রাত ৩:৩৪, শনিবার, ২০শে অক্টোবর, ২০১৭ ইং
/ ফুটবল / রোনালদোর সামনে আজ মেক্সিকো
রোনালদোর সামনে আজ মেক্সিকো
জুন ১৮, ২০১৭

পর্তুগালকে প্রথমবারেরমত ইউরো চ্যাম্পিয়নশিপের শিরোপা এনে দেয়ার পর এবার ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর সামনে একটি বৈশ্বিক শিরোপা জয়ের সুযোগ। যে টুর্নামেন্টে খেলারই সুযোগ পায়নি লিওনেল মেসি। চার বছর আগে এই শিরোপাটি জিতেছিলেন নেইমার। এবার ফিফা কনফেডারেশন্স কাপের পোস্টার বয় ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো। নিজেদের প্রথম ম্যাচেই কনকাকাফ অঞ্চলের চ্যাম্পিয়ন মেক্সিকোর মুখোমুখি রোনালদোর পর্তুগাল।

এ বছর কী জেতেননি রোনালদো। রিয়াল মাদ্রিদকে উপহার দিয়েছেন লা লিগা শিরোপা, উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের টানা দু’বারের শিরোপা। ইউরো চ্যাম্পিয়নশিপ। আরও কত কী। এবার তার সামনে আরও একটি মুকুট জয়ের সুবর্ণ সুযোগ। রাশিয়া থেকে তিনি যদি ফিফা কনফেডারেশন্স কাপ জিততে পারেন, তাহলে সেটা হবে ফুটবলে তার শ্রেষ্ঠত্ব নির্ধারণের আরও একটি গুরুত্বপূর্ণ ধাপ।

মেক্সিকোকে দিয়েই ফিফা কনফেডারেশন্স কাপের যাত্রা শুরু করছে ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর পর্তুগাল। যদিও রোনালদোকে ভয় পাচ্ছে না বলেই জানিয়েছে মেক্সিকো কোচ হুয়ান কার্লোস ওসোরিও। তবে কিভাবে রিয়াল মাদ্রিদের এই সুপারস্টারকে থামাবে, সে কথা কিন্তু জানাননি।

কনফেডারেশন্স কাপে নিজেদের প্রথম ম্যাচের আগেই কিভাবে রোনালদোকে থামাবেন? এ প্রশ্নের মুখোমুখি হতে হয়েছে মেক্সিকো কোচকে। যেমনটা প্রশ্নের মুখোমুখি হতে হয় অধিকাংশ কোচকেই। প্রায় সবাই একটা না একটা উত্তর দিয়ে যান এবং ম্যাচে নেমে ভুল করেন। মেক্সিকো কোচ একটু কুটনৈতিক হওয়ার চেষ্টা করলেন। চুপ থাকাকেই হয়তো স্রেয় মনে করলেন তিনি।

তবুও পর্তুগিজ তারকার প্রতি সম্মান এবং শ্রদ্ধা রেখেই বললেন, তারা তাকে ভয় পান না। মাঠে নামার আগে মেক্সিকো ফুটবলাররা খুব ভালো করে রোনালদোর খেলার ভিডিও দেখলেন। কৌশল তৈরির চেষ্টা করলেন। হয়তো সে অনুযায়ী মাঠে নিজেদের প্রয়োগ করার চেষ্টাও করবেন।

মেক্সিকো ডিফেন্ডার কার্লোস সালসেডো ইএসপিএনকে বলেন, ‘বিশ্বের যে কোনো ফুটবলারকে মার্কিং করতে আমি কোনো ভয় পাই না। তিনি ক্লাব পর্যায়ে হোক আর জাতীয় দলের পর্যায়ে যত বড় তারকা হোন। কোচ ওজারিও জানেন কিভাবে একজন ফুটবলারকে থামাতে হয়। এটা শুধু কার্লোস সালসেডোর একার দায়িত্ব নয়। পুরো দলেরই দায়িত্ব। আমরা শুধু চাই সাফল্য।’



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :