বিকাল ৩:৪৯, সোমবার, ১৯শে নভেম্বর, ২০১৮ ইং
/ আর্ন্তজাতিক / প্রীতি ম্যাচে ব্রাজিলের জয়, ড্র আর্জেন্টিনার
প্রীতি ম্যাচে ব্রাজিলের জয়, ড্র আর্জেন্টিনার
সেপ্টেম্বর ১২, ২০১৮



আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচে ব্রাজিল বড় জয় পেলে‌ও ড্র করেছে আর্জেন্টিনা। একই দিনে ভিন্ন স্বাদ পেয়েছে ফুটবলের দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী দল। নেইমার-কুতিনহোরা ৫-০ গোলে এলসালভাদরকে পরাজিত করলে‌ও, কলম্বিয়ার সঙ্গে গোলশূন্য ড্র করেছে লিওনেল মেসিহীন আর্জেন্টিনা।

ব্রাজিলের হয়ে একটি গোল করেছেন বিশ্বের সবচেয়ে দামী খেলোয়াড় নেইমার। দলের হয়ে জোড়া গোল পেয়েছেন রিসারলিসন এবং একটি করে গোল করেন কুতিনহো ও মারকুইনহোস। দীর্ঘ অপেক্ষার পর এই ম্যাচেই অভিষেক হয় ২৯ বছর বয়সি নেতো’র।

শক্তির বিচারে এল সালভাদরের জন্য অবাক করা কিছুই ঘটেনি। দ্বিতীয় ম্যাচে টানা দ্বিতীয় পেনাল্টিতে গোল করে ব্রাজিলিয়ানদের গোলের মুখ চেনান নেইমার। ম্যাচের মাত্র চার মিনিটের সময় রিসারলিসন ডি-বক্সে ফেলে দেন এল সালভাদর ডিফেন্ডার ডমিনেজ। সঙ্গে পেনাল্টির বাঁশি বাজান রেফারি। স্পট কিকে সেলেসা‌ওদের এগিয়ে দেন নেইমার।

১২ মিনিট পর ব্যবধান দ্বিগুণ করেন রিসারলিসন। গোলবারের কাছে রিসারলিসনের একেবারে পায়ের কাছে বল দেন নেইমার। জাতীয় দলের হয়ে প্রথম গোলটি করতে ভুল করেনি তিনি। ৩০ মিনিটে নেইমারের পাস থেকেই ব্যবধান ৩-০ করেন ফিলিপে কুতিনহো।

প্রথমার্ধের মতো দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে থেকেও একের পর এক আক্রমণ করতে থাকে ব্রাজিল। ৫০ মিনিটে রিসারলিসন আর‌ও এক গোল করলে ৪-০ ব্যবধানে এগিয়ে যায় ব্রাজিল। তবে এতো গোল হজমের পর‌ও মাঝে মাঝে পাল্টা আক্রমণ করেছে এল সালভাদর। কিন্তু কাজের কাজ করতে পারেনি তারা। উল্টো ম্যাচের শেষ মিনিটে নেইমারের ক্রস থেকে বল পেয়ে স্কোরলাইন ৫-০ করেন মারকুইহোস।

অন্যদিকে, জিততে না পারলেও কলম্বিয়ার বিপক্ষে অপরাজিত থাকার রেকর্ডটা আরো বাড়িয়ে নিয়েছে আর্জেন্টিনা। ২০০৭ সালের পর আর্জেন্টাইদের বিরুদ্ধে কোনো ম্যাচ জিততে পারেনি কলম্বিয়ানরা।

মেসিকে ছাড়াই যে আর্জেন্টিনা অনেক ভালো দল সেটা গুয়েতেমালা ম্যাচে প্রমাণ পাওয়া গিয়েছিল। ওই ম্যাচে ৩-০তে জিতেছিল মার্টিনেজ-সেলেসোরা। গোল করতে না পারলেও এদিন দুর্দান্ত ফুটবল খেলেছে আর্জেন্টাইনরা। কলম্বিয়ানরাও অবশ্য কম যায়নি।

ম্যাচের শুরু থেকেই বিপজ্জনক মনে হচ্ছিল আর্জেন্টিনাকে। সাত মিনিটের সময় এগিয়ে যাওয়ারও সুযোগ পেয়েছিল তারা। কিন্তু এক্সকুয়েল পালাসিওর জোরালো শট ঠেকিয়ে দেন কলম্বিয়ান গোলকিপার ডেভিড আসপিয়া। এই ম্যাচের প্রথম একাদশে জায়গা পেয়েছিলেন মাওরো ইকার্দি। তার প্রচেষ্টা‌ও ব্যর্থ করে দেন আসপিয়া।

পাল্টা আক্রমণে ৩০ মিনিটের সময় এগিয়ে যাওয়ার সবচেয়ে সহজ সুযোগ পেয়েছিল কলম্বিয়া। কিন্তু সেই সুযোগ কাজে লাগাতে পারেননি রাদামেল ফ্যালকাও। প্রথমার্ধ গোলশূন্যভাবে শেষ হওয়ার পর দ্বিতীয়ার্ধেও কোনো দল গোর-বন্ধাত্ম ঘোচাতে পারেনি। তাতে গোল শূন্য অবস্থাতেই মাঠ ছাড়ে দুদল।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :