সকাল ৬:৩৮, মঙ্গলবার, ১২ই ডিসেম্বর, ২০১৭ ইং
/ ফুটবল / নেইমারদের বিপক্ষে প্রতিশোধের মিশন বায়ার্নের
নেইমারদের বিপক্ষে প্রতিশোধের মিশন বায়ার্নের
ডিসেম্বর ৫, ২০১৭

চ্যাম্পিয়ন্স লিগের গ্রুপ পর্বে এর আগে এত বড় ব্যবধানে আর কখনও হারেনি জার্মান জায়ান্ট বায়ার্ন মিউনিখ। ৩-০ গোলে তারা হেরেছে নেইমারের ক্লাব পিএসজির কাছে। ওই হারের পর বিশাল তোলপাড় হয়েছিল জার্মান ক্লাবটিতে। কোচ কার্লো আনচেলত্তিকে পর্যন্ত বরখাস্ত করেছে তারা। লঘু পাপে গুরুদণ্ড দেয়ার মতই ব্যাপার; কিন্তু চিরকালই জাত্যাভিমানি জার্মানরা এতবড় লজ্জাকে মেনে নিতে পারেনি।

সেই হারের প্রতিশোধ নেয়ার দারুণ সুযোগ বায়ার্ন মিউনিখের সামনে। এবার আবারও যে তাদের মুখোমুখি হতে আসছে প্যারিস সেন্ট জার্মেই। খোদ বায়ার্নের ডেরা, আলিয়াঞ্জ এরেনায়! উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফিরতি পর্বের ম্যাচে বায়ার্নের মুখোমুখি হচ্ছে আজ নেইমার-কাভানি-এমবাপেরা।

চ্যাম্পিয়ন্স লিগের নক আউট পর্ব নিশ্চিত করে ফেলেছে ইতোমধ্যে বার্সেলোনা, পিএসজি, বায়ার্ন মিউনিখ, বেসিকতাস, চেলসি, ম্যানচেস্টার সিটি, রিয়াল মাদ্রিদ, টটেনহ্যাম হটস্পার। পিএসজি আর বায়ার্নের সামনে শীর্ষে থেকে নক আউটে যাওয়ার লড়াইও বটে আজ। যদিও বায়ার্নের জন্য কাজটা বেশ কঠিন। কারণ, পিএসজিকে এই ম্যাচে হারাতে পারলে দু’দলের পয়েন্ট সমানই হবে। কিন্তু তাতে বায়ার্নের লাভ হবে কম।

কারণ, গোল ব্যবধানে এতটাই এগিয়ে পিএসজি, বায়ার্ন সে জায়গা ছুঁতে লাগবে ১৮ গোল। যা রীতিমত অবম্ভব। চ্যাম্পিয়ন্স লিগের গ্রুপ পর্বে এখনও পর্যন্ত হওয়া ৫ ম্যাচে ২৪ গোল করেছে পিএসজি। বিপরীতে মাত্র একটি গোল হজম করেছে তারা। অন্য দিকে বায়ার্ন দিয়েছে ৫ ম্যাচে ১০ গোল। হজম করেছে ৫টি। ব্যবধান মাত্র ৫ গোলের।

চ্যাম্পিয়ন্স লিগে নক আউট নিশ্চিত হবে আজ অনেকগুলো দলেরই। আটটির তো নিশ্চিত হয়েই গেছে। বাকি আটটি জায়গায় জন্য এবার লড়াই ১৪টি দলের। আজ (মঙ্গল) এবং কাল (বুধবার) চ্যাম্পিয়ন্স লিগের গ্রুপ পর্বের শেষ লড়াই। শেষ ১৬য় ওঠার লড়াইয়ে এগিয়ে অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ, বাসেল, সিএসকেএ মস্কো, জুভেন্তাস, লিপজিগ, লিভারপুল, ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের মতো ক্লাব।

আজ (মঙ্গলবার) ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের সামনে ‘গ্রুপ এ’র শীর্ষে যাওয়ার সুযোগ। তার জন্য সিএসকেএ মস্কোর বিরুদ্ধে এক পয়েন্ট পেতে হবে হোসে মরিনহোর দলকে। বাসেল এবং সিএসকেএ’র পয়েণ্ট এখন ৯ করে। এই দুই ক্লাবই দ্বিতীয় স্থানের জন্য লড়ছে। বাসেল শেষ ষোলয় যেতে পারে, যদি সিএসকেএ’র থেকে ভাল ফল করতে পারে। সুইস ক্লাবটি খেলতে নামবে বেনফিকার বিরুদ্ধে।

গ্রুপ সি-তে অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদকে হারাতে পারলেই গ্রুপের শীর্ষে থেকে শেষ ১৬য় যাবে চেলসি। রোমা যদি কারাবাগকে হারাতে না পারে তা হলেও গ্রুপের শীর্ষে চলে যাবে আন্তোনিও কন্তের দল। গ্রুপ ডি’তে ইতালিয়ান চ্যাম্পিয়ন জুভেন্তাসের জন্য অপেক্ষা করছে কঠিন পরীক্ষা। শেষ ১৬য় যেতে হলে, তাদের অবশ্যই জিততে হবে অলিম্পিয়াকসের বিপক্ষে। হারলে তো কথাই নেই, ড্র করলেও বিপদে পড়তে পারে তারা। যদি, স্পোর্টিং সিপির কাছে কোনোভাবে হেরে যায় বার্সা। আর যদি স্পোর্টিং সিপি হেরে যায়, তাহলে জুভেন্তাস অলিম্পিয়াকসের কাছে হারলেও বিপদ থাকবে না, তারাই যাবে শেষ ১৬য়।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :