সকাল ৯:১৭, মঙ্গলবার, ১৮ই জুন, ২০১৯ ইং
/ আর্ন্তজাতিক / হারলেও নকআউটে রিয়াল মাদ্রিদ
উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ
হারলেও নকআউটে রিয়াল মাদ্রিদ
ডিসেম্বর ১৩, ২০১৮



উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের অঘটনের রাতে ম্যানচেস্টার সিটি জয় পেলেও হেরে গেছে রিয়াল মাদ্রিদ, রোমা, জুভেন্টাস ও ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। তবে নকআউট পর্বে খেলা নিশ্চিত করেছে তাদের সবাই। হারের পরও গ্রুপসেরা হয়েই পরের রাউন্ডে খেলবে রিয়াল মাদ্রিদ ও জুভেন্টাস।

আগেই নকআউট পর্ব নিশ্চিত হয়ে যাওয়ায় লুকা মডরিচ, গ্যারেথ বেল, টনি ক্রুস কিংবা র‌্যামোসদের সবাইকে বেঞ্চে রেখেই ঘরের মাঠে গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচে সিএসকেএ মস্কোর বিপক্ষে খেলতে নামে রিয়াল মাদ্রিদ। কিন্তু তরুণ আর অনভিজ্ঞ দলটি ম্যাচের ৭০ ভাগ বলের দখল ধরে রেখে আর গোটা কুড়ি আক্রমণ করেও পায়নি কোনো সাফল্য। বরং ফেডর শ্যালভ আর জর্জি শেনিকভের গোলে বিরতির আগেই জয়ের স্বপ্ন দেখে সিএসকেএ।
বিরতির পর বেল আর টনি ক্রুসকে নামিয়েও ফল পাননি রিয়াল কোচ সান্তিয়াগো সোলারি। বরং ম্যাচের ৭৩ মিনিটে আইসল্যান্ডের স্ট্রাইকার সিগার্ডসনের গোলে বড় জয় পায় রাশিয়ার ক্লাবটি।

তাতে ইউরোপের মঞ্চে ঘরের মাঠে নিজেদের সবচেয়ে বড় হারের লজ্জায় ডোবে টানা তিনবারের চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শিরোপা জয়ীরা।

এদিকে, এইচ গ্রুপের ম্যাচে, দুর্বল দল ইয়ং বয়েজের কাছে ২-১ গোলে হেরে গেছে ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর জুভেন্টাস। ইয়ং বয়েজের মাঠে কেবল ৬০ ভাগ বলের দখলই ছিলো না ইতালিয়ান চ্যাম্পিয়নদের বরং গোটা ম্যাচে অন্তত ২৫ বার আক্রমণ করেছে তারা। কিন্তু তেমন ফল হয়নি।

৩০ মিনিটে স্বাগতিকদের আক্রমণ রুখতে গিয়ে উল্টো তাদের পেনাল্টি পাইয়ে দেন অ্যালেক্স সান্দো। স্পটকিকে দলকে এগিয়ে দেন গুইলামো হোরাও।

বিরতির পরও কাটেনি ম্যাসিমিলিয়ানো অ্যালিগ্রির দলের দুর্দশা। ৬৮ মিনিটে হোরাও ব্যবধান দ্বিগুণ করেন। ম্যাচের ১০ মিনিট বাকি থাকতে আর্জেন্টাইন তরুণ সেনসেশন পাওলো দিবালা এক গোল শোধ করেন। ইনজুরি সময়ে দিবালার আরও একটি গোল বাতিল হয়ে যায় রেফারির বিতর্কিত অফসাইডের সিদ্ধান্তে। তাতে হার নিয়েই মাঠ ছাড়তে হয় রোনালদোদের।

অন্যম্যাচে, ভ্যালেন্সিয়ার কাছে ম্যান ইউ ২-১ গোলে হেরে যাওয়ায় এই গ্রুপের শীর্ষস্থান থেকে গেছে জুভেন্টাসের কাছেই।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :