সকাল ১০:১৯, রবিবার, ১৬ই ডিসেম্বর, ২০১৮ ইং
/ ফুটবল / ইনজুরিও কাল বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ
বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ ফুটবল
ইনজুরিও কাল বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ
অক্টোবর ৪, ২০১৮



কবিরুল ইসলাম, সিলেট থেকে

এক ম্যাচ হাতে রেখেই বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপের সেমিফাইনালে পৌঁছে গেছে স্বাগতিক বাংলাদেশ। লাওসের বিদায়ে ‘বি’ গ্রুপ থেকে লাল-সবুজদের সঙ্গে শেষ চার নিশ্চিত ফিলিপাইনেরও। আজ গ্রুপ সেরার হওয়ার লড়াইয়ে শক্তিশালী ফিলিপাইনের মুখোমুখি হতে হচ্ছে জেমি ডে’র শিষ্যরা। সিলেট জেলা স্টেডিয়ামে সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় শুরু হতে যাওয়া গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হওয়ার এ লড়াইয়ের আগে অনেকটাই নির্ভার টিম বাংলাদেশ। কিন্তু তাদের জন্য অশনি সঙ্কেত নিয়ে এসেছে ‘ইনজুরি’। লাওসের বিরুদ্ধে উদ্বোধনী ম্যাচেই মাসল পুল করেছিল রক্ষণভাগের মূল ভরসা অভিজ্ঞ ওয়ালী ফয়সালের। প্লে-মেকার অধিনায়ক জামাল ভূঁইয়াও নেই স্বস্তিতে। ইনজুরি আক্রমন করেছে তাকেও। তাই ফিলিপাইনের বিরুদ্ধে গুরুত্বপূর্ণ এ ম্যাচে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ হিসেবে রয়েছে ‘ইনজুরি’ও।

সাফে নিজেদের ব্যর্থতার পর চলতি এ আসরের শেষ চার নিশ্চিত হওয়ায় দর্শকদের ‘কাঠগড়া’ থেকে কিছুটা হলেও মুক্তি মিলেছে ফুটবলারদের। এবার তাদের লক্ষ্য ফিলিপাইনকে হারিয়ে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হওয়া। তবে সে কাজটি যে অনেক কঠিন সেটা ভালো করেই জানেন অধিনায়ক জামাল ভূঁইয়া। দুই দল এর আগে দু’বার মুখোমুখি হয়েছিল। একটি করে জয় আছে উভয় দলের। তবে সবশেষ সাত বছর আগের ময়দানী লড়াইয়ে বাংলাদেশকে ৩-০ গোলে বিধ্বস্ত করেছিল ফিলিপাইন। এরপর বাংলাদেশের র‌্যাংকিংয়ে যতোটা অবনমন হয়েছে ফিলিপাইন ঠিক ততোটাই উন্নতি করেছে। র‌্যাংকিংয়ে ফিলিপাইন রয়েছে ১১৪ নম্বরে। আর বাংলাদেশ ১৯৩-তে। শক্তির বিচারেও যোজন-যোজন এগিয়ে দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার দলটি। সেই সঙ্গে যুক্ত হয়েছে ইনজুরি নামক ব্যধি।

ফিলিপাইনের বিরুদ্ধে ম্যাচকে সামনে রেখে সিলেট বিকেএসপি মাঠে সকালে ঘন্টা দেড়েক অনুশীলন করেছে টিম বাংলাদেশ। সেখানে নিজ শিষ্যদের রক্ষণভাগ সামলানোর উপর বেশী জোড় দিতে দেখা গেছে কোচ জেমি ডে’কে। অনুশীলন শেষে ব্রিটিশ এ কোচ বলেন, ‘ফিলিপাইনের প্রথম ম্যাচে আমি দেখেছি ওদের আক্রমণভাগ ভালো। কিছু ভালো ফরোয়ার্ড আছে এবং তারা আমাদের বিপক্ষে ভালো করার জন্য প্রস্তুত। তো অবশ্যই ম্যাচটা আমাদের ডিফেন্ডারদের জন্য কঠিন পরীক্ষা। দেখা যাক, ডিফেন্ডাররা পরিস্থিতি কিভাবে সামাল দেয়।’

ইনজুরির কারনে একাদশে বেশ পরিবর্তরন আনা হবে। রক্ষণভাগে ওয়ালী ফয়সালকে বিশ্রাম দেয়া হবে। তার সঙ্গে মাঠে বাইরে থাকতে পারেন বিশ্বনাথ ঘোষও। সেক্ষেত্রে তপু ও বাদশার সঙ্গে যোগ হতে পারেন রহমত মিয়া ও সুশান্ত ত্রিপুরা। আক্রমনভাগেও আসতে পারে কিছুটা পরিবর্তন। তবে সেটা রিজার্ভ বেঞ্চের ফুটবলারদের পরীক্ষা করে দেখার জন্য। নতুনদের সুযোগ দেয়াও বলা যেতে পারে। ইনজুরির কারনে ফিলিপাইনের বিরুদ্ধে মাঠে নামতে না পারলেও দলের ডিফেন্স নিয়ে আত্মবিশ্বাসী ওয়ালী ফয়সাল, ‘আমাদের কাছে আসলে প্রতিটি ম্যাচই একই রকম। সাফে আমরা কিছু ভুল করেছিলাম কিন্তু এবার আর কোনো ভুল করতে চাই না। প্রতিপক্ষ কে, সেটা আমাদের কাছে বিষয় নয়। আমাদের কাছে প্রতিটি ম্যাচই ফাইনাল। আমরা চাই সব পেরিয়ে ঢাকায় গিয়ে ফাইনাল খেলতে।’

হালকা ইনজুরিতে থাকা অধিনায়ক জামাল ভূঁইয়াকে মাঠে দেখা যেতে পারে। তবে কিছুটা নিচে নেমে খেলতে পারেন তিনি। অনুশীলন শেষে জামাল বলেন, ‘আজকের প্রস্তুতিতে রক্ষণ নিয়ে বাড়তি গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে। কেননা ওদের আক্রমণভাগ ভালো; শক্তিশালী। তবে ওদের রক্ষণ একটু দুর্বল মনে হয়েছে কিন্তু আমাদের রক্ষণও সামলে রাখতে হবে। সব মিলিয়ে ম্যাচটা কঠিন হবে।’

লাওসকে ৩-১ গোলে হারানো ফিলিপাইন অধিনায়ক বাহাদূরান বলেন, ‘আমরা প্রথম ম্যাচের আগে পর্যাপ্ত সময় পায়নি অনুশিলনের। তবে বাংলাদেশ ম্যাচে পুরোপুরি প্রস্তুত হয়েই নামবো। আমাদের লক্ষ্য থাকবে জয়ের দিকে। তবে বাংলাদেশ ভালো দল। প্রথম ম্যাচেই তারা সেটা প্রমান করেছে। সামনে এশিয়ান কাপ। দলের প্রত্যেকের লক্ষ্য এখন ওই টুর্নামেন্টে। এ কারনেই সবাই নিজের সেরা দেয়ার জন্য মুখিয়ে আছি।’



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :