রাত ৩:৩৮, বুধবার, ১৮ই ডিসেম্বর, ২০১৮ ইং
/ আর্ন্তজাতিক / চট্টগ্রামে জয় চায় বাংলাদেশ-উইন্ডিজ
চট্টগ্রামে জয় চায় বাংলাদেশ-উইন্ডিজ
নভেম্বর ২১, ২০১৮



স্পোর্টস রিপোর্টার

চ্যালেঞ্জিং হলেও ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজ জেতা সম্ভব বলে বিশ্বাস করেন বাংলাদেশের অধিনায়ক সাকিব আল হাসান। নিজেদের স্পিন শক্তি দিয়েই প্রতিপক্ষের ওপর চড়াও হতে চান তিনি। চট্টগ্রামে কাল থেকে শুরু হওয়া সিরিজের প্রথম টেস্ট ম্যাচকে সামনে রেখে একথা বলেন সাকিব। অন্যদিকে, বাংলাদেশের কন্ডিশন আর স্পিনিং উইকেট, দুটোকেই সামলে সিরিজ জযের প্রস্তুতি আছে বলে জানান ওয়েস্ট ইন্ডিজের অধিনায়ক ক্রেগ ব্রেথওয়েট।চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে আগামীকাল সকাল সাড়ে নয়টায় শুরু হবে ম্যাচটি।

সদ্য শেষ হওয়া জিম্বাবুয়ে সিরিজে টেস্ট সিরিজের ট্রফি জেতা হয়নি বাংলাদেশের। তবে দ্বিতীয় টেস্টের বিশাল জয় টাইগারদের মনোবল বাড়িয়েছে। সেই সাথে ইনজুরি কাটিয়ে নিয়মিত অধিনায়ক সাকিবের ফেরার কারণে ঘরের মাটিতে ওয়েস্ট ইন্ডিজরে বিপক্ষে সিরিজে বাংলাদেশ অনেকটা এগিয়ে থাকবে বলেই মনে করা হচ্ছে।

তবে সাকিব মানছেন জিম্বাবুয়ের চেয়ে নিঃসন্দেহে কঠিন প্রতিপক্ষ ক্যারিবীয়রা। তারপরও সিরিজ জেতার প্রত্যয় তার। তিনি বলেন, ‘হাত এখন পুরোপুরি ভালো। ইনজুরি থেকে ফিরে শুরুতে ওয়ানডে পেলে ভালো হতো। মাত্রই সুস্থ হয়ে পাঁচদিন খেলাটা কতটা চ্যালেঞ্জের হবে এটা আমরা সবাই জানি। এই কারণে এখনো একটু হলেও সন্দেহ আছে যে, ওই অবস্থানে আমি এখনো পৌঁছতে পেরেছি কি-না। কারণ আমি মাত্র চারটি সেশন ট্রেনিং করেছি। এর ভেতরে দুটি সেশন ছিল ঐচ্ছিক। দেখা যাক আমার খেলার ব্যাপারে শেষ পর্যন্ত আসলে অপেক্ষা করতে হবে।’

চট্টগ্রামের উইকেট বরাবরই স্পিনারদের সহায়তা করে। এবারও সেই স্পিন দিয়েই ব্রেথওয়েট, হোপ, পাওয়েলদের কাবু করার পরিকল্পনা বিশ্বসেরা অলরাউন্ডারের। ‘আমার মনে হয় কিউরেটররা ভিন্ন কিছু করার চেষ্টা করছেন। উইকেট নিয়ে আসলে খুব বেশি কথা বলার নেই। দুই দলের সমান সুযোগ থাকবে। আমার কাছে (এখন পর্যন্ত) মনে হচ্ছে উইকেটে বল ঘুরতে পারে। আসলে দেখে খুব একটা অনুমান করা যায় না। যত দিন যায় অনেক সময় উইকেট আস্তে আস্তে আরও ভালো হতে থাকে। আশা করি তেমন কিছু হবে না। ভালো একটা টেস্ট ম্যাচ খেলার জন্য যেমন উইকেট দরকার, তেমন উইকেটই হবে।’

তবে কম যায় না প্রতিপক্ষও। মাত্রই ভারতের মাটিতে সিরিজ খেলা সুবাদে উপমহাদেশের কন্ডিশনের সাথে ভালোই মানানো হয়েছে উল্লেখ করে ক্যারিবীয় অধিনায়ক বললেন, সাকিব-মিরাজদের নিয়ে প্রস্তুতি আছে তাদের। তিনি বলেন, ‘আমরা যে পিচে খেলেছিলাম, সেটা থেকে এবার অবশ্যই আলাদা হবে। তবে আমরা পেস বা স্পিন বোলিংয়ে যা করেছিলাম, সেটা এখানেও করতে হবে। যদিও আমরা অতীতের সিরিজ নিয়ে ভাবছি না। আমাদের নিজেদের পরিকল্পনামতো খেলতে হবে। সেটা হলে উপরে থাকতে পারব।’

বাংলাদেশের এই দলটি অনেক উন্নতি করেছে, মানতে দ্বিধা নেই ব্রেথওয়েটের। সিরিজটা তাই সহজ হবে না বলেই মত ক্যারিবীয় দলের ভারপ্রাপ্ত অধিনায়কের, ‘আমার মনে হয় এটা অন্যরকম হবে। আমরা আগেও এখানে কয়েকটি ম্যাচ জিতেছি, তবে এবারের দলটি আরও শক্তিশালী। বিশেষ করে বাংলাদেশের স্পিনাররা খুব ভালো করছে। আগের মতো হবে না, আরও চ্যালেঞ্জিং হবে। তাদের ব্যাটসম্যানরাও এখানে খুব ভয়ংকর। আমরা সেটা জানি। আমরা জানি কাজটা সহজ হবে না।’

২০০৯-এ একবার খর্বশক্তির ওয়েস্ট ইন্ডিজরে বিপক্ষে তাদের মাটিতে সিরিজ জিতলেও নিজেদের ঘরে ক্যারিবীয়দের বিপক্ষে এখন পর্যন্ত টেস্ট ম্যাচ জয়ের রেকর্ড নেই মুশফিক-সাকিবদের।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :