বিকাল ৩:৫০, সোমবার, ১৯শে নভেম্বর, ২০১৮ ইং
/ ফিফা ওয়াল্ড কাপ ২০১৮ / বিশ্বকাপের ফাইনালে আছে জার্মানি ‌ও ইটালি!
বিশ্বকাপের ফাইনালে আছে জার্মানি ‌ও ইটালি!
জুলাই ১৩, ২০১৮



ফারদিন আল সাজু

না থেকে‌ও বিশ্বকাপের ফাইনালে আছে জার্মানি ‌ও ইটালি। ইটালি এবারের বিশ্বকাপের বাছাইপর্বেই আটকে যায়। চূড়ান্ত পর্বে উঠতেই পারেনি তারা। আর জার্মানি কবেই তারা বিদায় নিয়েছে, প্রথম রাউন্ডেই ছিটকে পড়েছে জার্মান পা‌ওয়ার হাউজ। তবে আর ফাইনালে থাকার উপায় কি? আছে।

এই ঘটনা ঘটে আসছে ১৯৮২ সাল থেকে। সেটি হলো, জার্মানির বায়ার্ন মিউনিখ আর ইটালির ইন্টার মিলানের খেলোয়াড় ছাড়া যেনো বিশ্বকাপের ফাইনালই হয়না। এটা যেনো প্রায় আইনে পরিণত হয়েছে। এবার যেমন আছেন ফ্রান্সে আছেন বায়ার্ন মিউনিখের মিডফিল্ডার কোরেন্তিন তোলিসো। আর ক্রোয়েশিয়ায় আছেন ইন্টার মিলানের ইভান পেরিসিচ ‌ও মার্শেলো ব্রজোভিক।

অবশ্য চলতি বিশ্বকাপের শুরুতে জার্মান দলে সাতজন বায়ার্ন মিউনিখের ফুটবলার ছিলেন। সে যাই হোক, ১৯৮২, ১৯৮৬, ১৯৯০, ২০০২ ‌ও ২০১৪ সালে জার্মানি বিশ্বকাপের ফাইনালে উঠেছিল। সে সময়ে অন্তত: তিনজন বায়ার্নের খেলোয়াড় ছিলেন জার্মান দলে।

দুই দলের খেলোয়াড় তালিকা

১৯৮২ সাল (ইটালি-জার্মানি): ব্রেইনটার, ড্রিমলার, রুমানিগে (বায়ার্ন); বের্ডন, বার্গুমি, ম্যারিনি, ‌ওরিয়ালি, আলতোবেলি (ইন্টার)।

১৯৮৬ সাল (আর্জেন্টিনা-জার্মানি): আজেন্থালার, এডার, হোয়েনেস, ম্যাথুজ (বায়ার্ন); রুমানিগে (ইন্টার)।

১৯৯০ সাল (জার্মানি-আর্জেন্টিনা): আউমান, রেউটার, কোলার, আজেন্থালার, ফাগলার, থন (বায়ার্ন); ব্রেমা, ম্যাথুজ, ক্লিন্সম্যান (ইন্টার)।

১৯৯৪ সাল (ব্রাজিল-ইটালি): জোয়ারহিনহো (বায়ার্ন); বের্তি (ইন্টার)।

১৯৯৮ সাল (ফ্রান্স-ব্রাজিল): লিজারাজু (বায়ার্ন); জুরকায়েফ, রোনাল্ডো (ইন্টার)।

২০০২ সাল (ব্রাজিল-জার্মানি): কান, লিঙ্ক, জার্মেই, জ্যাঙ্কার (বায়ার্ন); রোনাল্ডো (ইন্টার)।

২০০৬ সাল (ইটালি-ফ্রান্স): স্যাগনল (বায়ার্ন); মাতারাজ্জি (ইন্টার)।

২০১০ সাল (স্পেন-নেদারল্যান্ডস): ভ্যান বুমেল, রুবেন (বায়ার্ন); স্নাইডর (ইন্টার)।

২০১৪ সাল (জার্মানি-আর্জেন্টিনা): ন্যুয়ার, লাম, বোয়েটাং, শোয়ানস্টেইগার, মুলার, ক্রস, গোত্জে (বায়ার্ন); ক্যাম্পাগনারো, আলভারেজ, প্যালাসি‌ও (ইন্টার)।

২০১৮ সাল (ফ্রান্স-ক্রোয়েশিয়া): তোলিসো (বায়ার্ন); পেরিসিচ, ব্রজোভিক (ইন্টার)।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :