নতুন বোলিং অ্যাকশনের সাথে মানিয়ে নিতে পেরেছেন বলে মনে করেন টেস্ট স্পেশালিষ্ট বোলার তাইজুল। যদিও ক্যারিয়ারের শুরু থেকে যে অ্যাকশন বোলিং করেছিলেন তার পরিবর্তন করাটা সহজ কাজ ছিল না।

তাইজুল বলেন, ‘মূলত আমার আগের যে অ্যাকশনটা ছিল, সেটিতে জায়গায় বল করাটা অনেক সুবিধা ছিল। কিন্তু ঐ অ্যাকশন তিন ফরম্যাটে চালিয়ে নেওয়া কঠিন। বৈচিত্র্যের মাত্রাটা একটু কম ছিল। এখন যে নতুন বোলিং অ্যাকশনটা করেছি, এটা নিয়ে ভেট্টোরির সাথে কথা বলেছি, তিনি বলছে এটা দিয়ে তিন ফরম্যাটে খেলতে পারবো। যার জন্য বিভিন্ন দিক চিন্তা করে, বলের বাউন্সের দিক চিন্তা করে, বিভিন্ন বৈচিত্র্যের কথা চিস্তা করে অ্যাকশনটা পরিবর্তন করি। অ্যাকশন পরিবর্তন করে ব্যাটসম্যানদের বল বিপক্ষে খেলে ইতোমধ্যে ফলও পাচ্ছি আমি। বৈচিত্র্যের দিকে সাহায্য করছে নতুন অ্যাকশনটা।’

দীর্ঘদিন ধরেই অধিনায়কের বড় ভরসার নাম তাইজুল। ক্যারিয়ারে এ পর্যন্ত ২৯ টেস্টে ১১৪টি উইকেট শিকার করেছেন তাইজুল। ফলে এই ফরম্যাটে দেশের অন্যতম সেরা স্পিনার হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিতও করেছেন তিনি। কিন্তু ওয়ানডে ও টি-২০ ক্রিকেটে নিজেকে সেভাবে প্রতিষ্ঠিত করতে পারেননি তাইজুল। যদিও ওয়ানডেতে অভিষেক ম্যাচে হ্যাট্টিক রয়েছে তার। ৯ ওয়ানডেতে ১২ উইকেট শিকার করেছেন তিনি। আর ২টি টি-২০তে ১টি উইকেট ঝুলিতে রয়েছে তার।

বোলিং অক্যাশন পরিবর্তনে মানিয়ে নেয়া কঠিন যেকোন বোলারের। কিন্তু তিন ফরম্যাটে জায়গা করে নিতে বোলিং অ্যাকশনের সাথে মানিয়ে নিতে কঠোর পরিশ্রম করেছেন তাইজুল।

তিনি জানান, ‘আমার ব্যক্তিগতভাবে বোলিং নিয়ে কাজ করেছি। ভেট্টোরির সাথে আমি বোলিং নিয়ে কথা বলেছি, অ্যাকশনটি মাঝে পরিবর্তন করেছি। ব্যাটসম্যানের বিপক্ষেও বল করেছি। আমার শরীরের সাথে অ্যাকশনটা মানিয়ে গেছে।’

তাইজুল আরও বলেন, ‘আমাদের ব্যক্তিগত কিছু অনুশীলন ছিল, প্রত্যেক খেলোয়াড় এক-দুই ঘণ্টা করে সেশন করেছি। এই সেশনগুলো ও ব্যক্তিগত অনুশীলন হওয়াতে খেলোয়াড়দের সুবিধা হয়েছে। যার যার কাজগুলো নিজের মত করে করতে পারছি।’

আত্মবিশ্বাসের মাত্রা আগের চেয়ে বেড়েছে বলের জানান তাইজুল, ‘আত্মবিশ্বাসের সাথে এখন ব্যাটসম্যানদের বিপক্ষে বল করতে পারছি। আত্মবিশ্বাসটা বাড়ছে, কিছুদিন গেলে আত্মবিশ্বাস আরও বেড়ে যাবে।’

এদিকে, শ্রীলংকার বিপক্ষে সিরিজ দিয়ে আবারো মাঠে ফিরতে চান তাইজুল। তবে কোভিড-১৯এর কারনে বেশ কিছু নিয়মের কারনে বাংলাদেশের লংকান সফরটি অনিশ্চিত। তাইজুল বলেন, ‘ম্যাচের বাইরে থাকাটা আমাদের জন্য বেশ কঠিন। আমরা সবসময় খেলতে পছন্দ করি। সামনে শ্রীলংকার বিপক্ষে সিরিজটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এটা হলে আমরা সবাই আবার মাঠে ফিরতে পারবো।’

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




bangladesherkhela.com 2019
Developed by RKR BD