সকাল ১১:১২, বৃহস্পতিবার, ২৩শে নভেম্বর, ২০১৭ ইং
/ ফুটবল / মেয়েদের মনে ভয় কাজ করেছে : ছোটন
মেয়েদের মনে ভয় কাজ করেছে : ছোটন
সেপ্টেম্বর ১১, ২০১৭

কবিরুল ইসলাম, চনবুড়ি (থাইল্যান্ড) থেকে :
এএফসি অনর্ধ্ব-১৬ ওমেন্স ফুটবলের বাছাই পর্বে নিজেদের মাটিতে শক্তিশালী ইরান, চাইনিজ তাইপে, জর্ডানের মতো দলগুলোকে পরাস্ত করেছিল বাংলাদেশ। বাছাই পর্বে অপরাজিত থাকা দলটি মূল পর্বে জায়গা করে নেয়ার পর প্রত্যাশার কোনো কমতি ছিল না ফুটবলানুরাগীদের মাঝে। বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনও (বাফুফে) বেশ মনোযোগী হয়ে উঠেছিল নারী ফুটবল নিয়ে। গত এক বছরে দক্ষিণ কোরিয়া, চীন, জাপানের মতো দলগুলোর বিরুদ্ধে প্রস্তুতি ম্যাচের আয়োজন করেছিল। অভিজ্ঞতার ঝুলিটা সমৃদ্ধ করতেই প্রায় আড়াই কোটি টাকা খরচ করা হয়েছিল কৃষ্ণা-মৌসুমীদের পেছনে। কিন্তু সেই দলটিই মূল পর্বে এসে নিজেদের আর ধরে রাখতে পারেনি। খেই হারিয়েছে পুরোপুরি। আজ নিজেদের প্রথম ম্যাচেই শক্তিশালী উত্তর কোরিয়ার কাছে বিধ্বস্ত হতে হয়েছে ৯-০ গোলে।

বর্তমান চ্যাম্পিয়ন দলটির কাছে হারবে বাংলাদেশ, এটাই স্বাভাবিক। কারণ র‌্যাংকিংয়ে উত্তর কোরিয়ার চেয়ে অনেক পিছিয়ে লাল-সবুজরা। ব্যবধান এতো বড় হবে সেটা হয়তো কোচ গোলাম রব্বানী ছোটন নিজেও কল্পনা করেননি। মাঠের লড়াইয়ে আজ এক বছর আগের অনূর্ধ্ব-১৬ দলকে খুঁজে পাওয়া যায়নি। মাঠের লড়াইয়ে গা-ছাড়া ভাব দেখা গেছে। রানিংয়ে ছিল সমস্যা। ডিফেন্স আর অফেন্সেতো ছিলই। ময়দানী লড়াইয়ে কৃষ্ণাবাহিনীর এমন হতশ্রী অবস্থার কারণ জানতে চাইলে কোচ বলেন, ‘আমরা কোন দলের বিরুদ্ধে খেলছি সেটা একবার বিবেচনা করুন। উত্তর কোরিয়া এ আসরের বর্তমান চ্যাম্পিয়ন। তারা অনূর্ধ্ব-১৭ ফুটবলেরও চ্যাম্পিয়ন দল। এমন দলের বিরুদ্ধে খেলতে গিয়ে ভয় কাজ করেছে মেয়েদের মনে। তারা আসলে চাপ নিতে পারেনি।’

ম্যাচের মাত্র ৮ ঘন্টা আগে দলকে অনুশীলন করানোর প্রভাব মাঠে পড়েছিল কি না- এমন প্রশ্নের জবাবে ছোটন বলেন, ‘না আমরা হার্ড অনুশীলন করাই নি। হালকা অনুশীলনই করিয়েছি। আমাদের সেটপিসে সমস্যা ছিল, সকালের সেশনে সেটা নিয়ে কাজ করেছিলাম। এখানে পল স্মলির কোন দোষ আমি দেখছি না।’

সংবাদ মাধ্যমের সামনে কোচ কিছু প্রকাশ করতে না চাইলেও ভেতরে ভেতরে যে তিনি অনুশীলনের বিরুদ্ধে ছিলেন, সেটা জানা গেছে বাফুফের অন্য একটি সূত্রে। শুধু অনুশীলনের বিরোধীতাই করেননি, বাফুফের মহিলা উইংসের চেয়ারপার্সন মাহফুজা আক্তার কিরনকে দিয়ে পল স্মলিকে দমাতে চেয়েছিলেন। কিন্তু পল স্মলি কারো কথাতেই কর্ণপাত করেননি। দল নিয়ে চলে যান মাঠে। প্রায় ৪৫ মিনিট কঠোর অনুশীলন করিয়েছেন। ম্যাচের আগমুহুর্তে এ অনুশীলনের কারনেই হয়তো মাঠে দৌড়াতে পারেননি কৃষ্ণারা।

দলের কোচ প্রকাশ্যে কিছু বলতে না চাইলেও দলের ম্যানেজার জাকির চৌধুরী ঠিকই প্রকাশ করেছেন সকালের অণুশীলনটা যে ঠিক ছিল না, ‘সকালে হঠাৎ করেই টেকনিক্যাল ডিরেক্টর অনুশীলনের কথা জানান। আমরা বিরোধীতা করেছিলাম। কিন্তু তিনি শোনেননি। পরে কিরন আপাকে দিয়ে ফোন করিয়েও কোন লাভ হয়নি। ফলাফল যা হবার, মাঠে তাই হয়েছে।’

নিজেদের প্রথম ম্যাচে এমন ফলাফল গ্রুপ পর্বের শেষ দুই ম্যাচেও যে প্রভাব ফেলবে, তা সহজেই অনুমেয়। বাংলাদেশের মেয়েরা নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে আগামি ১৪ সেপ্টেম্বর শক্তিশালী জাপানের মুখোমুখি হবে।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :