সকাল ৮:৩২, রবিবার, ২১শে জুলাই, ২০১৯ ইং
/ আইপিএল / চারে উঠে এলো সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদ
ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ
চারে উঠে এলো সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদ
এপ্রিল ২১, ২০১৯



কোলকাতা নাইটরাইডার্সকে হেসেখেলে পরাজিত করে ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ-আইপিএলের প্লেঅফে শ্বাস ফেলছে এখন সানরাইজার্স হায়দরাবাদ। আর টানা পাঁচ ম্যাচ হেরে কাগজে-কলমে আশা থাকলে‌ও বাস্তবে তা খুবই ক্ষীণ দীনেশ কার্তিকের দল কোলকাতার। ৩০ বল আর ৯ উইকেট হাতে রেখেই জিতে যায় কেন উইলিয়ামসনের দল। তাতে পয়েন্ট টেবিলে এখন চতুর্থস্থানে উঠে প্লে অফের দিকে হায়দরাবাদ।

নিজেদের মাঠ রাজীব গান্ধী স্টেডিয়ামে, ১৬০ রানের টার্গেটে নেমে শুরু থেকেই আক্রমণের পথ বেছে নেন ডেভিড ওয়ার্নার ও জনি বেয়ারস্টো। তাঁদের মারমুখী ব্যাটিংয়ে পাত্তাই পায়নি কেকেআরের বোলাররা। ওয়ার্নার ৩৮ বলে ৬৭ রান করেন। তাঁকে ফেরান পৃথ্বী রাজ। বেয়ারস্টো অপরাজিত থাকেন ৮০ রানে। পাঁচ ওভার বাকি থাকতে ৯ উইকেটে ম্যাচ জিতে নেয় সানরাইজার্স।

অবশ্য পরাজয়ের বৃত্ত থেকে বের হতে রোববার নাইটরা দলে তিনটে পরিবর্তন আনে। রবিন উথাপ্পা, কুলদীপ যাদব ও প্রসিদ্ধ কৃষ্ণাকে মাঠের বাইরে রেখেই খেলতে নামে তারা। তাঁদের বদলি হিসেবে রিঙ্কু সিংহ, কেসি কারিয়াপ্পা ও পৃথ্বী রাজকে সুযোগ দেওয়া হয়। কিন্তু ভাগ্যের কোনো পরিবর্তন হয়নি। টসে হেরে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা দারুণ করেছিলেন কেকেআররের সুনীল নারাইন। ৮ বলে ২৫ রান করেন তিনি। নাইটরাইডার্সের ভক্তদের মনে হচ্ছিল বড় রানের টার্গেট বুঝি দেবে প্রিয় দল। কিন্তু সময় বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে দ্রুত উইকেট পড়ে কোলকাতার। শেষ পর্যন্ত ৮ উইকেটে ১৫৯ রানে থামে কোলকাতা নাইটরাইডার্স। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ রান ক্রিস লিনের (৪৭ বলে ৫১ রান)।

প্লে অফে যাওয়ার আশা ক্রমশ কমে আসছে নাইটদের। তবে সুযোগ যে একেবারে নেই তেমনটা এখনই বলা যাচ্ছে না। বাকি আছে আরো চারটি ম্যাচ।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :