বিকাল ৩:০৪, রবিবার, ১৯শে মে, ২০১৯ ইং
/ আর্ন্তজাতিক / হচ্ছেনা আইপিএলের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান
হচ্ছেনা আইপিএলের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান
ফেব্রুয়ারি ২৩, ২০১৯



প্রতিবছরই জাকজমকপূর্ণ উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের মধ্যদিয়ে আয়োজন করা হয় ইন্ডিযান প্রিমিয়ার লিগ-আইপিএলের আসর। কিন্তু এবার সেটি হচ্ছেনা। পুল‌ওয়ামা কাণ্ডের পর পরিস্থিতি পাল্টেছে। আসন্ন আইপিএলে কোনও জমকালো উদ্বোধনী অনুষ্ঠান করতে নারাজ সুপ্রিম কোর্ট নিযুক্ত কমিটি অফ অ্যাডমিনিস্ট্রেটর্স (সিওএ)। ঐ অনুষ্ঠানের জন্য বরাদ্দ করা অর্থ পুলওয়ামায় নিহত সৈন্যদের পরিবারের সাহায্যে ব্যয় করা হবে। গতকাল শুক্রবার দিল্লিতে ভারত-পাকিস্তান ক্রিকেট নিয়ে সিওএ-র যে বৈঠক হয়, তাতে এই সিদ্ধান্ত হয়। আগামী ২৩ মার্চ থেকে শুরু হ‌ওয়ার কথা রয়েছে আইপিএলের দ্বাদশ আসরের।

আইপিএলের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান মানে গ্লামারসর্বস্ব বলিউড তারকাদের নিয়ে ঝাঁ চকচকে অনুষ্ঠান। গত বছর আইপিএলের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ঋত্বিক রোশন, বরুণ ধাওয়ান, প্রভু দেবা ও জ্যাকলিন ফার্নান্ডেজরা মাতিয়ে দিয়েছিলেন মুম্বাইয়ের ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়াম। সেদিনই মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স ও চেন্নাই সুপার কিংসের মধ্যকার ম্যাচ দিয়ে আইপিএলের একাদশ আসর শুরু হয়। এবারেও সে রকম চমক জাগানিয়া উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের মাধ্যমে আইপিএলের দ্বাদশ আসর শুরুর পরিকল্পনা থাকলেও শেষ পর্যন্ত তা বাতিল করা হয়।

কাশ্মীরে সাম্প্রতিক জঙ্গি হামলার ভয়ঙ্কর ঘটনায় ৪০জন ভারতীয় সেনা নিহত হওয়ায় দেশে বিরাজমান পরিস্থিতিতে এমন অনুষ্ঠান না করাই ভাল বলে মনে করে সিওএ। সিওএ প্রধান বিনোদ রাই বৈঠকের পরে বলেন, ‘আইপিএলের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান এবার করছি না আমরা। এরজন্য যে অর্থ বরাদ্দ করা ছিল, সেই অর্থ দিয়ে নিহত সেনা পরিবারকে সাহায্য করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।’

এরআগে, নিহত সেনা পরিবারগুলিকে সাহায্য করতে এগিয়ে আসেন ক্রিকেটারেরা। গত সপ্তাহে মোহাম্মদ শামি আর্থিক সহায়তা করেন। সাবেক ওপেনার বীরেন্দ্র সেবাগ জানান, তিনি নিহত জওয়ানদের পরিবারের শিশুদের পড়াশোনার দায়িত্ব নেবেন। রঞ্জি ও ইরানি ট্রফি জয়ী বিদর্ভ দলও পুরস্কারের অর্থ তুলে দেয় বিপন্ন পরিবারগুলির সাহায্যে।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :