রাত ৪:১৮, সোমবার, ২৪শে মার্চ, ২০১৯ ইং
/ ক্রিকেট / ইতিহাসের সামনে বাংলাদেশ
ইতিহাসের সামনে বাংলাদেশ
ডিসেম্বর ১৬, ২০১৮



বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের সামনে এখন নতুন ইতিহাসের হাতছানি। সিলেটে সাকিব আল হাসানের নেতৃত্বে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সিরিজের প্রথম টি-টোয়েন্টি জিতলে সেই ইতিহাসের পথে হবে শুভসূচনা। মিরপুরে এসে যদি সিরিজটাও নিশ্চিত করা যায়, তবে টাইগার ক্রিকেট নাম লেখাবে নতুন এক অধ্যায়ে। তিন ফরম্যাট মিলিয়ে কোনো পূর্ণাঙ্গ সিরিজ জয়ের প্রথম স্বাদ নেবে বাংলাদেশ।

টেস্ট সিরিজে বাংলাদেশের কাছে পাত্তাই পায়নি ‌ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ওয়ানডে সিরিজেও সেভাবে প্রতিরোধ গড়তে পারেনি সফরকারীরা। লাল-সবুজরা সিরিজ জেতে ২-১-এ। সাফল্যের এই স্রোত যদি টি-টোয়েন্টিতেও অব্যাহত থাকে তবে টাইগার ক্রিকেট উঠে যাবে নতুন উচ্চতায়। নতুন অধ্যায় যোগ হবে এদেশের ক্রিকেটে।

২০০৮ সাল থেকে শুরু করে এপর্যন্ত বিভিন্ন দলের বিপক্ষে ১৪টি পূর্ণাঙ্গ সিরিজ খেলেছে বাংলাদেশ। চৌদ্দবারের মধ্যে কখনোই একসঙ্গে তিন ফরম্যাটের ক্রিকেটেই সিরিজ জিততে পারেনি টাইগাররা। তবে সুযোগ ছিল বেশ কয়েকবার। কিন্তু সাফল্য আসেনি। মোক্ষম সুযোগটি আসে ২০১৫ সালে, পাকিস্তানের বিপক্ষে দেশের মাটিতেই।

ওয়ানডে সিরিজে হোয়াইটওয়াশ (৩-০) করার পর একমাত্র টি-টোয়েন্টি ম্যাচেও জয় পায় বাংলাদেশ। দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজের প্রথমটি ড্রয়ের পর মিরপুরে দ্বিতীয় ম্যাচ হেরে গেলে স্বপ্নভঙ্গ হয় টাইগারদের।

সেটির বিপরীত চিত্র দেখা গেছে চলতি বছরের জুলাই-আগস্টে ‌ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে। ওয়ানডে, টি-টোয়েন্টি সিরিজ জিতলেও শুরুর টেস্ট সিরিজটা হেরে বসে বাংলাদেশ। তবে এবার ক্যারিবিয়দের তিন ফরম্যাটেই নাস্তানাবুদ করার দারুণ সুযোগ এসেছে বাংলাদেশের।

ক্রিকেটের সংক্ষিপ্ত সংস্করণে ক্যারিবীয়রা ভয়ঙ্কর প্রতিপক্ষ, সেটি সবার জানা। টি-টোয়েন্টির বর্তমান বিশ্ব চ্যাম্পিয়নও তারা। তবে ‌ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে গত টি-টোয়েন্টি সিরিজের সাফল্যই হতে পারে ক্যারিবীয়-বধে টাইগারদের অনুপ্রেরণা। ক্যারিবিয়দের বিপক্ষে এপর্যন্ত ৯টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলেছে বাংলাদেশ। যার মধ্যে ৪ ম্যাচে জয়ের বিপরীতে হারও সমান। একটি ম্যাচ হয়েছে পরিত্যক্ত। সহাবস্থানে থাকা দুটি দলের মধ্যে এগিয়ে যাওয়ার দ্বৈরথ কাল সোমবার। সিলেট আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে ম্যাচ শুরু দুপুর সাড়ে ১২টা থেকে। সিরিজের পরের দুই ম্যাচ মিরপুরে ২০ ও ২২ ডিসেম্বর।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :