বিকাল ৩:৪৭, সোমবার, ১৯শে নভেম্বর, ২০১৮ ইং
/ ক্রিকেট / ছয় হাজারী ক্লাবে তামিম
ছয় হাজারী ক্লাবে তামিম
জানুয়ারি ২৩, ২০১৮



প্রথম বাংলাদেশী হিসেবে ওয়ানডেতে ছয় হাজার রানের ল্যান্ডমার্ক ছুঁলেন তামিম ইকবাল। তার আগেই অবশ্য সব সংস্করন মিলিয়ে এগারো হাজারের মাইলফলকও স্পর্শ করেছিলেন। শুধু তাই নয়, জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ৭৬ রানের ইনিংস খেলে কোন নির্দিষ্ট ভেন্যুতে সর্বোচ্চ রানের রেকর্ডটাও নিজের করে নিয়েছেন চট্টলার এই ক্রিকেটার। তামিম ইকবাল খানকে নিয়ে লিখেছেন, এস এম আশরাফ।

এক কথায় বলা যায়, এ মুহুর্তে বাংলাদেশের ব্যাটিংয়ের ‘নিউক্লিয়াস’ তামিম ইকবাল। আর ২০১৫-থেকে যদি ব্যাটিং ধারাবাহিকতার হিসেব ধরা হয় সেখানে টাইগার ব্যাটসম্যানের নামটা উঠে আসবে বিশ্বসেরাদের কাতারেই। এই সময়ে ৪১ ইনিংসে ৫ সেঞ্চুরিসহ প্রায় ৫৭ গড়ে তামিমের সংগ্রহ ২০২৮ রান। কমপক্ষে ১৫ ম্যাচ খেলা ক্রিকেটারদের তালিকা ধরলে সেখানে তামিমের অবস্থান সাতে।

গড়টা আরো বাড়তেই পারতো যদিনা হাফসেঞ্চুরিগুলোকে তিনি সেঞ্চুরিতে রুপ দিতে পারতেন। ত্রিদেশীয় সিরিজের তিনটি অর্ধশতক সহ গত তিন বছরে ৭০ থেকে ৯৫-এর মধ্যে আউট হয়েছেন আটবার। তাতেও রেকর্ড থেমে থাকেনি। ১৭৭ ওয়ানডেতেই ছুয়েছেন ছয় হাজার রানের মাইলফলক। পেছনে ফেললেন মহেন্দ্র সিং ধোনী, অ্যাডাম গিলক্রিস্ট, শেহবাগ, সাঙ্গাকারা, যুবরাজদের।

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে এ ম্যাচে একটি বিশ্বরেকর্ডেও নাম লেখালেন তামিম। কোন ভেন্যুতে সর্বোচ্চ রান করার তালিকায় পেছনে ফেললেন শ্রীলঙ্কান সনাথ জয়সুরিয়াকে। কলম্বোর প্রেমাদাসায় তিনি করেছিলেন ৭১ ম্যাচে ২৫১৪ রান। আর মিরপুর শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে তামিমের সংগ্রহ ২৫৪৯ রান।

নিজেকে কোথায় দেখতে চান তিনি। মিরপুরে এমন এক প্রশ্নের মুখোমুখি হয়েছিলেন তামিম। সেদিন বলেছিলেন, ওয়ানডেতে দশহাজারী ক্লাবের সদস্য হতে চান। এই মুহুর্তে তার ব্যাটিং ধারাবাহিকতা বলছে, সে স্বপ্নটা অসম্ভব হবেনা।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :