রাত ১০:৪৫, শুক্রবার, ২৪শে নভেম্বর, ২০১৭ ইং
/ আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি / ফাইনালে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ভারত ও পাকিস্তান
ফাইনালে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ভারত ও পাকিস্তান
জুন ১৫, ২০১৭

হট ফেবারিট ইংল্যান্ড বধ করে প্রথমবারের মতো চ্যাম্পিয়নস ট্রফির ফাইনাল নিশ্চিত করে পাকিস্তান। বাংলাদেশকে ৯ উইকেটে হারিয়ে হারিয়ে দ্বিতীয় দল হিসেবে শিরোপা নির্ধারণীতে পা রাখলো ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন ভারত।

বাংলাদেশের ছুঁড়ে দেওয়া ২৬৫ রানের লক্ষ্যটা ৯.৫ ওভার হাতে রেখে অনায়াসেই টপকে যায় টিম ইন্ডিয়া। রোহিত শর্মা ১২৩ ও অধিনায়ক বিরাট কোহলি ৯৬ রানে অপরাজিত থেকে মাঠ ছাড়েন।

এর মাধ্যমে পুরোদুস্তর দক্ষিণ এশিয়ার ফাইনালে পরিণত হচ্ছে এই টুর্নামেন্ট। পাশাপাশি আরেকবার ভারত-পাকিস্তান দ্বৈরথ দেখার অপেক্ষায় ক্রিকেটভক্তরা। রোববার (১৮ জুন) লন্ডনের কেনিংটন ওভালে বাংলাদেশ সময় বিকেল সাড়ে ৩টায় হাইভোল্টেজ ম্যাচটি শুরু হবে।

ফাইনাল সামনে রেখে আত্মবিশ্বাসী জয়ই পেল ভারত-পাকিস্তান। গ্রুপ পর্বেও দুই দল মুখোমুখি হয়েছিল। বার্মিংহামে টুর্নামেন্টের ‘বি’ গ্রুপের চতুর্থ ম্যাচে গত ৪ জুন ম্যাচটি ডিএল পদ্ধতিতে ১২৪ রানের উড়ন্ত জয় পেয়েছিল কোহলির দল। শিরোপা লড়াইয়ে সরফরাজ আহমেদদের সামনে ঘুরে দাঁড়ানোর চ্যালেঞ্জ।

গ্রুপ সেরা ভারতের বিপক্ষে সেমিতে মুখোমুখি হয় অপর গ্রুপের রানারআপ বাংলাদেশ। সহজ জয়ে ফাইনাল নিশ্চিত করেছে অনীল কুম্বলের শিষ্যরা। এর আগে গ্রুপ পর্বে একটি ম্যাচ হেরেছে ভারত। সেটি শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে। বাকী আরেকটি ম্যাচ দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ৭২ বল হাতে রেখে ৮ উইকেটে জয় পেয়েছিল কোহলির দল।

অন্যদিকে, একই গ্রুপ থেকে শ্রীলঙ্কা ও দক্ষিণার আফ্রিকাকে হারিয়ে গ্রুপ রানার আপ হয়ে শেষ চারে জায়গা করে নেয় পাকিস্তান। টুর্নামেন্টের প্রথম সেমিফাইনালে বলতে গেলে অসহায় আত্মসমর্পণই করেছে স্বাগতিকরা। ব্যাটে-বলে সমান দাপট দেখিয়ে পাকিস্তান ম্যাচটি পকেটে পুড়েছে ৮ উইকেটের বড় ব্যবধানে। ফাইনালে জায়গা করে নিয়েছে র্যাংকিংয়ের আট নম্বর দলটি।

ফাইনালে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী দুই দলের আরেকটি দ্বৈরথ দেখতে পাবে দর্শকরা। একদিকে ভারতের ব্যাটিং। অপরদিকে পাকিস্তানের বোলিং। টুর্নামেন্টের সর্বোচ্চ রান সংগ্রহের তালিকায় শীর্ষ ছয়ে তিন ভারতীয় ব্যাটসম্যান (শিখর ধাওয়ান, রোহিত শর্মা ও বিরাট কোহলি) অবস্থান করছেন। অন্যদিকে, সর্বোচ্চ উইকেট শিকারির তালিকায় শীর্ষ ছয়ে আছেন পাকিস্তানের দুজন (হাসান আলী ও জুনায়েদ খান।)।

ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ ক্রিকেট ছাড়িয়ে যেন জাতীয়বাদের খেলায় পরিণত হচ্ছে। এর আগেও ২০০৭ সালে টি-২০ বিশ্বকাপের প্রথম আসরে ভারত-পাকিস্তান ফাইনাল দ্বৈরথ দেখেছিল ক্রিকেটপ্রেমীরা।

চ্যাম্পিয়নস ট্রফি কার কপালে জুটবে সেটা ১৮ তারিখেই নিশ্চিত হবে। তার আগে ভারত-পাকিস্তান উত্তেজনাপূর্ণ ম্যাচের পারদ ছড়িয়ে পড়বে বিশ্বজুড়ে।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :