সকাল ৬:১৯, বৃহস্পতিবার, ১৬ই আগস্ট, ২০১৮ ইং
/ ফুটবল / আবাহনী-রেডিয়েন্ট ম্যাচ কাল
এএফসি কাপ ফুটবল
আবাহনী-রেডিয়েন্ট ম্যাচ কাল
মার্চ ৬, ২০১৮



সম্প্রতি ঘরোয়া ফুটবলে আবাহনীর শ্রেষ্ঠত্ব অনেক। আন্তর্জাতিক অঙ্গনে অবশ্য আশাব্যাঞ্জক কিছু নেই। এএফসি প্রেসিডেন্টস কাপ ও এএফসি কাপ কোনো ফরম্যাটেই পরবর্তী রাউন্ড যেতে পারেনি দেশের ঐতিহ্যবাহী ক্লাবটি। অন্যান্যবারের চেয়ে এবার এএফসি কাপ নিয়ে আবাহনী একটু বেশি সচেতন। ভালো বিদেশি আনার চেষ্টা করেছে। দ্রাগো মামিচ চলে যাওয়ার পর ঘরোয়া লীগ ভারপ্রাপ্ত কোচ দিয়ে চালালেও এএফসি কাপের জন্য দেশের ফুটবলের অন্যতম সেরা কোচ সাইফুল বারী টিটুকে নিয়োগ দিয়েছে।

আবাহনীর অধিনায়ক মামুন মিয়া বলেন, ‘গত কয়েক বার চেষ্টা করে পারিনি এবার আমাদের লক্ষ্য পরবর্তী রাউন্ডে খেলা। মূল পর্বে খেলার জন্য আমরা প্রস্তুত।’ মালদ্বীপের ক্লাব নিউ রেডিয়েন্টের কোচ ওস্কার অবশ্য মূল পর্বে ভারতের ক্লাবকে এগিয়ে রাখলেন, ‘ভারতের ব্যাঙ্গালুরুর যে পরিমাণ বাজেট ও বিনিয়োগ। যা গ্রুপের অন্য তিন দলেরও নেই। স্বাভাবিকভাবেই তারা এগিয়ে।’ আবাহনীর কোচ সাইফুল বারী টিটু বলেন, ‘ব্যাঙ্গালুরুর এই টুর্নামেন্টে ফাইনাল খেলেছে। অবশ্যই তারা ভালো দল। তবে আমাদেরও সামর্থ্য যোগ্যতা আছে পরবর্তী রাউন্ডে খেলার।’ গ্রুপে চার দলের মধ্যে শুধু শীর্ষ দলই পরের রাউন্ডে খেলবে।

ই গ্রুপে আজ প্রথম ম্যাচে আবাহনীর প্রতিপক্ষ মালদ্বীপের নিউ রেডিয়েন্ট। মালদ্বীপের জাতীয় ও ক্লাব দলকে এক সময় বাংলাদেশ জাতীয় দল ও ক্লাব দল খুব সহজেই হারিয়েছে। সাম্প্রতিক সময়ে অবশ্য ভিন্ন চিত্র। কোচ টিটু বর্তমান ও সেই সময়ের পার্থক্য করলেন এভাবে, ‘রেডিয়েন্টের বিপক্ষে আমার হোম ও অ্যাওয়েতে ( মোহামেডানের হয়ে) গোল রয়েছে। এখন তাদের বিরুদ্ধে খেলার আগে ভাবতে হয়।’ মালদ্বীপ কিভাবে বাংলাদেশের ফুটবলের সাথে ব্যবধান ঘুচাল এই প্রসঙ্গে রেডিয়েন্টের সিনিয়র ফুটবলার আকরাম বলেন, ‘কঠিন পরিশ্রমই মূল পার্থক্য। আমরা ফুটবল নিয়ে অনেক কাজ করেছি তাই উন্নতি করেছি।’
রেডিয়েন্টের কোচ ওস্কারও একই কথা বলেন, ‘গত মৌসুমে আমরা ঘরোয়া চারটি ট্রফি পেয়েছি। এর পেছনেও মূল অবদান পরিশ্রমের। কঠোর পরিশ্রমের কোনো বিকল্প নেই।’ রেডিয়েন্টে আলী আশফাকের মতো গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড় আছে। আলী আশফাককে আটকানোই মূল চ্যালেঞ্জ মনে করছেন না টিটু, ‘আশফাক দক্ষিণ এশিয়ার সেরা ফুটবলারদের একজন। মালয়েশিয়ার এক ক্লাবের হয়ে টটেনহ্যামের বিরুদ্ধে এক ম্যাচে আশফাক ম্যান অফ দ্য ম্যাচ হয়েছিল। তার ম্যাচ পরিবর্তন করার ক্ষমতা রয়েছে। আশফাকের পাশাপাশি ফাসিল সহ আরো অনেক মেধাবী ফুটবলার রয়েছে রেডিয়েন্টে। জাতীয় দলের ফুটবলারও আছেন কয়েকজন।’ আবাহনীর আস্থার জায়গাটা এবার বিদেশি ফুটবলার। গত আসরে এশিয়ান কোটা কাজে লাগাতে পারেনি আবাহনী। এবার তিন নাইজেরিয়ানের সাথে জাপানী ফুটবলার রয়েছেন। টিটুর প্রত্যাশা, ‘বিদেশিদের অনুশীলনে একটু কম সময় পেলেও তারা মান সম্পন্ন। জাপানী মিডফিল্ডার ভালো পারফরম্যান্স করেছে অনুশীলনে।’ রেডিয়েন্টের কোচ মাঠ নিয়ে শঙ্কায় রয়েছেন, ‘ভালো ফুটবলের জন্য মাঠ ভালো প্রয়োজন। টিসি স্পোর্টস ও সাইফের ম্যাচ দেখেছি। মাঠ তেমন মানসম্পন্ন ছিল না।’

আবাহনী আগামীকাল তাদের গুরুত্বপূর্ণ ফুটবলার ইমন বাবুকে পাচ্ছে না। এরপরেও মিডফিল্ডে সমস্যা হবে না বলে ভাবছেন কোচ টিটু। দুই দলের কোচই নিজ নিজ দলকে ফেভারিট বলেছেন ম্যাচের আগে।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :