ভোর ৫:২১, বৃহস্পতিবার, ২৩শে আগস্ট, ২০১৭ ইং
/ ফুটবল / নারী বিতর্কে ম্যারাডোনা
নারী বিতর্কে ম্যারাডোনা
জুলাই ৫, ২০১৭

কনফেডারেশন্স কাপ শেষ হওয়ার কিছু পরই বিতর্কে জড়ালেন দিয়েগো ম্যারাডোনা। রাশিয়ার এক মহিলা সাংবাদিক একাতেরিনা নাদোলস্কা ম্যারাডোনার বিরুদ্ধে হেনস্থার অভিযোগ করেন সেন্ট পিটার্সবার্গের পুলিশের কাছে। তিনি জানিয়েছেন, হোটেলের ঘরে তাঁকে পোশাক খুলতে বাধ্য করেছিলেন আর্জেন্টিনার কিংবদন্তি ফুটবলার।

৩০ বছর বয়সী এই সাংবাদিক বলেন, ‘ইন্টারভিউয়ের জন্য আমি দিয়েগোর হোটেলে গিয়েছিলাম। প্রথম লবিতে বসেই কথাবার্তা হচ্ছিল। পরে উনি আমায় ঘরে নিয়ে যান। তখন ওঁর ঘরে এক মহিলা ছিলেন। আমি ঢোকার পরেই উনি বেরিয়ে যান। কয়েকটি প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার পর দিয়েগো হঠাৎ উঠে দরজা বন্ধ করেন। তারপরেই আমাকে পোশাক খোলার জন্য জোরাজুরি করেন। নিজের সম্মানরক্ষার জন্য তখন আমি বলি, এবার পুলিশ ডাকতে বাধ্য হব। দিয়েগোর উত্তর ছিল, তোমাকে ডাকতে হবে না, আমি হোটেলের নিরাপত্তারক্ষীদের ডাকছি।

ওরা এসে আমায় প্রায় জোর করে করিডোর দিয়ে নামায়। আমার বেশ কিছু জিনিসপত্র দিয়েগোর ঘরে ছিল। ঘটনার তিন ঘণ্টা পরেও আমি মোবাইল হ্যান্ডসেট পাইনি। পরে দিয়েগোর সহকারী আমায় এসে পাঁচশ’ ডলার ছুঁড়ে দেয়। আমি তা নিতে অস্বীকার করি। হোটেলের কর্মীরা আমায় তাড়িয়ে দেওয়ার চেষ্টা করলেও তা সফল হয়নি। পরদিন সকাল আটটায় পুলিশের সহযোগিতায় আমি হোটেল ছাড়ি। তখন আমার পোশাক ফিরিয়ে দেওয়া হয়।’

তবে একাতেরিনার অভিযোগ সম্পূর্ণ মিথ্যা বলে জানান ম্যারাডোনা। তিনি বলেছেন, ‘এরকম কিছুই হয়নি সেদিন।’ হোটেল কর্তৃপক্ষও জানিয়েছে, সেই রাতে সেখানে কোনওরকম অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :