রাত ৮:৪১, সোমবার, ২৪শে জুলাই, ২০১৭ ইং
/ আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি / লড়াই করে জেতার আনন্দই আলাদা: প্রধানমন্ত্রী
লড়াই করে জেতার আনন্দই আলাদা: প্রধানমন্ত্রী
জুন ১০, ২০১৭

চ্যাম্পিয়নস ট্রফিতে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে জয়ী বাংলাদেশ ক্রিকেট দলকে অভিনন্দন জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ‘লড়াই করে জেতার আনন্দই আলাদা। এমন লড়াইয়ের ধারাবাহিকতা অব্যাহত রাখতে হবে। আমাদের জয় আসবেই।’

মূলত সাকিব আল হাসান আর মাহমুদউল্লাহর কাঁধে চড়ে কিউইদের বিপক্ষে ৫ উইকেটে জিতল মাশরাফি বাহিনী। পাশাপাশি রেকর্ডের খাতায় নাম লেখালেন সাকিব-রিয়াদ। এর আগে যেকোনো উইকেটে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ ছিল ১৭৮ রান। ২০১৫ সালে পাকিস্তানের বিপক্ষে তামিম ইকবাল এবং মুশফিকুর রহিম তৃতীয় উইকেটে ওই সংগ্রহ গড়েছিলেন।

আজ কার্ডিফে বাংলাদেশের ক্রিকেট ইতিহাসের সেরা জুটির রেকর্ড উপহার দিলেন সাকিব-রিয়াদ। শুরুর দিকে টপাটপ চার উইকেট হারিয়ে বিপাকে পড়া বাংলাদেশকে টানছেন এই মানিকজোড়। শেষ পর্যন্ত সাকিব-রিয়াদ জুটি থেকে টাইগারদের স্কোরবোর্ডে জমা পড়ে ২২৪ রান। ১১৪ করে ফিরে যান সাকিব আর ১০২ রান করে দলকে জিতিয়ে মাঠ ছাড়েন রিয়াদ।

ইনিংসের শুরুতে শূন্য রানে ফিরে যান তামিম ইকবাল। প্রথম ম্যাচে শতক, পরের ম্যাচে ৯৫ রান করা তামিম আজ পারলেন না। টিম সাউদির বলে এলবিডব্লিউ হওয়ার পর রিভিউ নিয়েছিলেন তিনি। তাতেও হয়নি শেষ রক্ষা।

৮ রান করে সাজঘরে ফেরেন সাব্বিরও। শুরু করেছিলেন পরপর দুই বলে চার হাঁকিয়ে। কিন্তু নিজের দ্বিতীয় ওভারে টপ অর্ডারে ফেরা সাব্বির রহমানকে বিদায় করেন টিম সাউদি। একই পথে হাঁটেন সৌম্য সরকার। আউট হওয়ার আগে ১৩ বলে করেন ৩ রান।

এর আগে স্লগ ওভারে মোসাদ্দেক হোসেনের দারুণ বোলিংয়ে কিউইদের ২৬৫ রানে আটকে দেয় মাশরাফি বিন মুর্তজার দল। ৩ ওভারে ১৩ রান খরচায় ৩ উইকেট নিয়েছেন মোসাদ্দেক। ৪৩ রানে ২ উইকেট তাসকিনের। ৬০ রানে ১ উইকেট শিকার করেন রুবেল। মোস্তাফিজ ৫২ রানে নিয়েছেন ১ উইকেট। মাশরাফি ও সাকিব উইকেট না পেলেও নিয়ন্ত্রিত বোলিং করেছেন।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :