রাত ১১:০৩, রবিবার, ২১শে অক্টোবর, ২০১৮ ইং
/ আর্ন্তজাতিক / সেমিতে লিভারপুল ‌ও রোমা
উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ
সেমিতে লিভারপুল ‌ও রোমা
এপ্রিল ১১, ২০১৮



খাদের কিনারা থেকে ফিরে আসার অসাধারণ আখ্যান তৈরি করলো রোমা। তিন গোলের ব্যবধান ঘুচিয়ে উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগের সেমিফাইনালে উঠলো ইতালিয়ান ক্লাবটি। প্রথম লেগে ৪-১ গোলে হারলেও দ্বিতীয় লেগে স্প্যানিশ জায়ান্ট বার্সেলোনাকে ৩-০ গোলে হারিয়ে অ্যাওয়ে গোলের সুবিধা নিয়ে শেষ চারে জায়গা করে নেয় রোমা। আরেক কোয়ার্টারে দুই ইংলিশ ক্লাবের লড়াইয়ে, ম্যানচেস্টার সিটির বিপক্ষে লিভারপুল জিতেছে ২-১ গোলে।

ইতিহাস বোধ হয় এভাবেই লিখতে হয়। নিজেরা উড়তে চাইলে, গুড়িয়ে দিতে হয় অন্য দলকে। রোমা ঠিক সেই কাজটিই করলো নিজেদের মাটিতে। স্প্যানিশ সংবাদপত্র ‘মার্কা’র হেডলাইনটা তাই যথার্থই। তারা লিখেছে ‘পতন ঘটলো বার্সা সাম্রাজ্যের’।

কিন্ত প্রথম লেগে ৪-১ গোলে এগিয়ে থাকা দলটি এভাবে ভেঙ্গে পড়বে কে ভেবেছিলো? বার্সার সেমিফাইনাল নিশ্চিত ভেবে যেসব সমর্থকরা নিশ্চিন্তে ঘুমিয়ে পড়েছিলেন, স্কোরলাইনে চোখ বুলিয়ে তারা একবার হলেও বলবেন, ‘অবিশ্বাস্য’।

আগের মৌসুমেই পিএসজির বিপক্ষে ৬-১ গোলে জিতে ইতিহাস গড়া বার্সেলোনা এবার নিজেরাই সে নির্মম বাস্তবতার শিকার হলো। আর সেই অসাধ্য সাধন করলেন এডিন জেকো, ডি রসসি এবং কস্তাস ম্যানোলাস।

স্প্যানিশ লিগে টানা ৩৮ ম্যাচে যে দলটি অপরাজিত, তাদেরই এমন হতাশায় ফেলে, ৩৪ বছর পর ইউরোপিয়ান ক্লাব শ্রেষ্ঠত্বের শেষ চারে রোমা। স্তাদিও অলিম্পিকোতে সেই উপলক্ষ্যে একদিকে তাই আনন্দঅশ্রু। আর অন্যদিকে, ভেঙ্গে পড়া বার্সা ফুটবলাররা।

ইতিহাদ স্টেডিয়ামে, কোয়ার্টার ফাইনালের আরেক ম্যাচে অতটা বেগ পেতে হয়নি লিভারপুলকে। যদিও ম্যাচের মাত্র দ্বিতীয় মিনিটেই গ্যাব্রিয়েল জেসুস সিটিজেনদের এগিয়ে নিয়ে আশা জাগিয়েছিলেন।

তবে ইউরোপিয়ান শ্রেষ্ঠ ফুটবলারের দৌড়ে এগিয়ে থাকা মোহাম্মদ সালাহ আর ফারমিনহো দু’গোল করে পেপ গার্দিওলার সে আশায় জল ঢেলে দেন। আর তাতে দুই লেগ মিলিয়ে ৫-১ গোলে জিতে দশ বছর পর চ্যাম্পিয়নস লিগের সেমিতে লিভারপুল।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :