বিকাল ৩:১১, রবিবার, ১৯শে মে, ২০১৯ ইং
/ আর্ন্তজাতিক / মুশফিকের ২০০তম ওয়ানডে স্মরণীয় হল না
মুশফিকের ২০০তম ওয়ানডে স্মরণীয় হল না
ফেব্রুয়ারি ১৬, ২০১৯



আজও হলো না। পারলেন না মুশফিক। নিজের ২০০তম ওয়ানডে ম্যাচটি স্মরণীয় করতে। ফার্গুসনের বলে বোল্ড হয়ে ভাঙা স্ট্যাম্পে তাকিয়ে দীর্ঘশ্বাস ফেলা ছাড়া আর কিছু করার ছিল না তার।

ক্রাইস্টচার্চের আকাশের মন খারাপ আগে থেকেই। আপাতত মন খারাপ বাংলাদেশের ক্রিকেট ভক্তদেরও! বাংলাদেশের ব্যাটিংয়ের আস্থা যাকে মনে করা হয়, সেই মুশফিকুর রহিম ১৫ ওভারের মধ্যেই দুবার জীবন পেয়েছেন। প্রথম স্লিপে থাকা টেলর ১৩ ওভার ৪ বলে মুশফিকের সহজ ক্যাচ ছাড়ার আগে ১০ ওভার ৩ বলে মিডউইকেটে উইকেটে আরও একবার জীবন পান টড অ্যাসেলের কল্যাণে। ১৬তম ওভারের প্রথম বলে টেলর আরও একবার ক্যাচ মিস করেন। এবার বেঁচে যান মুশফিককে সঙ্গ দেওয়া মোহাম্মদ মিঠুন।

মুশফিকের শেষ রক্ষা হয়নি। ফার্গুসনের বলে বোল্ড হয়ে ফেরেন তিনি প্যাভিলিয়নে। তার আগে, ৩৬ বলে করেন মুশফিক ২৪ রান। লাল-সবুজ জার্সি গায়ে নিজের ২০০তম ওয়ানডেটি মনে রাখার মতো হলো না সাবেক এই অধিনায়কের।

এর আগে শুরুতেই লিটন দাসকে হারিয়ে বিপদে পড়ে বাংলাদেশ। দেশসেরা ওপেনার তামিম ইকবালের সঙ্গী হয়ে নামা লিটন ফেরেন ম্যাচের চতুর্থ ওভারের প্রথম বলেই। স্কোরবোর্ডে তখন বাংলাদেশের মাত্র ৫ রান। বোল্টের বলে ফার্গুসনের দুর্দান্ত এক ক্যাচের শিকার হন লিটন। লিটনের আউটের পর আবারও বৃষ্টি ঝরতে থাকলে মিনিট বিশেক খেলা বন্ধ রাখেন আম্পায়ারেরা। খেলা শুরু হওয়ার পর খানিকটা খোলসে থাকা তামিম ইকবালও ফিরে যান দলের ১৬ রানের মাথাতে। ৬ দশমিক ৫ ওভারে হেনরির বলে এলবিডব্লিউর ফাঁদে পড়েন দেশসেরা এই ব্যাটসম্যান। ১৬ রানে ২ উইকেট হারানো বাংলাদেশকে তখন আশার আলো দেখাচ্ছিল সৌম্য-মুশফিকের জুটি। কিন্তু ফের ভালো কিছুর আশা জাগিয়ে সৌম্য সরকার ফিরে যান ৪৮ রানে। সাজঘরে যাওয়ার আগে নিজে ২৩ বল খেলে করেন ২২ রান।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :