রাত ১২:১৮, রবিবার, ২৪শে আগস্ট, ২০১৯ ইং
/ আর্ন্তজাতিক / শ্রীলঙ্কায় হোয়াইটওয়াশ বাংলাদেশ
শ্রীলঙ্কায় হোয়াইটওয়াশ বাংলাদেশ
আগস্ট ১, ২০১৯



শেষ ‌ওয়ানডেতে স্বাগতিক শ্রীলঙ্কার কাছে ১২২ রানে পরাজিত হ‌ওয়ায় তিন ম্যাচের সিরিজে হোয়াইটওয়াশই হলো বাংলাদেশ। লঙ্কানদের দেয়া ২৯৫ রানের টার্গেটে ব্যাট করে ১৪ ‌ওভার বাকী থাকতেই ১৭২ রানে অলআউট হয় তামিম ইকবালের দল। দলের হয়ে সর্বোচ্চ ৬৯ রান করেন সৌম্য সরকার। কলম্বোর প্রেমাদাসা স্টেডিয়ামে, টস জিতে ব্যাট করে অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুসের (৮৭) ও কুশল মেন্ডিসের (৫৪) রানের ওপর ভর করে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে ২৯৪ রান সংগ্রহ করে লঙ্কানরা।

হোয়াইটওয়াশ করার মিশনে শ্রীলঙ্কা, অন্যদিকে হোয়াইটওয়াশ এড়াতে মাঠে নামে বাংলাদেশ। ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই পেসার শফিউল ইসলাম আঘাত হানেন লঙ্কান শিবিরে। তিনি ইনিংসের ৫ম ওভারে লেগবিফোরের ফাঁদে ফেলেন অভিস্কা ফার্নান্দোকে। ১৪ বলে ৬ রান করেন ফার্নান্দো।

দ্বিতীয় ইউকেটে দিমুথ করুনারত্নে ও কুশল পেরেরার ৮৭ রানের জুটি দলকে প্রাথমিক চাপ থেকে মুক্তি দেয়। দলীয় ৯৬ রানের মাথায় ৬০ বলে ৪৬ রান করে তাইজুল ইসলামের ঘূর্ণিতে ফেরেন করুনারত্নে। ৯৮ রানের মাথায় কুশল পেরেরাকে হারালে ফের চাপে পড়ে লঙ্কানরা। পেসার রুবেল হোসেনের বলে উইকেরক্ষক মুশফিকের তালুবন্দী হন তিনি। পেরেরার ব্যাট থেকে আসে ৫১ বলে ৪২ রানের এক স্বভাবসুলভ ইনিংস।

৩ উইকেট হারিয়ে কিছুটা ধুঁকতে থাকে শ্রীলঙ্কা। বল হাতে বাংলাদেশও চেপে ধরে লঙ্কান ব্যাটসম্যানদের। কিন্তু চতুর্থ উ্ইকেটে ম্যাথুস ও মেন্ডিসের ১০১ রানের জুটি চালকের আসনে নিয়ে যায় শ্রীলঙ্কাকে। দুজনেই তুলে নেন ফিফটি। ৫৮ বলে ৫৪ রান আসে মেন্ডিসের ব্যাট থেকে। ৯০ বলে ৮৭ রান করেন ম্যাথুস। শেষ পর্যন্ত ৮ উইকেট হারিয়ে ২৯৪ রান তোলে শ্রীলঙ্কা।

বাংলাদেশী বোলারদের মধ্যে শফিউল ইসলাম ও সৌম্য সরকার ৩টি করে, তাইজুল ও রুবেল একটি করে উইকেট তুলে নেন।

শ্রীলঙ্কার দেয়া ২৯৫ রানের চ্যালেঞ্জিং স্কোর তাড়া করতে নেমে শুরু থেকেই উইকেটে হারাতে থাকে বাংলাদেশ। হোয়াইটওয়াশ এড়ানোর ম্যাচে ১১৭ রানে ৭ ব্যাটসম্যানের উইকেট হারিয়ে কোণঠাসা হয়ে পড়ে টাইগাররা।

দলের ৪ রানেই ফেরেন ওপেনার তামিম ইকবাল। শ্রীলঙ্কা সিরিজে তিন ম্যাচে তার সংগ্রহ মাত্র ২১ রান। এক বছর পর জাতীয় দলে ফিরে প্রত্যাশিত ব্যাটিং করতে পারেননি এনামুল হক বিজয়। ফিরে যান মাত্র ১৪ রানে। রানে থাকা মুশফিকুর রহিম‌ও ব্যর্থ। ফেরেন মাত্র ১০ রানে।

৪৬ রানে তামিম-বিজয়-মুশফিকের বিদায়ের পর দলীয় ৬০ রানে ফেরেন মিঠুন। আগের দুই ম্যাচে ১০ ও ১২ রান করা এ উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান ফেরেন মাত্র ৪ রানে। দলের ব্যাটিং বিপর্যয়ে হাল ধরতে পারেননি মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ।

দলের ব্যাটিং বিপর্যয়ের দিনে একাই লড়াই করে যান সৌম্য সরকার। দলীয় ১৪৩ রানে অষ্টম ব্যাটসম্যান হিসেবে বোল্ড হন তিনি। তার আগে ৮৬ বলে করেন ৬৯ রান। ইনিংসের শেষ দিকে তাইজুল ইসলাম ২৮ বলে অপরাজিত ৩৯ রান করে ব্যবধান কমালেও দলের হার এড়াতে পারেননি। ৩৬ ওভারে ১৭২ রানে থেমে যায় বাংলাদেশের ইনিংস। ১২২ রানের জয় পায় শ্রীলংকা।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :