সকাল ১১:৩৫, শুক্রবার, ২৪শে নভেম্বর, ২০১৭ ইং
/ ক্রিকেট / বিশ্বাস ছিল দলে ফিরব : নাসির
বিশ্বাস ছিল দলে ফিরব : নাসির
আগস্ট ১৯, ২০১৭

জাতীয় দলে দীর্ঘদিন উপেক্ষিত। ঘরোয়া ক্রিকেটে একের পর এক দারুণ খেলা উপহার দেয়ার পরও কেন যেন নাসির হোসেন জাতীয় দলে ডাক পাচ্ছিলেন না। নির্বাচক, কোচ কিংবা টিম ম্যানেজমেন্টের কাছে বরাবরই উপেক্ষিত থাকতে হচ্ছে নাসির হোসেনকে। শেষ পর্যন্ত ভাগ্যের সিঁকে ছিঁড়ল নাসিরের। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে প্রথম টেস্টের জন্য ঘোষিত ১৪ জনের দলে জায়গা পেলেন নাসির।

আজ জাতীয় দলের কোনো অনুশীলন ছিল না। ক্রিকেটাররা যে যার মতো নিজের বাসা কিংবা বাড়িতেই অবস্থান করছিল। মোট কথা, আজ ছিল বিশ্রামের দিন। এ কারণে দল ঘোষণার দিন মাঠে দেখা যায়নি কোনো ক্রিকেটারকে। দলে ফেরার খবর সবার আগে জাগো নিউজের কাছ থেকেই জানতে পারেন নাসির।

টিম ম্যানেজমেন্ট কিংবা নির্বাচক- কারও কাছ থেকে আগে থেকে কোনো ইঙ্গিতও পাননি নাসির। যদিও নিজের ভেতর বিশ্বাস ছিল- কেন যেন এবার আর তাকে উপেক্ষা করা হবে না। দলে ডাকা হবে। অন্তত ১৪ জনের দলে থাকবেন তিনি। সে কথাই জাগো নিউজকে জানান নাসির, ‘কেউ আমাকে আগে থেকে কিছু বলেনি। তবে বিশ্বাস ছিল, ১৪ জনের মধ্যে থাকতে পারি।’

কেন এই এমন বিশ্বাস তৈরি হয়েছে নাসিরের? সেই হেতু নিজেই জানালেন তিনি। বললেন, ‘গত এক বছরের বেশি সময় জাতীয লিগ এবং প্রিমিয়ার লিগসহ ঘরোয়া ক্রিকেটে সাধ্যমত চেষ্টা করেছি ভালো খেলার। আমার বিশ্বাস সেই ভালো খেলাটাকেই মানদণ্ড ধরেছেন নির্বাচকরা। তাই তাদের বিবেচনায় এসেছি। আমার মূল্যায়ন হচ্ছে, ভালো খেলার পুরস্কারই আবার দলে ফিরে আসা।’

জাগো নিউজের সঙ্গে ফোনে যখন কথা বলছিলেন, যখন প্রথম শুনলেন দলে ফিরে এসেছেন তখনও তাকে খুব বেশি উচ্ছ্বাসিত মনে হয়নি। একটা নির্লিপ্ত ভাব। এমন দেখে প্রশ্নই করা হলো, তাহলে কি আপনি উচ্ছসিত কিংবা উল্লসিত নন?

নাসিরের উত্তর, ‘না, তেমন না। এমনিতে খুশি। তবে একদম উল্লসিত হওয়ার মত ঘটনা তো কিছু ঘটেনি। আমার বিশ্বাস ছিল, যে দলে থাকতে পারি এবং সেটাই হয়েছে। যদি বিশ্বাস না থাকতো এবং দলে চলে আসতাম, তাহলে উচ্চসিত হওয়ার কিছু থাকতো।’

আপনাকে নিয়ে তো এর মধ্যে অনেক কথা হচ্ছিল। আবার দলে নেয়া হতে পারে এমন গুঞ্জন আগেই ছড়িয়ে পড়েছিল। টিম ম্যানেজমেন্ট এবং নির্বাচকদের পক্ষ থেকে কী কোনো ইঙ্গিত পেয়েছিলেন? প্রধান নির্বাচক কিংবা কোচ কি এ কথা বলেছিলেন যে, অস্ট্রেলিয়া সিরিজে তুমি থাকছ?

জাগো নিউজের কাছ থেকে এমন প্রশ্ন শুনে নাসির বললেন, ‘না ভাই এমন কোনো আভাস কিংবা ইঙ্গিত কেউ দেননি। তবে যখন নেটে ব্যাট করতাম, তখন কোচ খুব মনযোগ দিয়ে আমার ব্যাটিং দেখেছেন এবং প্রায় দিনই ব্যাটিং শেষে বলতেন, ভালো ব্যাটিং করেছ। এটাই ছিল আমার এক রকমের আত্মবিশ্বাসের দাওয়াই যে, কোচ আমার ব্যাটিংয়ের প্রশংসা করেছেন।’

মুমিনুল-মাহমুদউল্লাহ নেই, নাসির এসেছেন দলে। তাকে কী একাদশে রাখা হবে কিংবা টিম কম্বিনেশনে নাসিরের জায়গা কোথায় হবে? তা নিয়ে এখনই জ্বল্পনা-কল্পনার ফানুস উড়তে শুরু করেছে। জাগো নিউজের কাছ থেকে ঠিক সে প্রশ্নই পেলেন নাসির, ‘একাদশে থাকার ব্যাপারে কতটা আশাবাদী আপনি?’

নাসিরের আত্মবিশ্বাসী উচ্চারণ, ‘আমি অনেক আশাবাদী। তবে, আমার খেলা না খেলা নির্ভর করবে উইকেট ও টিম কম্বিনেশনের ওপর। যদি পেস বোলিং সহায়ক উইকেটে খেলা হয়, তাহলে আমার এগার জনে থাকার সম্ভাবনা অনেক কম। স্লো ও স্পিনিং ট্র্যাকে খেলা হলে টিম কম্বিনেশনে আমি হয়তো বিবেচনায় থাকতে পারি।’

 



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :