রাত ১১:০৩, শনিবার, ২০শে এপ্রিল, ২০১৯ ইং
/ হকি / হকি ফেডারেশনের নির্বাচন
হকি ফেডারেশনের নির্বাচন
মার্চ ৩১, ২০১৯



সমঝোতা হয়নি হকি ফেডারেশনের নির্বাচনে। তাই যার যার প্যানেলের প্রার্থিতা জমা দিয়েছেন প্রার্থীরা। ২৮টি পদের বিপরীতে মনোনয়ন পত্র জমা পড়েছে ৬৮টি। ফেডারেশনের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ সাধারণ সম্পাদক পদে প্রার্থী হয়েছেন জাতীয় ক্রীড়া পরিষদের কাউন্সিলর আব্দুস সাদেক, মোহামেডানের মমিনুল হক সাঈদ এবং ঊষা ক্রীড়া চক্রের শিকদার আব্দুর রশীদ। তবে সময় এখনো ফুরিয়ে যায়নি। ৪ এপ্রিল মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার পর্যন্ত ঐকমত্যের ভিত্তিতে একটি কমিটিকে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত করার সুযোগ আছে। কিন্তু বাস্তব সম্ভাবনা খুবই ক্ষীণ। আবদুস সাদেক বলেন, ‘মনে হয় না সমঝোতার কোনো সম্ভাবনা আছে। আমাকে সাধারণ সম্পাদক রেখে সমঝোতার একটা চেষ্টা হয়েছিল; কিন্তু সাঈদ রাজি হয়নি। ভোট হবে। আমি জয়ের ব্যাপারে আশাবাদী।’

মমিনুল হক সাঈদ সমঝোতা প্রসঙ্গে বলেন, ‘আসলে ঐকমত্য ও সমঝোতার কথা মিডিয়ায়ই শুনেছি। এ বিষয়ে কিছু জানি না। কোনো প্রস্তাবও পাইনি। কোনো বৈঠকও হয়নি। আমরা নির্বাচনের প্রস্তুতি নিয়ে আগে থেকেই কাজ করেছি। আমার বিশ্বাস বিজয়ী হবো।’

হকির নির্বাচনে কোনো নাটক হবে কি না তা দেখতে ৪ এপ্রিল পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে। তবে রোববার দুপক্ষ শোডাউন করে মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার সময় উত্তেজনার একটা ঝাঁজ কিন্তু ছড়িয়েছে। বিশেষ করে দেশের দুই সমর্থকপুষ্ট ক্লাব মোহামেডান ও আবাহনীর নেতৃত্বে হকির সংগঠকরা দুই ভাগে ভাগ হয়ে যাওয়া এবং দুপক্ষের নেতৃত্ব দেয়া সংগঠকরা সরকারদলীয় সমর্থক হওয়ায় কেউ কাউকে ছাড় দিতে নারাজ।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :