সন্ধ্যা ৬:৪২, বৃহস্পতিবার, ২০শে জুলাই, ২০১৭ ইং
/ ক্রিকেট / পদত্যাগ পত্রে যা লিখলেন কুম্বলে
পদত্যাগ পত্রে যা লিখলেন কুম্বলে
জুন ২১, ২০১৭

ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলির সঙ্গে মতবিরোধের জেরে শেষ পর্যন্ত কোচের পদ থেকে পদত্যাগ করেছেন কুম্বলে। গতকাল (মঙ্গলবার) নিজের পদত্যাগপত্র ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিসিআই) কাছে জমা দিয়েছেন কুম্বলে। পদত্যাগ পত্রে ঠিক কী লিখেছেন সদ্য ভারতকে বিদায় জানানো এই কোচ, ভারতীয় গণমাধ্যম ওয়ান ইন্ডিয়া তা প্রকাশ করেছে। এবার তা দেখে নেওয়া যাক।

কুম্বলের পদত্যাগ পত্রঃ

“ক্রিকেট পরামর্শদাতা কমিটি আমার উপরে যেভাবে আস্থা দেখিয়ে কোচ পদে কাজ চালিয়ে যেতে বলেছিল তাতে আমি সম্মানিত। গত একবছরে সাফল্যের শ্রেয় অধিনায়ক, গোটা দল, কোচিং ও সাপোর্ট স্টাফদের।

গতকালই (১৯ জুন) আমাকে প্রথমবার বিসিসিআইয়ের তরফে বলা হয় যে অধিনায়কের আমার কাজ করার ধরন ও প্রধান কোচ থাকা নিয়ে আপত্তি রয়েছে। আমি অবাক হয়েছি কারণ কোচ ও অধিনায়কের মধ্যে সম্পর্ক নিয়ে আমি শ্রদ্ধাশীল ছিলাম। বিসিসিআই আমার ও অধিনায়কের মধ্যে ভুল বোঝাবুঝি দূর করতে এগিয়ে এসেছিল। সবমিলিয়ে এটা বোঝা যাচ্ছিল যে এই পার্টনারশিপ নড়বড়ে হয়ে গিয়েছে। ফলে আমার মনে হয়েছে, এখান থেকে বেরিয়ে আসা উচিত।

পেশাদারিত্ব, শৃঙ্খলা, দায়বদ্ধতা, সততা, ভিন্ন দৃষ্টিতে দেখার ক্ষমতা- এগুলি আনার চেষ্টা করেছি আমি। আর এগুলিই পার্টনারশিপ বা সম্পর্ক টিঁকিয়ে রাখতে সাহায্য করে। আমার মতে কোচের ভূমিকা হল দলের সামনে আয়না দেখানোর মতো যাতে দলের স্বার্থে আরও উন্নতির পথে হাঁটা যায়।

ফলে যখন আমার থাকা নিয়ে আপত্তির কথা শুনলাম তখন মনে হয়েছে দায়িত্ব অন্য কারও নেওয়াই ভালো। বিসিসিআই ও ক্রিকেট পরামর্শদাতা কমিটি যাকে ভালো মনে করবে দায়িত্ব দিতে পারে।

সবশেষে বলি, গত একবছরে প্রধান কোচ হিসাবে কাজ করাটা সম্মানের ছিল। আমি সেজন্য ক্রিকেট পরামর্শদাতা কমিটি ও বিসিসিআই ও ক্রিকেট প্রশাসক কমিটিকে ধন্যবাদ জানাই। ভারতীয় ক্রিকেটকে সমর্থন করার জন্য ক্রিকেটপ্রেমীদের ধন্যবাদ জানাই। আমি সারাজীবন দেশের ক্রিকেটের ভালোর জন্য শুভকামনা করে যাব।”

উল্লেখ্য, কুম্বলেকে ছাড়াই মঙ্গলবার ওয়েস্ট ইন্ডিজের উদ্দেশ্যে যাত্রা করে কোহলি-ধোনিরা। এরপরই ভারতীয় বোর্ডকে পদত্যাগের কথা জানিয়ে দেন কুম্বলে।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :