সকাল ১০:০৫, রবিবার, ২০শে আগস্ট, ২০১৭ ইং
/ আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি / শিরোপা লড়াইয়ে মুখোমুখি আজ ভারত-পাকিস্তান
আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি
শিরোপা লড়াইয়ে মুখোমুখি আজ ভারত-পাকিস্তান
জুন ১৮, ২০১৭

চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির ফাইনাল খেলছে ভারত ও পাকিস্তান, আর উত্তেজনায় পুরো বিশ্ব। চলতি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে আরও একবার মুখোমুখি হতে চলেছে বিশ্ব ক্রিকেটের দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ভারত-পাকিস্তান। এমনিতেই রাজনৈতিক কারণে প্রতিবেশি দুই রাষ্ট্রের মধ্যে ক্রিকেট খেলার চল নেই বললেই চলে। যেটুকু হয় তাও সেই আইসিসি-এর টুর্নামেন্টেই। আর তারই সুবাদে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে শ্রেষ্ঠত্বের লড়াইয়ে আজ লন্ডনের ওভালে মুখোমুখি হবে ভারত-পাকিস্তান। খেলাটি শুরু হবে বাংলাদেশ সময় বেলা সাড়ে তিনটা থেকে।
২০১৭ চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির ফাইনালকে ঘিরে ইতিমধ্যে উত্তেজনায় ফুটছে গোটা লন্ডন। আর সেই আমেজ ছড়িয়ে পড়েছে সারা বিশ্বে। চলতি টুর্নামেন্টেই অবশ্য পাকিস্তানকে হারিয়েছে বিরাট কোহলির দল। তবে সেটা ছিলো গ্রুপ পর্বে। কিন্তু ফাইনাল ভিন্ন ম্যাচ, গ্রুপ পর্বের ম্যাচের সঙ্গে ফাইনাল মেলান ঠিক নয়।
চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি হাতে সরফরাজ-বিরাট।
রবিবারে ফাইনালের প্রসঙ্গে পাকিস্তানের কোচ মিকি আর্থার জানিয়েছেন, ‘আমরা নিজেদের ক্ষমতা অনুযায়ী খেলব। ব্যাটিংয়ের থেকেও বোলিং লাইনআপ আমাদের শক্তিশালী। গোটা টুর্নামেন্টে আমাদের বোলাররা ভাল বল করেছে। ফাইনালেও সেটা ধরে রাখতে চাই।’
অন্য দিকে, পাকিস্তানকে সম্মান জানিয়ে ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহালি বলেন, ‘পাকিস্তান বড় দল। ওদের দক্ষতা এবং ক্ষমতার প্রসঙ্গে সকলেই জানে। নিজেদের দিনে যে কোনও দলকে হারানোর ক্ষমতা রাখে পাকিস্তান। তবে আমরা আগের ম্যাচগুলোর মতই খেলব। দলের প্রত্যেকে আশাবাদী ফাইনালে ভাল পারফরম্যান্সের বিষয়।’
অন্যদিকে, পাক সমর্থকদের জন্য সুখবর ভারতের বিরুদ্ধে ফাইনালে চোট কাটিয়ে দলে ফিরছেন পেসার মোহাম্মদ আমির। আমির এলে দল থেকে বাদ পরতে হবে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে দুর্দান্ত খেলা রুমান রাইসকে। এ ছাড়া পাকিস্তানের দলে পরিবর্তনের কোনও সম্ভবনা নেই।
পাকিস্তানের দলে পরিবর্তন এলেও একই দল খেলবে ভারতের। নিজেদের সেট টিমকেই ফাইনালে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে নামাতে চলেছে ভারতীয় টিম ম্যানেজম্যান্ট। ডান পায়ের হাঁটুতে চোট পাওয়া রবিচন্দ্রন অশ্বিন ফাইনালে মাঠে নামছেন, এমনই সুখবর বিরাজ করছে ভারত শিবিরে।

আইসিসি ইভেন্টে ভারত-পাকিস্তানের পরিসংখ্যান


ফাইনালের ভেন্যু: দ্যা ওভাল
ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ শুধু ক্রিকেট মাঠেই সীমাবদ্ধ থাকে না, উত্তাপ ছড়িয়ে পরে দেশ থেকে দেশান্তরেও। আইসিসি ইভেন্টে ভারত-পাকিস্তান দু’দলই বহুবার একে অপরের মুখোমুখি হয়েছে। তবে, অধিকাংশ সময়ই ভারতের কাছে হারতে হয়েছে পাকিস্তানকে। এখনও পর্যন্ত বিশ্বকাপে ছয়বার ভারতের মুখোমুখি হয় পাকিস্তান। কিন্তু একবারও হারাতে পারেনি ভারতকে। এমনকি ১৯৯২ বিশ্বকাপ জয়ী ইমরান খানের পাকিস্তানও হারাতে ব্যর্থ হয় ভারতকে। ১৯৯২-র পর ১৯৯৬ তেও ভারতের কাছে পরাজিত হয়েছিলো পাকিস্তান। এরপর আর কখনই ভারতকে হারাতে পারেনি পাকিস্তান। ১৯৯৯, ২০০৩, ২০১১ ও ২০১৫ প্রতিটি বিশ্বকাপেই ভারতের মুখোমুখি হলেও পরাজয় দিয়েই মাঠ ছাড়তে হয়েছে পাকিস্তানকে। শুধু বিশ্বকাপেই নয়, টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপেও চারবার পাকিস্তানকে হারিয়েছে ভারত। ২০০৭ সালে পাকিস্তানকে হারিয়েই প্রথমবার টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ জিতেছিল মহেন্দ্র সিং ধোনির দল। এরপর ২০১২ এবং ২০১৪ তেও ভারতের কাছে নতিস্বীকার করে পাকিস্তান।
তবে, বিশ্বকাপের মঞ্চে ভারতের কাছে বারবার হারলেও চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে পাকিস্তানের ফলাফল তুলনামূলক ভালো। আইসিসির এই ইভেন্টে ভারত-পাকিস্তান মুখোমুখি হয়েছে চারবার। যার মধ্যে দুইবার করে জিতেছে দুই দল। ২০০৪ সালে ইংল্যান্ডে হওয়া চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে ভারতকে ৩ উইকেটে হারিয়ে দিয়েছিল পাকিস্তান। এরই পুনরাবৃত্তি ঘটে ২০০৯-এ সেঞ্চুরিয়নে। পাকিস্তানের ৩০২ রানের জবাবে ভারতের ইনিংস শেষ হয়ে যায় ২৪৮ রানে। এরপর থেকে ধীরে ধীরে পরিসংখ্যানে উন্নতি ঘটায় টিম ইন্ডিয়া। ২০১৩ সালের চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে ডাক-ওয়ার্থ লুইস পদ্ধতিতে পাকিস্তানকে দুই উইকেটে হারিয়ে দেয় ধোনির ভারত। চলতি চ্যাম্পিয়ান্স ট্রফিতেও পাকিস্তানকে হার স্বীকার করতে হয় ভারতের সামনে। আর আজকের ফাইনালটি শুধু ট্রফি জেতা নয়, জয়-পরাজয়ের পরিসংখ্যানেও এগিয়ে যাওয়ার ব্যাপারটা থাকছে ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :