বিকাল ৫:১৯, বৃহস্পতিবার, ২৩শে নভেম্বর, ২০১৭ ইং
/ হকি / পাকিস্তানকে উড়িয়ে দিয়ে ফাইনালে ভারত
এশিয়া কাপ হকি প্রতিযোগিতা
পাকিস্তানকে উড়িয়ে দিয়ে ফাইনালে ভারত
অক্টোবর ২১, ২০১৭

মর্যাদার লড়াইয়ে পাকিস্তানকে ৪-০ গোলে ধরাশায়ী করে এশিয়া কাপ হকির ফাইনাল নিশ্চিত করেছে ভারত। আজ শনিবার মওলানা ভাসানী হকি স্টেডিয়ামে নির্ধারিত সময়ে প্রায় দেড় ঘন্টা পর শুরু হওয়া এ ম্যাচে একটি করে গোল করেন সাতবির সিং, হারমান প্রীত, ললিত উপাধ্যায় ও গুরজান্ত সিং। গ্রুপ পর্বের লড়াইয়েও পাকিস্তানকে ৩-১ গোলে পরাস্ত করেছিল ভারত। আগামীকাল রোববার একই ভেন্যুতে বিকেল সাড়ে ৫টায় দক্ষিণ কোরিয়া-মালয়শিয়া ম্যাচের ফাইনালিষ্টের বিরুদ্ধে শিরোপা জন্য লড়াই করতে নামবে র‌্যাংকিংয়ের ৬ নম্বরে থাকা দল ভারতকে।

এ নিয়ে অষ্টমবারের মতো ফাইনাল খেলার টিকিট পেলো ভারতীয়রা। তারমধ্যে দুইবার এশিয়ার শ্রেষ্ঠত্ব অর্জন করে তারা। ফাইনালে জিততে পারলে শিরোপা পূণরুদ্ধার হবে তাদের। ২০০৭ সালে সর্বশেষ শিরোপার দেখা পেয়েছিল ভারত। এরপর বেশ কয়েকটি আসরের ফাইনাল খেললেও শিরোপা অধরাই থেকে যায়।
পাকিস্তান-ভারত লড়াই মানেই অন্যরকম এক উত্তেজনা। সেটা হোক ক্রিকেট কিংবা হকি। এ দুই দলের দ্বৈরথ মানেই মর্যাদা ও স্নায়ু চাপের লড়াই। উপমহাদেশের সবচেয়ে আকর্ষনীয় এ হকি ম্যাচ দেখতে মাঠে ছুঁটে এসেছিলেন হাজার পাঁচেক দর্শক। দুই দলের লড়াইটাও ছিল উত্তেজনার পারদে ঠাঁসা। আক্রমন-পাল্টা আক্রমনে দারুন জমে উঠেছিল ম্যাচটি। তবে ভারতের চেয়ে প্রথমার্ধে আক্রমনে অনেকটাই এগিয়ে ছিল পাকিস্তান।

‘সুপার ফোর’ রাউন্ডে নিজেদের প্রথম ম্যাচে দক্ষিণ কোরিয়ার সাথে হারতে হারতে ড্র করে শিরোপা প্রত্যামী ভারত। পরের ম্যাচে মালয়শিয়াকে ৬-২ গোলে বিধ্বস্ত করে ফাইনালের পথ অনেকটাই পরিচ্ছন্ন করেছিল তারা। ‘সুপার ফোর’ রাউন্ডের শেষ ম্যাচে পাকিস্তানকে ৪-০ গোলে বিধ্বস্ত করে তারা।

প্রথমার্ধেই দু’দল গোলের একাধিক সুযোগ নষ্ট করে। এ অর্ধে চারটি পিসি পেয়েছিল পাকিস্তান। কিন্তু একটিও কাজে লাগাতে পারেনি। ভারতীয় গোলরক্ষক আকাশ চিকতে দু’টি আক্রমন নসাৎ করে দেন। আর ১০ মিনিটে আবু মামুদের নেয়া শট পোষ্টে লেগে ফিরে আসলে হতাশ হতে হয় পাকিস্তানকে। ভারত যে দু’টি পেনাল্টি কর্নার পেয়েছিল, সেগুলোও কাজে লাগাতে ব্যর্থ য়েছে। ম্যাচের ২৯ মিনিটে এগিয়ে যেতে পারতো দুইবারের চ্যাম্পিয়ন দলটি। কিন্তু হারমান প্রীত সিংয়ের নেয়া জোড়ালো শট ক্রসপিচে লেগে ফিরে আসলে গোলের মুখ দেখা হয়নি তাদের।

তবে তৃতীয় কোয়ার্টারেই পাল্টে যায় ভারতের খেলার ধরন। আক্রমনে কোনঠাসা করে ফেলে পাক শিবিরকে। সেই আক্রমনের ফল পেয়ে যায় ৩৯ মিনিটে। ফিল্ড থেকে দারুন এক শটে গোল আদায় করে দলকে আনন্দে ভাসান সাতবির সিং (১-০)। পাঁচ মিনিট পর আবারো পেনাল্টি পেয়ে যায় র‌্যাংকিংয়ের ৬ নম্বরে থাকা দলটি। কিন্তু পাকিস্তানী গোলরক্ষক আমজাদ আলী দক্ষতার সাথে পেনাল্টি প্রতিহত করেন। তবে ৫১ মিনিটে ভারতের পেনাল্টি কর্নার আর রুখতে পারেননি আমজাদ আলী। হারমান প্রীতের শট সরাসরি আশ্রয় নেয় জালে (২-০)। এক মিনিটের ব্যবধানে গোলের গ্রাফটটা আরো একধাঁপ উপরে নিয়ে যান ললিত উপাধ্যায় (৩-০)। ছন্নছাড়া য়ে যায় পাকিস্তানের রক্ষণভাগ। সেই সুযোগে ৫৭ মিনিটে ভারতের উৎসবটা আরো রাঙ্গিয়ে দেন গুরজান্ত সিং (৪-০)।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :