রাত ২:৪০, মঙ্গলবার, ২৩শে অক্টোবর, ২০১৭ ইং
/ আর্ন্তজাতিক / মেসির হ্যাটট্রিকসহ চার গোলে বার্সার বড় জয়
মেসির হ্যাটট্রিকসহ চার গোলে বার্সার বড় জয়
সেপ্টেম্বর ২০, ২০১৭

চলতি মৌসুমে লিওনেল মেসির দ্বিতীয় হ্যাটট্রিকে ঘরের মাঠে এইবারকে ৬-১ গোলে বিধস্ত করেছে বার্সেলোনা। দলের নিয়মিত খেলোয়াড়দের বিশ্রামে রাখলেও তরুণদের নিয়ে জয়যাত্রা অব্যাহত রেখেছেন পাচবারের বিশ্ব সেরা এই ফুটবলার। ম্যাচের শুরুতে ঝলক দেখানো এইবার সময়ের সঙ্গে সঙ্গে খেই হারায়। নিখুঁত পাসিং, দ্রুত প্রতি-আক্রমণ আর দারুণ ফিনিশিংয়ে এইবারকে ধরাশায়ী করে কাতালানরা।

বার্সেলোনা একাদশে ছিল ছয়টি পরিবর্তন। প্রথম একাদশে ছিলেন না লুইস সুয়ারেজ ও ইভান রাকিতিচ। ইনজুরির কারণে উসমানে ডেম্বেলে চার মাসের জন্য মাঠের বাইরে চলে যাওয়ায় মেসির সঙ্গী হন ডেনিস সুয়ারেজ ও জেরার্ড ডেলোফু। পাউলিনহো, সেমেদো, মাচেরানো ও দিনিয়েও ছিলেন শুরুর একাদশে।

খেলা শুরুর তৃতীয় মিনিটেই কাঁপিয়ে দিয়েছিল এইবার। একা পেয়েও টের স্টেগানকে পরাস্ত করতে পারেননি এইবার ফরোয়ার্ড সার্জি এনরিচ। ১০ মিনিটে আবারও এইবারের আক্রমণ, এবারে জাপানি অ্যাটাকিং মিডফিল্ডার ইনুই। সেই ইনুই, যাঁর গোলে গেল মৌসুমে ন্যু ক্যাম্পে, বার্সাকে হারিয়েছিল এইবার। তবে এবার সুবিধা করতে দেননি বার্সা গোলরক্ষক।

২০ মিনিটে বার্সা ডিফেন্ডার নেলসন সেমেদোকে ফাউল করেন আলেহান্দ্রো গালভেজ। পেনাল্টি স্পট থেকে মৌসুমে নিজের ষষ্ঠ গোল করেছেন মেসি। ৩৭ মিনিটে কর্নার থেকে গোল করেছেন শুরুতেই বার্সা–সমর্থকদের আস্থা হারানো পাউলিনহো। ডেনিস সুয়ারেজের কর্নার থেকে হেডে গোল করেন ব্রাজিলীয় মিডফিল্ডার। বহুদিন পর মাঠে শারীরিকভাবে শক্তিশালী এক মিডফিল্ডারের অস্তিত্ব টের পাচ্ছে বার্সেলোনা। প্রথমার্ধ শেষে ২-০–তে এগিয়ে ছিল বার্সা।

দ্বিতীয়ার্ধের আট মিনিটে বিদ্যুতগতির এক প্রতি–আক্রমণে এইবার রক্ষণ ছিঁড়ে ফেলেন মেসি। তিন ডিফেন্ডার যখন মেসির শট আটকাতে ব্যস্ত, তখন গোলরক্ষকের ঠেকিয়ে দেওয়া বলে কাছের পোস্টে গোল করেছেন ডেনিস সুয়ারেজ। বাঁ প্রান্তে অনেকটাই অপ্রতিরোধ্য ছিলেন বার্সার এই তরুণ ফরোয়ার্ড।

চার মিনিট পর সফরকারীদের হয়ে এক গোল শোধ করেছিলেন এনরিচ। জুনকা রেনের ক্রস থেকে দর্শনীয় ফিনিশিং দেখিয়েছেন। কিন্তু পাঁচ মিনিট পর আবারও মেসি-ঝলক। তিন ডিফেন্ডারকে কাটিয়ে বল ঠেলেছেন পোস্টের বাঁ প্রান্তে। হ্যাটট্রিক পূর্ণ করতে আর মাত্র ১২০ সেকেন্ড সময় নিয়েছেন আর্জেন্টাইন জাদুকর। নিজেদের অর্ধে বল পেয়ে কাউন্টারে উঠেছেন দ্রুত। তারপর পাউলিনহোর সঙ্গে ওয়ান-টু করে দ্রুত শট নিয়েছেন। তিন ডিফেন্ডার আর গোলরক্ষক মিলেও শেষ রক্ষা হয়নি এইবারের।

তবে ভাগ্যকে দুষতেই পারেন পেনা। তাঁর শটে বল গোললাইনের হাওয়া গায়ে লাগিয়েও পোস্টে যায়নি। এক মিনিট পরই বদলি খেলোয়াড় অ্যালেক্স ভিদালের ক্রস থেকে নিজের চতুর্থ গোল করেন লিওনেল মেসি। লিগে এই নিয়ে ৫ ম্যাচে ৯ গোল করেছেন মেসি, সব মিলিয়ে মৌসুমে ১৬ গোল। এই জয়ে ৫ ম্যাচে পূর্ণ ১৫ পয়েন্ট নিয়ে লিগ টেবিলের শীর্ষ স্থান ধরে রাখলো কাতালানরা।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :