সকাল ৬:১৭, বৃহস্পতিবার, ১৬ই আগস্ট, ২০১৮ ইং
/ আর্ন্তজাতিক / ফাইনালের পথে রিয়াল মাদ্রিদ
উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ
ফাইনালের পথে রিয়াল মাদ্রিদ
এপ্রিল ২৬, ২০১৮



পিছিয়ে পড়েও বায়ার্ন মিউনিখকে ২-১ গোলে হারিয়ে উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালে ওঠার লড়াইয়ে এগিয়ে গেলো রিয়াল মাদ্রিদ। সেমিফাইনালের প্রথম লেগে ২৮ মিনিটেই পিছিয়ে পড়েছিলো টানা দুইবারের চ্যাম্পিয়নরা। তবে মার্সেলো আর অ্যাসানসিওর গোলে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে তারা।

গেলো মৌসুমের কোয়ার্টার ফাইনাল আর ২০১৪-র সেমিফাইনালে হারের প্রতিশোধ নিতে মাঠে নামবে বায়ার্ন মিউনিখÑএমনটাই ভেবেছিলেন ফুটবল বোদ্ধারা। মাঠেও পাওয়া গেলো তেমনি আঁচ। প্রথম মিনিট থেকেই আক্রমণাত্মক মেজাজে জার্মানরা।

কিন্তু ৮ মিনিটেই গ্রোয়িন ইনজুরিতে আরিয়েন রোবেনকে হারিয়ে কিছুটা হোঁচট তাদের। তারপরও আক্রমণে দুর্দান্ত জার্মান জায়ান্টরা। প্রথম কুড়ি মিনিট যেনো মাঠে খুঁজেই পাওয়া যায়নি রিয়ালকে। ২৮ মিনিটেই জোশুয়া কিমিচের গোলে লিডও নেয় বায়ার্ন।
রিবেরি, লেভান্ডস্কিরা ভুল না করলে, প্রথমার্ধেই তিন গোলে এগিয়ে যেতে পারতো বায়ার্ন মিউনিখ।

গ্যালারিতে বহু তারকার মাঝে উপস্থিত ছিলেন জোয়াকিম লো-ও। বিশ্বকাপের মাত্র দু’মাস আগে নিজের খেলোয়াড়রা কে কতটা পানিতে, বুঝে নিতেই যেনো এসেছিলেন জার্মান কোচ। কিন্তু তার কপালে ভাঁজ ফেলে ৩৪ মিনিটেই হ্যামস্ট্রিং ইনজুরিতে পড়ে মাঠ ছাড়তে হলো জেরোম বোয়েটেংকে।

ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো আর ইসকোকে সতর্কভাবে মার্কে রেখেই খেলছিলো বায়ার্ন। কিন্তু রিয়াল যে রোনালদো নির্ভর নয়, তা প্রমাণেই যেনো বিরতির ঠিক আগ মুহূর্তে আচমকা গোলে সমতা ফেরালেন ব্রাজিলিয়ান ডিফেন্ডার মার্সেলো।
অ্যাওয়ে গোলটাই রিয়ালের ফাইনালে যাওয়ার নিয়ামক হবে কিনা এই নিয়ে যখন আলোচনায় ব্যস্ত ধারাভাষ্যকাররা, বিরতির পর ইসকোর পরিবর্তে আরেক স্প্যানিশ তরুণ তুর্কি মার্কো অ্যাসানসিওকে মাঠে নামান রিয়াল কোচ জিনেদিন জিদান। আস্থার প্রতিদান দিতে বেশি দেরি করেন নি এরই মধ্যে ‘সুপার সাব’ উপাধি পেয়ে যাওয়া অ্যাসানসিও। ৫৭ মিনিটেই আসে জয়সূচক গোল।

৬৭ মিনিটে আক্রমণের ধার আরও বাড়াতে কারভাহালের পরিবর্তে বেনজেমাকে মাঠে নামান জিদান। ৩ মিনিট পর ব্যবধান বাড়িয়েও ছিলেন রোনালদো। কিন্তু হ্যান্ডবলের কারণে বাতিল হয়ে যায় তা।
তার পরও আগামী মঙ্গলবার রিয়ালের মাঠ সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে ফিরতি লেগের ম্যাচের আগেই টানা তিন শিরোপার অনন্য নজির গড়ার পথে এক পা দিয়ে রাখলো লা ব্লাঙ্কোরা।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :