সকাল ১০:২৫, রবিবার, ১৬ই ডিসেম্বর, ২০১৮ ইং
/ এশিয়ান গেমস / পাকিস্তানের কাছে কাঙ্ক্ষিত পরাজয়
এশিয়ান গেমস ২০১৮
পাকিস্তানের কাছে কাঙ্ক্ষিত পরাজয়
আগস্ট ২৮, ২০১৮



ইন্দোনেশিয়া থেকে প্রতিনিধি

এশিয়ান গেমস হকিতে পাকিস্তানের অবস্থান খুবই শক্ত। র‌্যাংকিংয়ের দুই স্থানে দেশটি। বিশ্ব র‌্যাংকিংয়ে আছে ১৩ নম্বরে। অন্যদিকে, বাংলাদেশ এশিয়াতে সাত ও বিশ^ র‌্যাংকিংয়ে ৩৩ নম্বর স্থানে। শক্তির ফারাকটা যে কতোটা সেটা র‌্যাংকিংয়ের অবস্থান দিয়েই বুঝা যাচ্ছে। মাঠের লড়াইয়ে প্রতিবেশী এ দলটির বিরুদ্ধে কখনোই পেরে উঠেনি লাল-সবুজরা। সফলতা বলতে ১-০ গোলে হারা। সেটা ১৯৮৫ সালে এশিয়া কাপে। চলতি এশিয়ান গেমসেও টার্গেট ছিল পাকিস্তানের বিরুদ্ধে গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচে কম গোলে হারার। কিন্তু সেটা আর হয়নি। নিজেদের দূর্বল রক্ষণভাগের কারনে ৫-০ গোলের বড় লজ্জার হার নিয়েই গোবিনাথন কৃষ্ণমূর্তির শিষ্যদের ফিরতে হয়েছে ড্রেসিং রুমে।

এ ম্যাচে হারলেও পঞ্চম স্থান নির্ধারনী ম্যাচ নিশ্চিত করা জিমি-চয়নরা আগামি ১ সেপ্টেম্বর মুখোমুখি হবে জাপান-কোরিয়া ম্যাচে পরাজিত দলের।

পাকিস্তানের বিরুদ্ধে এমন হারের পরও সন্তুষ্ট কোচ গোপিনাথন কৃষ্ণমূর্তি, ‘ওরা (পাকিস্তান) বিশ্বমানের টিম। তাদের বিরুদ্ধে আমরা ভালো খেলেছি। কিন্তু কিছু কিছু জায়গায় মিস ছিল হতাশাজনক। প্রস্তুতি ম্যাচে এগুলো কাটিয়ে উঠার চেষ্টা ছিল আমাদের।’

আজ মঙ্গলবার সন্ধ্যায় জিবিকে হকি গ্রাউন্ডে শুরু হওয়া ম্যাচের প্রথম মিনিটেই গোল হজম করে বাংলাদেশ। রক্ষণভাগের ভুলের সুযোগ নিয়ে আতিক মোহাম্মদ দারুন এক ফ্লিকে নিশানা ভেদ করেন (১-০)। পিছিয়ে পড়া শিটুলবাহিনী ঘুড়ে দাঁড়ানোর কোন সুযোগই পায়নি। কিছু বুঝে উঠার আগেই আরো এক গোল হজম করতে হয় লাল-সবুজ জার্সীধারীদের। পেনাল্টি কর্ণার থেকে গোলটি করেন পাকিস্তানী ফরোয়ার্ড মোবাশসের আলী (২-০)।

প্রথম কোয়ার্টারে ২-০ গোলে এগিয়ে থাকা পাকিস্তানীরা যেনো গোলের ক্ষুধায় উন্মত্ত্ব ছিল। দ্বিতীয় কোয়ার্টারে মাঠে নামার দশ মিনিটের মধ্যে গোলের গ্রাফটা আরো একধাঁপ উপরে নিয়ে যান মোবাশসের আলী (৩-০)। টানা দুই গোল করা এ স্কোরারের সামনে ছিল হ্যাটট্রিকের সুযোগ। কিন্তু সেটা আর কাজে লাগাতে পারেননি তিনি।

দ্বিতীয়ার্ধে মাঠে নেমে পাকিস্তান আরো চেপে ধরেছিল লাল-সবুজদের। এ অর্ধের দুই কোয়ার্টারে আরো দুই গোল আদায় করে নেয় এশিয়ার দুই নম্বর দলটি। তৃতীয় কোয়ার্টারের ৬ মিনিটেই স্কোর লাইন ৪-০তে নিয়ে যান আলী শান। আর ম্যাচ শেষ হওয়ার ১১ মিনিট আগে বাংলাদেশের কফিনে শেষ পেরেকটি ঠুঁকে দেন আতিক (৫-০)। তবে শেষ কোয়ার্টারে একটি পিসি পেলেও সেটা কাজে লাগাতে পারেনি গোপিনাথন কৃষ্ণমূর্তির শিষ্যরা।

দলীয় অধিনায়ক ফরহাদ আহম্মেদ শিটুল, ‘আমাদের লক্ষ পঞ্চম স্থান। পাকিস্তানের বিরুদ্ধে এরচেয়ে ভালো খেললেও আমরা গ্রুপে তৃতীয়ই থাকতাম। এখন লক্ষ্য স্থাণ নির্ধারনী ম্যাচে ভালো খেলে পঞ্চম স্থান নিশ্চিত করা।’

রাসেল মাহমুদ জিমিও তৃপ্তির ঢেঁকুর তুলেন, ‘আমরা ভালো খেলেছি। যেখানে সাত আট গোল খাওয়ার কথা, সেখানে পাঁচ গোল খেয়েছি। প্রথম গোলটা ছিল অপ্রত্যাশীত।’

এই পরাজয়ে আগামী ১ সেপ্টেম্বর জাপান ও কোরিয়ার মধ্যকার ম্যাচের পরাজিত দলের বিপক্ষে পঞ্চমস্থানের জন্য লড়বে বাংলাদেশ।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :