বিকাল ৫:২৫, বুধবার, ২২শে মে, ২০১৯ ইং
/ ফুটবল / টার্গেট এবার বিশ্বকাপ
বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৬ নারী ফুটবল দল
টার্গেট এবার বিশ্বকাপ
মার্চ ৫, ২০১৯



এএফসি অনূর্ধ্ব-১৬ ফুটবল চ্যাম্পিয়নশীপের চূড়ান্ত পর্বে আরো ভালো ফলের আশা বাংলাদেশ দলের কিশোরীদের। দেশে ফিরে বাফুফে ভবনে এক সংবাদ সম্মেলনে এমনটাই জানান দলের অধিনায়ক মারিয়া মান্ডা। এদিকে, চূড়ান্ত পর্বের জন্য যাতে বাংলাদেশ ভালোভাবে নিজেদের প্রস্তুত করতে পারে, সেজন্য ইউরোপের কোনো দেশে অনুশীলন ক্যাম্প এবং তাদের সঙ্গে প্রীতি ম্যাচের আয়োজন করবে বলেও জানান, বাফুফের কর্মকর্তারা।

এএফসি অনূর্ধ্ব-১৬ চ্যাম্পিয়নশীপের দ্বিতীয় বাছাইয়ে রানার্সআপ হয়ে মিয়ানমার থেকে বীরের বেশেই দেশে ফিরলো বাংলাদেশের কিশোরীরা। লক্ষ্যে পৌঁছানোর আনন্দ খেলোয়াড়-কর্মকর্তাদের মধ্যে। আগামী সেপ্টেম্বরে থাইল্যান্ডে এএফসি অনূর্ধ্ব-১৬ চ্যাম্পিয়নশিপের চূড়ান্ত পর্বটি আসলে ২০২০ সালের ফিফা অনূর্ধ্ব-১৭ বিশ্বকাপেরও বাছাই। যে কারণে বাংলাদেশের নারীদের সামনে এখন বিশ্বকাপে খেলার হাতছানি। দলের অধিনায়ক মারিয়া মান্ডা জানান, আমরা সাধ্য মতো চেষ্টা করেছি। তিনটি ম্যাচের মধ্যে দুটিতে জিতেছি। একটি হেরেছি। নিশ্চয়ই চূড়ান্ত পর্বে আরো ভালো খেলা উপহার দে‌ওয়ার চেষ্টা থাকবে আমাদের।

দলের সিনিয়র খেলোয়াড় আঁখি খাতুন জানান, চূড়ান্ত পর্বে আরো ভালো ফলাফল করা সম্ভব। মিয়ানমারে আমরা অনেক ভালো দলের বিপক্ষে খেলেছি। চূড়ান্ত পর্বে খেলার আগে সেইসব দলের সাথে খেলাটা আমাদের জন্য বেশ উপকারী হয়েছে। আমরা তাদের অবস্থান বুঝতে পেরেছি। তাই নিজেদের প্রস্তুতি নিতে সুবিধা হবে। তাছাড়া এখন‌ও ছয়মাস বাকী আছে, নিশ্চয়ই কোচ এবং কর্মকর্তারা‌ও ভালো কিছু করার তাগিদ বোধ করছেন।

বাংলাদেশের কিশোরীরা যাতে চূড়ান্ত পর্বের জন্য নিজেদেরকে ভালো মতো প্রস্তুত করতে পারে সে ব্যাপারে চেষ্টার কোনো কমতি থাকবেনা বলে জানান, ফেডারেশনের সহ-সভাপতি তাবিথ আউয়াল। তিনি বলেন, আমাদের দলকে প্রস্তুত করতে ইউরোপের কোনো দেশে পাঠিয়ে প্রস্তুতি নে‌ওয়ার চেষ্টা করা হবে। ঐসব দলের সাথে যেনো প্রস্তুতি ম্যাচ খেলতে পারে সে ব্যাপারে‌ও চেষ্টা করা হবে।

থাইল্যান্ডে আটদলের লড়াইয়ে সেরা তিনে থাকতে পারলেই বাংলাদেশের মেয়েরা বিশ্বকাপে খেলার টিকিট পাবে।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :