রাত ৪:১৪, বুধবার, ২০শে নভেম্বর, ২০১৮ ইং
/ ফিফা ওয়াল্ড কাপ ২০১৮ / রাশিয়া বিশ্বকাপ: শেষ বাঁশির অপেক্ষা
রাশিয়া বিশ্বকাপ: শেষ বাঁশির অপেক্ষা
জুলাই ১২, ২০১৮



ফারদিন আল সাজু

রাশিয়া বিশ্বকাপে এখন শেষ বাঁশি বাজার অপেক্ষায়। ইত্যেমধ্যেই ৬৪ ম্যাচে মধ্যে ৬২ টিই শেষ হয়েছে। বাকী মাত্র দু'টি ম্যাচ। ১৪ জুলাই তৃতীয়স্থান নির্ধারণী ম্যাচে মুখোমখি হবে বেলজিয়াম ও ইংল্যান্ড। অার ১৫ জুলাই ফাইনালে মুখোমুখি হবে ফ্রান্স ও ক্রোয়েশিয়া।

চরম নাটকীয়তায় ভরা রাশিয়া বিশ্বকাপে চারবারে চ্যাম্পিয়ন ইটালী খেলার সুযোগই পায়নি। অপয়া ভেন্যু কাজানের শেষ তিন ম্যাচে জায়ান্ট জার্মানি, আর্জেন্টিনা ‌ও ব্রাজিলের বিদায়। স্পেন-পর্তুগালও বেশী দূর যেতে পারানি। এ যেনো একরাশ হতশা আর বেদনায় মোড়ানো। মেসি, রোনালদো, নেইমাররা বিশ্বের সেরা সেরা ফুটবলার হলেও এবারে বিশ্বকাপে নামের সুবিচার করতে পারেনি, দলের প্রয়োজনে সুযোগ্য সারথি‌ও হ‌ওয়া হয়নি তাদের।

এমন এক ঘটন-অঘটনের বিশ্বকাপে এবার বেলজিয়াম, ক্রোয়েশিয়ার বুঝিয়ে দিয়েছে নামে নয়, গুনে পরিচয়। ভালো খেললে বড় বড় দলগুলোকে‌ও টপকে যা‌ওয়া যায়।

সর্বোচ্চ গোলদাতা

রাশিয়া বিশ্বকাপে সর্বোচ্চ গোলদাতার তালিকা আছেন ইংল্যান্ডের অধিনায়ক হ্যারি কেইন। তিনি ৫ ম্যাচে গোল করেছেন ৬ টি। যার মধ্যে আছে একটি হ্যাটট্রিক‌ও। অপরদিকে তার থেকে দুই গোল পিছিয়ে আছেন বেলজিয়ামের স্ট্রাইকার রোমেলু লুকাকু ও পর্তুগিজ মহাতারকা ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। তাদের গোলের সংখ্যা ৪ টি করে। তবে দল হিসাবে সর্বোচ্চ প্রতিপক্ষের জালে গোল দিয়েছে বেলজিয়াম। তাদের গোল সংখ্যা ছিলো ১৪টি।

পেনাল্টি গোল

এবারের রাশিয়া বিশ্বকাপে ইংল্যান্ড সর্বোচ্চ তিনটি পেনাল্টি গোল করেছে। অন্যদিকে অস্ট্রেলিয়া, ফ্রান্স ‌ও সুইডেন পেনাল্টি থেকে গোল করেছে দু'টি।

হলুদ কার্ড

এবারে আসরে মোট হলুদ কার্ডের সংখ্যা ছিলো ১৯৬ টি। যার মধ্যে সর্বোচ্চ ১৪ টি পেয়েছে ক্রোয়েশিয়ান খেলায়াড়রা। অপরদিকে আর্জেন্টিনা ও পানামা দলের খেলোয়াড়রা পেয়েছে মোট ১১টি করে হলুদ কার্ড।

লাল কার্ড

এবারে আসরে লাল কার্ড পেয়েছে মোট চার জন। জার্মানির (জেরোম বোয়েটেং), কলম্বিয়ার (কার্লোস সানচেজ), রাশিয়ার (ইগর স্মোলনিকভ) ‌ও সুইজারল্যান্ডের (মাইকেল ল্যাং)।

গোল সেভ

এবারে বিশ্বকাপে মোট গোল সেভ হয়েছে ৩২০ টি। তার মধ্যে সবচেয়ে এগিয়ে মেক্সিকোর গোলরক্ষক মাইকেল ‌ওচোয়া। তিনি মোট গোল থামিয়েছেন ২৫টি। এর পরেই আছেন বেলজিয়ামের গোলরাক্ষক থিবাউ কোয়ার্তেইস। তিনি গোল থামিয়েছেন ২২টি।

ফাউল

এবারে আসরে মোট ফাউল হয়েছে ৭১৯ টি।সবেচেয় বেশি ফাউল করেছন ক্রোয়েশিয়ার অ্যান রেবিচ। তার ফাউলের সংখ্যা ছিলো ১৯টি।

সবচেয় বেশি সময় মাঠে

বল পায়ে সবচেয় বেশি সময় মাঠে ছিলেন ক্রোয়েশিয়ার খেলোয়াড় লুকা মাড্রিচ। তিনি বল পায়ে মাঠে থেকেছেন ৬০৪ মিনিট। এরপরেই ৬০০ মিনিট মাঠে ছিলো ইল্যান্ডের জর্ডান পিকফোর্ড।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :