সকাল ৮:২৩, মঙ্গলবার, ২২শে মে, ২০১৮ ইং
/ হকি / আবাহনীই চ্যাম্পিয়ন
খাজা রহমতউল্ল্যাহ ক্লাব কাপ হকি
আবাহনীই চ্যাম্পিয়ন
এপ্রিল ২৩, ২০১৮

‘খাজা রহমতউল্ল্যাহ ক্লাব কাপ’ হকির শিরোপা অক্ষুন্ন রেখেছে ঢাকা আবাহনী। রোববার ঘটনাবহুল ফাইনালে লিগ চ্যাম্পিয়ন মেরিনার ইয়াংসকে ১-০ গোলে পরাস্ত করেছে আকাশী-হলুদ শিবির। এ নিয়ে সর্বোচ্চ চতুর্থবারের মতো ক্লাব কাপ হকির শিরোপা জয়ের স্বাদ পেলে ধানমন্ডির এই দলটি। তাতে মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব ‌ও ঊষা ক্রীড়া চক্রের সমান চারবার ট্রফি জয়ের রেকর্ডে ভাগ বসালো মাহবুব হারুনের দল। আবাহনীর হয়ে জয়সূচক একমাত্র গোলটি করেন সোহানুর রহমান সবুজ।

খেলা শুরুর কথা ছিল সন্ধ্যা ছ’টায়। কিন্তু কালবৈশাখী ঝড়ের কারণে মাঠে পানি জমে যায়। ফলে একঘন্টা পর খেলা শুরু হয়। মৌসুমের প্রথম ক্লাব কাপ শিরোপাসহ লিগ চ্যাম্পিয়ন হওয়ার লক্ষ্য নিয়েই এবার বেশ জাকজমকভাবে দল গঠন করেছিল মেরিনার ইয়াংস। জাতীয় দলের দশজন তারকা খেলোয়াড়কে দলে ভিড়িয়ে ক্রীড়াঙ্গনে বেশ আলোচনার জন্ম দিয়েছিল আরামবাগ ক্লাবপাড়ার দলটি। ক্লাব কাপের শুরুটাও করেছিল তারা দারুণভাবে। অপরাজিত থেকেই ফাইনালে উঠে আসে মামুনুর রহমান চয়নের দল। কিন্তু শিরোপা নির্ধারনী ম্যাচে শুরুর সেই মেরিনারকে খুঁজেই পাওয়া যায়নি। আবাহনীর আক্রমণের সামনে দাঁড়াতেই পারেনি। বৃষ্টি বিঘ্নিত ম্যাচের শুরুতেই একটি আক্রমন রচনা করেছিল মেরিনার। বাকী সময়টা আর আবাহনীর সীমানায় হানা দিতে পারেনি। বরং পুরো ম্যাচেই আধিপাত্য ছিল মাহবুব হারুনের শিষ্যদের।

ম্যাচের ১৭ মিনিটেই আবাহনী কৃষ্ণ কুমারের ষ্টিক থেকে গোলের মুখ দেখেছিল। আম্পায়ার সেলিম লাকি গোলের সিগন্যালও দিয়েছিলেন। কিন্তু মেরিনারের দাবীর মুখে সেই গোল বাতিল করতে হয় আম্পায়ারকে। কারণ বলটি মেরিনারের এক খেলোয়াড়ের ষ্টিকে লেগে জাল স্পর্শ করেছিল। তখন খেলা বন্ধ ছিল দুই মিনিট। ম্যাচের ২৪ মিনিটে আবারো আকাশী-হলুদ শিবিরের একটি গোল বাতিলকে কেন্দ্র করে খেলা চার মিনিট বন্ধ থাকে। আবাহনীর গোলরক্ষক আবু সাঈদ নিপ্পন একবার তেড়েও গিয়েছিলেন আম্পায়ার শাহবাজের দিকে। তবে অধিনায়ক রোমান সরকারের হস্তক্ষেপে ঘটনা বেশী দূর গড়ায়নি।

প্রথমার্ধে গোল খরায় থাকা আবাহনী দ্বিতীয়ার্ধে মাঠে নেমেই গোলের দেখা পায়। ম্যাচের ৪০ মিনিটে গোলটি আসে সোহানুর রহমান সবুজের ষ্টিক থেকে। পেনাল্টি কর্ণার থেকে গোল করেন এই ফরোয়ার্ড (১-০)। সঙ্গে সঙ্গেই আবাহনী শিবিরে নেমে আসে আনন্দের বন্যা। গ্যালারীতে থাকা শ’পাঁচেক সমর্থক মেতে উঠে উৎসবে।

এরপর আবাহনী আরো তিনটি পেনাল্টি কর্ণার পেয়েছিল। কিন্তু সবুজ-মেহেদীরা তা কাজে লাগাতে ব্যর্থ হন। ম্যাচের শেষ পাঁচ মিনিট মেরিনার বেশ আক্রমণাত্মক হয়ে উঠেছিল। একটি পেনাল্টি কর্ণার পেলেও আবাহনীর রক্ষণভাগে ফাঁটল ধরাতে পারেনি তারা।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :