রাত ৩:২৬, শনিবার, ২০শে অক্টোবর, ২০১৭ ইং
/ ক্রিকেট / পাকিস্তানকে অভিনন্দন বিরাট কোহলির
পাকিস্তানকে অভিনন্দন বিরাট কোহলির
জুন ১৯, ২০১৭

বিরাট কোহলির লা জবাব হয়ে যাওয়ারই কথা। যে দলটিকে গ্রুপ পর্বের ম্যাচে হেসে-খেলে হারিয়েছে, সেই দলটিই কি না ফাইনালে এসে এভাবে উল্টে গেলো। গ্রেটেস্ট কামব্যাক বুঝি একেই বলে। ভারতের কাছে বিধ্বস্ত হওয়ার পর যে দলটিকে সবাই বাতিলের খাতায় ফেলে দিয়েছিল তারাই কি না খেললো ফাইনাল এবং দাপটের সঙ্গেই জিতলো চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির শিরোপা।

এমন খেলার পর যে কেউ অভিনন্দন জানাবে পাকিস্তান। প্রতিপক্ষ অধিনায়ক বিরাট কোহলিও এর ব্যতিক্রম হবেন কেন! তিনি বরং, প্রতিক্রিয়া জানানো শুরুই করলেন পাকিস্তানকে অভিনন্দন জানিয়ে।

পুরস্কার বিতরনী অনুষ্ঠানের সময়ই দেখা গিয়েছিল মঞ্চের পাশে দাঁড়িয়ে ভারত এবং পাকিস্তানের ক্রিকেটাররা একে অপরের সঙ্গে হাসি-মুখে কথা বলছেন। যুবরাজ-হাফিজরা খুনসুটি করছেন। দেখে কে বলবে, একটু আগে তারা মহারণ শেষ করে এসেছে। পুরস্কার বিতরণের সময় যখন সঞ্চালক নাসের হুসেইন মঞ্চে ডেকে নিলেন বিরাট কোহলিকে, তখন তিনি শুরুতেই অভিনন্দন জানালেন পাকিস্তানকে।

বললেন, ‘দুর্দান্ত একটা টুর্নামেন্ট খেলার জন্য পাকিস্তানকে অভিনন্দন। বাজে একটা শুরুর পর যেভাবে তারা ঘুরে দাঁড়িয়েছে তাতে বোঝা যায়, দলটিতে প্রতিভার কমতি নেই। তারা আবারও প্রমাণ করেছে, নিজেদের দিনে তারা যে কাউকে চমকে দিতে পারে।’

নিজেদের হতাশার কথা জানাতে ভুললেন না কোহলি। তিনি বলেন, ‘আমাদের জন্য অবশ্যই হতাশার। যদিও আমি আমার মুখে হাসি ধরে রাখবো। কারণ, দুর্দান্ত খেলেই আমরা ফাইনালে উঠে এসেছি।’

আবারও পাকিস্তানকে ধন্যবাদ জানালেন কোহলি। তিনি বলেন, ‘অবশ্যই তাদের কৃতিত্ব দিতে হবে। কারণ, তারা আমাদেরকে ম্যাচ থেকে প্রতিটি ডিপার্টমেন্টেই পুরোপুরি বের করে দিয়েছিল। খেলাধুলায় এমন হতেই পারে। আমরা কাউকেই হালকাভাবে নেই না। এই দিনটিতে তারা ছিল সেরা। প্রতিটি ক্ষেত্রেই অসম্ভব সুন্দর খেলা প্রদর্শণ করেছে। বল হাতে আমরা উইকেট নিতে পারিনি। চেষ্টা করেছি নিজেদের সেরাটা খেলতে; কিন্তু বল এবং ব্যাট হাতে তারা ছিল সবচেয়ে বেশি আগ্রাসী। হার্দিক পান্ডিয়া ছাড়া আমরা কেউই ভালো করতে পারিনি। তার শটগুলো ছিলো দারুণ। বুমরাহর (নো বল) অপরাধটা খুব বড় নয়। এটা ক্রিকেটে ঘটতেই পারে।’



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :