রাত ৮:৩২, শুক্রবার, ২৪শে নভেম্বর, ২০১৭ ইং
/ হকি / হকির নির্বাচনে মুখোমুখি রহমতউল্লাহ-রশিদ
হকির নির্বাচনে মুখোমুখি রহমতউল্লাহ-রশিদ
জুন ১২, ২০১৭

এখনো শিডিউল ঘোষণা হয়নি। তার আগেই জমে উঠেছে বাংলাদেশ হকি ফেডারেশনের নির্বাচন। বিশেষ করে সাধারণ সম্পাদক পদে তিনজন নির্বাচন করার ঘোষণা দেয়ায় এ মুহূর্তে ক্রীড়াঙ্গনে সবচেয়ে আলোচনায় হকির নির্বাচন। ৩০ জুলাই শেষ হবে বর্তমান নির্বাচিত কমিটির মেয়াদ।
বর্তমান কমিটির দুই সহসভাপতি খাজা রহমতউল্লাহ ও আবদুর রশিদ শিকদার সাধারণ সম্পাদক পদে নির্বাচন করতে মাঠে নেমে পড়েছেন। এর মধ্যে খাজা রহমতউল্লাহ সর্বশেষ নির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক। যদিও মোহামেডান-মেরিনার্সসহ কয়েকটি ক্লাবের আন্দোলনের মুখে রহতমউল্লাহকে ওই পদ থেকে সরিয়ে সহসভাপতি করা হয়। আর নির্বাচিত সহসভাপতি আবদুস সাদেককে দেয়া হয় সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব।
সাধারণ সম্পাদক পদে আরেক প্রার্থী সাজেদ এ এ আদেল। সাবেক এ সাধারণ সম্পাদক ইতিমধ্যেই ক্রীড়াঙ্গনে পোস্টার লাগিয়ে জানান দিয়েছেন নির্বাচন তিনিও আছেন প্রার্থী। তবে হকি সংশ্লিষ্টদের ধারণা, শেষ পর্যন্ত কোনো সমঝোতা না হলে সাধারণ সম্পাদকের লড়াইটা জমে উঠবে খাজা রহমতউল্লাহ ও আবদুর রশিদ শিকদারের মধ্যে।
২০১৩ সালে অনুষ্ঠিত সর্বশেষ নির্বাচনে জট লেগেছিল জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ মনোনীত ৫ কাউন্সিলর নিয়ে। যেখানে একটি ক্লাবেরই প্রাধান্য ছিল। এবার অবশ্য জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ তাদের কাউন্সিলর মনোনয়নে ভারসাম্য রেখেছে। দেশের দুই ঐতিহ্যবাহী ক্লাব মোহামেডান ও আবাহনীর একজন করে এবং বাকি ৩ জন পৃষ্ঠপোষকের কোটায় মনোনয়ন দিয়েছে দেশের খেলাধুলার অভিভাবক সংস্থাটি।
নির্বাচনের জন্য ইতিমধ্যে কাউন্সিলর তালিকা চূড়ান্ত করে তা জাতীয় ক্রীড়া পরিষদে পাঠিয়েছে ফেডারেশন। এখন নির্বাচেনর তফসিল ঘোষণা করবে এনএসসি। সেটা হতে পারে ঈদের আগেও। হকি ফেডারেশন কর্মকর্তারা ধারণা করছেন আগামী এক-দেড় সপ্তাহের মধ্যে এনএসসি নির্বাচনী তফসিল ঘোষণা করতে পারে।
হকি ফেডারেশনের সাধারণ পরিষদের মোট কাউন্সিলর ৮৬। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি ৪১ জন জেলা ও বিভাগের। প্রিমিয়ার, দ্বিতীয় ও তৃতীয় বিভাগের ক্লাব ৩১ টি, সার্ভিসেস ৪ টি, এনএসসি ৫ টি, বিকেএসপি, মহিলা ক্রীড়া সংস্থা, আম্পায়ার্স বোর্ড, ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের একজন করে। এ ছাড়া আছেন সর্বশেষ নির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক।
এবারো এনএসসির কোটার কাউন্সিলর নিয়ে শুরুতে বিতর্ক ছিল। অভিযোগ আছে, বর্তমান কমিটির নীতিনির্ধারকরা তাদের পছন্দের ৫ জনকে এনএসসির কোটায় কাউন্সিলর বানাতে চেয়েছিল। তবে শেষ পর্যন্ত উভয় পক্ষকে সন্তুষ্ট রেখে তালিকা তৈরি করা হয়েছে। আবাহনীর আবদুস সাদেক ও মোহামেডানের শফিকুল ইসলাম লিটুকে কাউন্সিলর করা হয়েছে। পৃষ্ঠপোষক কোটায় হয়েছেন গ্রিনডেল্টা ইন্সুরেন্সের কর্মকর্তা এমএ মুইস, এটিএন বাংলার চেয়ারম্যান মাহফুজুর রহমান ও ইনডেক্স গ্রুপের পরিচালক এমএম এহসান নিজামী।
নির্বাচনের আগে অনেকের ভোটের লড়াইয়ে দাঁড়ানোর কথা শোনা গেলেও শেষ পর্যন্ত থাকেন না। নানা চাপের মুখে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ান কেউ কেউ। তবে এবার সাধারণ সম্পাদক পদে নির্বাচন হবে-এমন জোর আলোচনাই আছে। বিশেষ করে আগ্রহী তিন জনের দুই জন আবদুর রশিদ শিকদার ও খাজা রহমতউল্লাহ সরকার দলীয় মনোভাবের থাকায় পরিস্থিতি ভিন্নখাতে মোড় নিতে পারে। কেউ কাউকে ছাড় না দিলে জমে উঠতে পারে হকি ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক পদে নির্বাচন।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :