সকাল ৮:১৫, শুক্রবার, ১৭ই আগস্ট, ২০১৮ ইং
/ ফিফা ওয়াল্ড কাপ ২০১৮ / ফ্রান্স-ক্রোয়েশিয়ার শিরোপা লড়াই
ফ্রান্স-ক্রোয়েশিয়ার শিরোপা লড়াই
জুলাই ১৩, ২০১৮



রাশিয়া বিশ্বকাপের ফাইনালে রবিবার রাতে মুখোমুখি হবে ফ্রান্স ‌ও ক্রোয়েশিয়া। তবে বিশ্বকাপের শুরুতে এমন সম্ভাবনা কেউই দেখেন নি। ফ্রান্সের ক্ষেত্রে তবু প্রত্যাশা ছিল। অন্যতম ফেভারিট হিসেবেই ভাবা হচ্ছিলো গ্রিজম্যান-এমবাপে-পগবাদের। সেই তুলনায় ক্রোয়েশিয়ার ফাইনালে ওঠাটা অবাক করা বিষয়। কেউই ভাবতে পারেননি মড্রিচ-রাকিটিচরা যে বিশ্বকাপের ফাইনালে উঠবেন। সেই অভাবিত ঘটনা ঘটিয়েই এবার প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপের ফাইনাল খেলবে ক্রোয়েশিয়া।

ফ্রান্সের অবশ্য বিশ্বকাপ জেতার ইতিহাস রয়েছে। আজ থেকে বিশ বছর আগে ব্রাজিলকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল তারা। এবার জিতলে দ্বিতীয়বার শিরোপা জিতবে ফরাসিরা। এদিকে, শিরোপা লড়াইয়ের আগেই রেকর্ডের খাতায় নাম লিখিয়েছে ক্রোয়েশিয়া। তাদের ফুটবল ইতিহাসে এবারের প্রথম ফাইনালে ওঠা। নতুন ইতিহাস লিখেই ফেলেছে তারা। চ্যাম্পিয়ন হতে পারলে তা রূপকথার মতোই লাগবে।

দুই দলেই রয়েছেন একঝাঁক প্রতিভাবান ফুটবলার। ফ্রান্সে যেমন পল পগবা-এন’গোলো কান্তে-মাতুইদিরা রয়েছেন মাঝমাঠে বল দখলের লড়াইয়ে। ক্রোয়েশিয়ার তেমনই আছেন লুকা মড্রিচ-ইভান রাকিতিচরা। ফ্রান্স সামনে রাখছে জিরুদ, ক্রোয়েশিয়া মাঞ্জুকিচকে। ফ্রান্স অবশ্য গোলের জন্য কোনও একজনের ওপর নির্ভর করছে না। রক্ষণের ফুটবলাররাও গোল করে যাচ্ছেন সমানে। দুই দলের গোলরক্ষকই নির্ভরযোগ্য। ফ্রান্সের লরিস, ক্রোয়েশিয়ার সুবাসিচ।

ফ্রান্স শুরুতে তেমন নজর কাড়েনি। ধীরে ধীরে খোলস ছেড়ে বেরিয়েছে তারা। ক্রমশ ছন্দোবদ্ধ ফুটবল খেলছে তারা। অন্যদিকে, ক্রোয়েশিয়া গ্রুপের সব ম্যাচ জিতেছিল। কিন্তু, তারপর এগিয়েছে হোঁচট খেতে খেতে। দু’বার ম্যাচ জিতেছে তারা পেনাল্টি শ্যুটআউটে। আর তাদের সেমিফাইনালে জয় এসেছে অতিরিক্ত সময়ে।

পরিসংখ্যান জানায়, এই দুই দলের মোট পাঁচ দেখায় তিনবার জিতেছে ফ্রান্স; দু’বার ক্রোয়েশিয়া। অবশ্য বিশ্বকাপে একবারের দেখায় জয়ী ফ্রান্সই। তবে ক্রোয়েশিয়ার সুযোগ থাকছে এই পরিসংখ্যানে সমতা ফেরানোর। অপেক্ষা শুধু রবিবার রাতের।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :