রাত ৪:৫৮, মঙ্গলবার, ১৯শে আগস্ট, ২০১৯ ইং
/ ফুটবল / টিকে থাকাই লক্ষ্য মোহামেডান-আরামবাগের
টিকে থাকাই লক্ষ্য মোহামেডান-আরামবাগের
জানুয়ারি ১৪, ২০১৯



কিছুদিন পরই মাঠে গড়াবে দেশিয় ফুটবলের সবচেয়ে জমজমাট আসর বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ। এই লিগে অংশ নিতে যাওয়া ১৩টি দল নিজেদের গুছিয়ে নিতে এখন ব্যস্ত সময় পার করছে। খেলোয়াড়রা ঘাম ঝরাচ্ছেন অনুশীলনে, কোচরা ব্যস্ত রণ-কৌশল সাজাতে। লিগকে ঘিরে কোচদের কৌশল, খেলোয়াড় আর ক্লাবের লক্ষ্য সম্পকের্ পাঠকদের আগাম ধারণা দিতেই এই আয়োজন।

ফুটবলের পেশাদার জগতে পা রাখার পর প্রিমিয়ার লিগের শিরোপা জেতার নজির নেই অফিস পাড়ার দুই দল ঐতিহ্যবাহী মোহামেডান আর আরামবাগ ক্রীড়া সংঘের। বাস্তবতা বলে, এবারও অতিথি হয়েই থাকতে হবে তাদের। লিগ শিরোপা জয়ের বড় স্বপ্ন দেখছে না, ভালো খেলে সম্মানজনক অবস্থানে থাকাই মূল লক্ষ্য এই দল দুটির।

ঢাকার ফুটবলের জনপ্রিয় ক্লাব মোহামেডান। একটা সময় ছিল যখন ঘরোয়া ফুটবল টুনাের্মন্ট মানেই শিরোপার অন্যতম দাবিদার মানা হতো ঐতিহ্যবাহী ক্লাবটিকে। নিজেদের ঐতিহ্য ভুলে সেই ক্লাবটি এখন যেন কেবল খেলার জন্যই খেলে! পেশাদার লিগের প্রথম তিন আসরের রানাসর্আপরা গত আসরে হয়েছে পঞ্চম। এবারের মৌসুমের প্রথম দুই টুনাের্মন্টেও তারা ব্যর্থ। ফেডারেশন কাপের পর স্বাধীনতা কাপেও গ্রুপ পবর্ থেকে বিদায় নেয় সাদা-কালো শিবির।

আস্থার প্রতিদান দিতে না পারায় ইংলিশ কোচ ক্রিস্টোফার ইভান্সকে বিদায় দিয়েছে মোহামেডান। লিগকে সামনে রেখে স্থানীয় কোচ নাসির উদ্দিনের কাঁধে তুলে দেয়া হয়েছে দায়িত্বভার। কোচবদল এখন মোহামেডানের কৌশলই হয়ে পড়েছে। গত কয়েক মৌসুম ধরে ক্ষণে ক্ষণে কোচ পরিবর্তন করছে দলটি। মাঠে দলটির ব্যথর্তার পেছনে এই পরিবতের্নর দায় দেখছেন কিংসলে চিগোজি, ‘বারবার কোচ পরিবতের্নর কারণে আমাদের প্রস্তুতিটা সেভাবে হচ্ছে না। আশা করছি নতুন কোচের অধীনে ভালো খেলতে পারব। দলের সবার আত্মবিশ্বাস আছে লিগে ভালো করার। লিগে ধারাবাহিকতা রক্ষা করাই আমাদের লক্ষ্য।’

মোহামেডানের মতো আরামবাগও ঢাকার ফুটবলে পুরনো নাম। তবে কখনোই বড় দল হয়ে ওঠা হয়নি তাদের। ৬১ বছরে ক্লাবটির অজর্ন বলতে একবার স্বাধীনতা কাপ জয়। গত মৌসুমের সেই চমকটা এবারের স্বাধীনতা কাপ আর ফেডারেশন কাপে দেখাতে পারেনি তারা। তবে লিগটা লম্বা সময়ের। সেখানে লড়াই করে আরও ভালো খেলা সম্ভব বলেই মনে করছেন দলটির ফুটবলাররা। শিরোপায় চোখ না থাকলেও অন্তত সেরা চারে জায়গা করে নিতে চায় তারা।

চাওয়া পুরণে কোচ মারুফুল হককে আক্রমণভাগে আত্মবিশ্বাস যোগাচ্ছেন ক্যামেরুনের পল এমিল। রক্ষণে বড় ভরসা ইকবাল বাবাকানভ। আরিফুর, শাহরিয়ার বাপ্পি ও রবিউলদের মতো তরুণদের নিয়ে আসর মাতানোর লক্ষ্য অফিসপাড়ার ক্লাবটির।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :