সন্ধ্যা ৭:০৮, বৃহস্পতিবার, ১৫ই নভেম্বর, ২০১৮ ইং
/ আর্ন্তজাতিক / শিরোপায় টার্গেট অনুর্ধ্ব-১৫ দলের
শিরোপায় টার্গেট অনুর্ধ্ব-১৫ দলের
নভেম্বর ২, ২০১৮



নেপালে সাফ অনুর্ধ্ব-১৫ চ্যাম্পিয়নশীপের ফাইনাল আগাড়ীয়াল শনিবার। বাংলাদেশ সময় দুপুর ২.৪৫ মিনিটে আনফা কমপ্লেক্সে পাকিস্তানের মোকাবেলা করবে বাংলাদেশ।

২০১৫ সালে নিজেদের মাটিতে ভারতকে হারিয়ে টুর্নামেন্টের প্রথম শিরোপা জিতেছিলো বাংলাদেশের কিশোররা। সেবার অবশ্য সাফের এই আসরটি হয়েছিলো অনূর্ধ্ব-১৬ বছর বয়সীদের নিয়ে। ২০১৭ সালে থেকে এএফসি অনূর্ধ্ব-১৬ টুর্নামেন্টের সঙ্গে সঙ্গতি রাখার জন্য অনূর্ধ্ব-১৫ বয়সীদের নিয়ে টুর্নামেন্টটি হচ্ছে। পরের আসরেই শিরোপাটা ধরে রাখতে পারেনি বাংলাদেশ।

২০১৭ সালে নেপালের কাছে ৪-২ গোলের হারে সেমিফাইনাল উৎরে আর ফাইনালে পৌছা হয়নি বাংলাদেশের। ভুটানের সঙ্গে তৃতীয় স্থানের জন্য লড়াই করে তারা। তবে ঐ ম্যাচে ভুটানকে ৮-০ গোলের বিশাল ব্যবধানে হারিয়ে তৃতীয় হয়েছিলো লাল-সবুজরা। এবার সেই হারানো শিরোপা পুনরুদ্ধারের মিশন বাংলাদেশ দলের। টুর্নামেন্টের বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ভারতকে সেমিফাইনালেই বিদায় করে দিয়েছে বাংলার অদম্য কিশোররা। এখন শুধু ফাইনালে পাকিস্তান বধের পালা। সেই লক্ষ্যেই আজ খেলতে নামবে বাংলাদেশ দল।

সেমিফাইনালে ভারতকে হারিয়ে দিয়েও জয় উৎজাপন করেনি বাংলাদেশ দল। কারণ একটাই দলের সবার লক্ষ্য ফাইনাল জেতা। সেমিফাইনালে জয়ের নায়ক বলা যায় গোলরক্ষক মেহদীকে। কারণ সেমিফাইনালে টাইব্রেকারে অতন্ত্র প্রহরীর দায়িত্বপালন করে বাংলাদেশকে জিতিয়েছেন তিনি।

অধিনায়কের দায়িত্বও তার কাধে। ফাইনাল জিতে বাংলাদেশের পতাকা নেপালের মাটিতে উড়ানোর লক্ষ্য এই কিশোরের, ফাইনাল ম্যাচটার দিকেই আমাদের সব মনযোগ। এই ম্যাচটা জিততেই হবে আমাদের। ম্যাচ জিতলে বাংলাদেশের পতাকা বিদেশের মাটিতে উড়াতে পারবো। পাকিস্তান শক্ত প্রতিপক্ষ। সেটি আমাদের মাথায় আছে। যে কোন কিছুর বিনিময়ে ফাইনাল জিততে চাই। এতোদিন স্যাররা আমাদের যা শিখিয়েছেন সেটি যদি মাঠে প্রয়োগ করতে পারি ইনশাল্লাহ ম্যাচটা আমরা জিতবো।

বাংলাদেশ দলের কোচ মোস্তফা আনোয়ার পারভেজ বলেছেন, ম্যাচ বাই ম্যাচ খেলে ছেলেরা ফাইনালে এসেছে। সম্পূর্ণ কৃতিত্বই তাদের।আমরা তাদের যেভাবে বলেছি, যে কৌশল অবলম্বন করতে বলেছি তারা সেটিই করেছে। ফাইনালে শক্ত প্রতিপক্ষ পাকিস্তান। ফাইনালটাকে আমরা ফাইনালের মতো করেই খেলবো।

টুর্নামেন্টে বাংলাদেশ দল এ পর্যন্ত একটি ম্যাচও হারেনি। কোচ পারভেজ এই কৃতিত্বও দিয়েছেন ফুটবলারদের উপরই। ফাইনালের জন্য তার দল প্রস্তুত বলেও জানান বাংলাদেশ দলের কোচ,‘বিষয়টা খুবই আনন্দের যে আমরা এই পর্যন্ত একটি ম্যাচও হারিনি। ফুটবলাররা উজ্জীবিত আছে। ফাইনালে ফুটবলাররা তাদের শতভাগ দেয়ার জন্য প্রস্তুত আছে। এখন শুধু প্রয়োজন দেশবাসীর দোয়া।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :