সন্ধ্যা ৭:১৩, বৃহস্পতিবার, ১৫ই নভেম্বর, ২০১৮ ইং
/ ক্রিকেট / জয় পেতে ইতিহাস গড়তে হবে বাংলাদেশকে
জয় পেতে ইতিহাস গড়তে হবে বাংলাদেশকে
নভেম্বর ৫, ২০১৮



জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ঘরের মাঠ সিলেট আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত প্রথম টেস্টে মহাবিপাকে পড়েছে বাংলাদেশ। আজ সবেমাত্র ম্যাচের তৃতীয় দিন। কিন্তু এখনই জয়-পরাজয়ের হিসাব শুরু হয়ে গেছে। কারণ জিততে হলে বাংলাদেশকে করতে হবে ৩২১ রান। যা দেড়শ বছরের টেস্ট ইতিহাসে ঘটেছে মাত্র ২০ বার! আর ড্র করতে হলে খেলতে হবে আরও দুই দিন। কোনটা বেছে নেবে টাইগাররা?

যে কোনো দলের জন্যই চতুর্থ ইনিংসে ব্যাট করা ভীষণ কঠিন হয়ে দাঁড়ায়। শরীর আর উইকেট দুটোই ব্যাটসম্যানদের চরম পরীক্ষা নেয়। ক্লান্তি চেপে বসে শরীরে। সেই সঙ্গে আছে জয়ের জন্য টার্গেট চেজ করার মানসিক চাপ। প্রতিপক্ষ বেশিরভাগ ক্ষেত্রে জয় এবং ড্র দুটির সম্ভাবনা রেখেই নিজেদের ইনিংস শেষ করে। টেস্ট ক্রিকেটের ২ হাজার ৩২৩ তম ম্যাচে জিম্বাবুয়ে বাংলাদেশকে দিয়েছে ৩২১ রানের লক্ষ্য। দেড়শ বছরে ৩২১ কিংবা এর বেশি রান তাড়া করে জেতার নজির আছে ২০টি। উপমহাদেশে এর সংখ্যা মাত্র ৫টি!

আর টেস্ট ইতিহাসে ৩শর বেশি রান চেজ করে জয়ের রেকর্ড আছে মাত্র ৩০ টি। তাছাড়া বাংলাদেশ চতুর্থ ইনিংসে রান তাড়া করে জিতেছে মাত্র তিনবার। ২০১৭ সালে নিজেদের শততম টেস্টে বাংলাদেশ শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ১৯১ রান, ২০১৪ সালে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ১০১ রান তাড়া করে জিতেছিল। এছাড়া নিজেদের সর্বোচ্চ ২১৫ রান তাড়া করে ২০০৯ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে জিতেছিল বাংলাদেশ।

চতুর্থ ইনিংসে বাংলাদেশ তিন শ পেরিয়েছেই মাত্র তিনবার। তিনবারই বাংলাদেশ হেরেছে। এর মধ্যে ২০০৮ সালে মিরপুরে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে চতুর্থ ইনিংসে ৪১৩ রান করেছিল বাংলাদেশ। এটাই চতুর্থ ইনিংসে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ। টেস্টে চতুর্থ ইনিংসে চার শ কিংবা এর বেশি রান তাড়া করে জেতার রেকর্ড আছে মাত্র চারটি। সর্বোচ্চ রেকর্ডটি ওয়েস্ট ইন্ডিজের। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ৪১৭ রান তাড়া করে জিতেছিল এক সময়ের প্রবল পরাক্রমশালী দলটি।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :