দুপুর ২:০৭, রবিবার, ২০শে আগস্ট, ২০১৭ ইং
/ ক্রিকেট / তামিমের শতকে ইংল্যান্ডের সামনে ৩০৬ রানের লক্ষ্য
তামিমের শতকে ইংল্যান্ডের সামনে ৩০৬ রানের লক্ষ্য
জুন ১, ২০১৭

সংক্ষিপ্ত স্কোর: বাংলাদেশ ৫০ ওভারে ৩০৫/৬

বাংলাদেশের তিনশ ছাড়ানো সংগ্রহ

তামিম ইকবালের শতক আর মুশফিকুর রহিমের অর্ধশতকে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির উদ্বোধনী ম্যাচে ইংল্যান্ডকে তিনশ ছাড়ানো লক্ষ্য দিয়েছে বাংলাদেশ। টস হেরে ব্যাট করতে নেমে মাশরাফি বিন মুর্তজার দল করেছে ৬ উইকেটে ৩০৫ রান।

নবম শতক পাওয়া তামিম ফিরেন ১২৮ রান করে। মুশফিক খেলেন ৭৯ রানের আরেকটি দারুণ ইনিংস। ৮ উইকেট হাতে নিয়ে শেষ ১০ ওভারে ৮২ রান সংগ্রহ করে বাংলাদেশ।

ইনিংস শেষে তামিম বলেছেন, ১৫ রান কম হয়ে গেছে তাদের সংগ্রহ। তবে তিনশ রানের ওপরে যে কোনো লক্ষ্যই কঠিন। বোলিংয়ে তারা নিজেদের সেরাটা দিয়ে ইংল্যান্ডকে থামানোর চেষ্টা করবে।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

বাংলাদেশ: ৫০ ওভারে ৩০৫/৬ (তামিম ১২৮, সৌম্য ২৮, ইমরুল ১৯, মুশফিক ৭৯, সাকিব ১০, সাব্বির ২৪, মাহমুদউল্লাহ ৬*, মোসাদ্দেক ২*; ওকস ০/৪, উড ০/৫৮, বল ১/৮২, স্টোকস ১/৪২, প্লানকেট ৪/৫৯, মইন ০/৪০, রুট ০/১৮)

ফিরলেন সাব্বিরও

৫০তম ওভারের প্রথম বলে লিয়াম প্লানকেটকে উড়ানোর চেষ্টায় লং অনে জো রুটকে ক্যাচ দিয়ে ফিরেন সাব্বির রহমান। ১৫ বলে তিনটি চারে ডানহাতি এই ব্যাটসম্যান ফিরেন ২৪ রান করে।

সাব্বিরের বিদায়ের সময় বাংলাদেশের স্কোর ৩০০/৬।

টিকলেন না সাকিব

জেইক বলকে উড়ানোর চেষ্টায় ফিরেন সাকিব আল হাসান। বাঁহাতি এই ব্যাটসম্যান নিজের জোনে বল পেলেও সীমানার বাইরে নিতে পারেননি। দুটি চারে ৮ বলে ১০ রান করে সাকিবের বিদায়ের সময় বাংলাদেশের স্কোর ২৭৭/৫।  সাব্বির রহমানের সঙ্গে ক্রিজে যোগ দিয়েছেন মাহমুদউল্লাহ।

পরপর দুই বলে তামিম-মুশফিকের বিদায়

১৬৬ রানের চমৎকার এক জুটিতে দলকে ভালো অবস্থানে পৌঁছে দেওয়া তামিম ইকবাল ও মুশফিকুর রহিম ফিরেছেন পরপর দুই বলে।

লিয়াম প্লানকেটের বলে উইকেটরক্ষক জস বাটলারের গ্লাভসবন্দি হন তামিম। ১৪২ বলে খেলা তার ১২৮ রানের ইনিংসটি গড়া ১২টি চার ও তিনটি ছক্কায়।

পরের বলে লং অফে সহজ ক্যাচ দিয়ে বিদায় নেন মুশফিক। ৭২ বলে ৭৯ রান করতে এই উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যান হাঁকিয়েছেন ৮টি চার।

৪৫ ওভার শেষে বাংলাদেশের স্কোর ২৬২/৪। প্লানকেটের হ্যাটট্রিক ঠেকিয়ে দেওয়া সাকিব আল হাসানের সঙ্গে ক্রিজে যোগ দিয়েছেন সাব্বির রহমান।

তামিম-মুশফিকের দেড়শ রানের জুটি

এশিয়ার বাইরে বাংলাদেশকে প্রথম দেড়শ রানের জুটি উপহার দিয়েছেন তামিম ইকবাল ও মুশফিকুর রহিম। ইমরুল কায়েসের বিদায়ের পর জুটি বাধা দুই ব্যাটসম্যানকে দলকে রেখেছেন বড় সংগ্রহের পথে।

এশিয়ার বাইরে ওয়ানডেতে দেশের আগের সেরা জুটিতেও ছিলেন মুশফিক। গত বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডের বিপক্ষেই মাহমুদউল্লাহর সঙ্গে পঞ্চম উইকেটে ১৪১ রানের জুটি গড়েছিলেন  এই উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যান।

৪৪ ওভার শেষে বাংলাদেশের স্কোর ২৫৯/২। তামিমের রান ১২৭, মুশফিকের ৭৮। দুই জনে জুটি বেধে তুলেছেন ১৬৪ রান।

৮ উইকেট হাতে নিয়ে শেষ ১০ ওভারে বাংলাদেশ

শেষ ১০ ওভারে বাংলাদেশ গেছে দুই থিতু ব্যাটসম্যান তামিম ইকবাল ও মুশফিকুর রহিমকে নিয়ে। দলটির হাতে রয়েছে ৮ উইকেট। শেষের দিকে দ্রুত রান তোলার সামর্থ্য আছে সাকিব আল হাসান, সাব্বির রহমান মাহমুদউল্লাহ, মোসাদ্দেক হোসেনদের।

৪০ ওভার শেষে বাংলাদেশের স্কোর ২২৩/২। ১২৭ বলে তামিমের রান ১০৬, ৫৯ বলে মুশফিকের ৬৩।

তামিমের দারুণ শতক

শাহরিয়ার নাফীসের পর বাংলাদেশের দ্বিতীয় ব্যাটসম্যান হিসেবে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে শতক করেছেন তামিম ইকবাল। আইসিসির কোনো ওয়ানডে টুর্নামেন্টে এটাই তার প্রথম তিন অঙ্কের স্কোর।

মইন আলির বলে স্কয়ার লেগে বল পাঠিয়ে ১২৪ বলে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে দ্বিতীয় ও ওয়ানডেতে সব মিলিয়ে নবম শতকে পৌঁছান তামিম।

শটের পসরা সাজিয়ে বসা বাঁহাতি উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান উপহার দিয়েছেন দারুণ কিছু পুল, কাভার ড্রাইভ, কাট, স্ট্রেইট ড্রাইভ। প্রতিপক্ষের ভালো বোলিং সামলেছেন সতর্কতার সঙ্গে। নিজের জোনে বল পেলে চড়াও হয়েছেন। শতকে পৌঁছানোর পথে হাঁকিয়েছেন ১১টি চার ও লংঅন দিয়ে বিশাল এক ছক্কা।

বাংলাদেশের দুইশ, তিনশতে চোখ

আইসিসির ওয়ানডে টুর্নামেন্টে নিজের প্রথম শতকের পথে থাকা তামিম ইকবালের ওপর থেকে চাপ কমাতে ইংলিশ বোলারদের ওপর চড়াও হন মুশফিকুর রহিম। জেইক বলকে আপার কাটে দারুণ এক চার হাঁকিয়ে ৩৮তম ওভারে দলকে নিয়ে যান দুইশ রানে।

৩৮ ওভার শেষে বাংলাদেশের স্কোর ২০৯/২। তামিমের রান ৯৭, মুশফিকের ৬০।

মুশফিকের অর্ধশতক, জুটির শতক

শুরু থেকে রানের জন্য মনোযোগী মুশফিকুর রহিম ৪৮ বলে পৌঁছেছেন অর্ধশতকে। ডানহাতি এই ব্যাটসম্যান এক-দুই রান নিয়ে সচল রেখেছেন রানের চাকা। কাভার ড্রাইভ, কাট আর পুলে হাঁকিয়েছেন চারটি চার।

জো রুটকে চার মেরে নিজের অর্ধশতকের সঙ্গে তামিম ইকবালের সঙ্গে তৃতীয় উইকেট জুটির রান তিন অঙ্কে নিয়ে যান মুশফিক। দুই জনের দারুণ ব্যাটিংয়ে তিনশ রানের পথে রয়েছে বাংলাদেশ।

তামিম-মুশফিকের অর্ধশত রানের জুটি

বেন স্টোকসকে পুল করে চার হাঁকিয়ে তৃতীয় উইকেট জুটিকে অর্ধশত রানে নিয়ে গেছেন মুশফিকুর রহিম। ডানহাতি এই ব্যাটসম্যান শুরু থেকেই রানের গতি বাড়াতে মনোযোগী। তৃতীয় উইকেট জুটিতে তার সঙ্গী তামিম ইকবাল খেলছেন নিজের মতো করেই।

২৮ ওভার শেষে বাংলাদেশের স্কোর ১৫০/২। ৮৮ বলে তামিমের রান ৭১ ও মুশফিক ২৬ বলে ২৯।

২২ ওভার শেষে বাংলাদেশের সংগ্রহ ২ উইকেটে ১০৮ রান। তামিমের রান ৫০, মুশফিকের ৮।

বাংলাদেশের একশ পার, তামিমের অর্ধশতক

লিয়াম প্লানকেটের বলে মুশফিকুর রহিমের চারে ২২তম ওভারে বাংলাদেশের স্কোর একশ ছাড়ায়। সেই ওভারেই কাট করে চার হাঁকিয়ে অর্ধশতকে পৌঁছান তামিম ইকবাল।

৭১ বলে পঞ্চাশ স্পর্শ করেন বাঁহাতি এই উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান। এই সময়ে তার ব্যাট থেকে আসে ৭টি চার।

থিতু হয়ে আউট ইমরুলও

সৌম্য সরকারের মতো থিতু হয়ে ফিরেন টপ অর্ডারের আরেক ব্যাটসম্যান ইমরুল কায়েসও। লিয়াম প্লানকেটের অফ স্টাম্পের বাইরের বল স্লগ করতে গিয়ে ধরা পড়েন মার্ক উডের হাতে। মিড অন থেকে খানিকটা দৌড়ে ঝাঁপিয়ে দুই হাতেবল মুঠোয় নেন তিনি।

২০ বলে তিনটি চারে ১৯ রান করে ইমরুল ফেরার সময় বাংলাদেশের স্কোর ৯৫/২। ৪৫ রানে ব্যাট করা তামিম ইকবালের সঙ্গে ক্রিজে যোগ দিয়েছেন মুশফিকুর রহিম।

সৌম্যর বিদায়ে ভাঙল অর্ধশত রানের জুটি

মাঝে নিজেকে গুটিয়ে নেওয়া সৌম্য মাত্রই নিজেকে মেলে ধরতে শুরু করেছিলেন।  বাঁহাতি এই ব্যাটসম্যানকে ফিরিয়ে বাংলাদেশের অর্ধশত রানের উদ্বোধনী জুটি ভেঙেছেন বেন স্টোকস।

ইংলিশ অলরাউন্ডারের অফ স্টাম্পের বাইরের বলটি মারার মতোই ছিল। সৌম্যর আপার কাটে সহজ ক্যাচ যায় সরাসরি ডিপ কাভারের ফিল্ডারের কাছে। ৩৪ বলে চারটি চার আর একটি ছক্কায় সৌম্য ফিরেন ৩৪ রান করে।

১২ ওভার শেষে বাংলাদেশের স্কোর ৫৬/১। ২৬ রান করা তামিম ইকবালের সঙ্গে ক্রিজে যোগ দিয়েছেন ইমরুল কায়েস।

প্রথম পাওয়ার প্লেতে ৩৬ রান

ধীরে ধীরে খোলস থেকে বের হয়ে আসতে শুরু করেছেন তামিম ইকবাল। প্রথম ২১ বলে ৮ রান সংগ্রহ করা বাঁহাতি উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান ৩৫ বলে করেছেন ২৩ রান। তার ব্যাট থেকে এসেছে চারটি চার।

শুরুতে শট খেলা সৌম্য সরকার নিজেকে খানিকটা গুটিয়ে নেন। এক সময়ে ১১ বলে ১০ রান করা এই বাঁহাতি উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান পরের ১৪ বলে করেছেন ২ রান।  ১০ ওভার শেষে বাংলাদেশের স্কোর ৩৬/০।

জীবন পেলেন সৌম্য

জেইক বলের ওভারের আগের পাঁচটি বল খেললেন ডট। ষষ্ঠ বলে চড়াও হতে গেলেন সৌম্য সরকার। স্কয়ার লেগে সহজ ক্যাচ গেল মইন আলির কাছে, কিন্তু মুঠোয় নিতে পারেননি ইংলিশ অলরাউন্ডার।

সে সময় ১১ রানে ছিলেন সৌম্য। ৭ ওভার শেষে বাংলাদেশের স্কোর ২০/০।

সতর্ক তামিম, আত্মবিশ্বাসী সৌম্য

মেডেন দিয়ে শুরু করা বাংলাদেশ এগোচ্ছে ধীর গতিতে। এক প্রান্তে নিজেকে পুরোপুরি গুটিয়ে রেখেছেন তামিম ইকবাল। সুযোগ পেলেন শট খেলছেন আরেক বাঁহাতি উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান সৌম্য সরকার।

৫ ওভার শেষে বাংলাদেশের স্কোর ১৪/০। তামিম ১৭ বলে ৩ আর সৌম্য ১৩ বলে ১০।

একাদশে ইমরুল, নেই মিরাজ

তিন পেসারের সঙ্গে তিন স্পিনিং অলরাউন্ডার নিয়ে একাদশ সাজিয়েছে বাংলাদেশ। একাদশে ফিরেছেন ইমরুল কায়েস। গত ডিসেম্বরে শেষ দেশের হয়ে ওয়ানডে খেলা এই বাঁহাতি টপ অর্ডার ব্যাটসম্যান একাদশে ফেরায় মিডল অর্ডারে ব্যাটিং করবেন সাব্বির রহমান।

নিউ জিল্যান্ডের বিপক্ষে ত্রিদেশীয় সিরিজের শেষ ম্যাচে খেলা দল থেকে বাদ পড়েছেন নাসির হোসেন। চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির দলেই নেই তিনি। তার জায়গাতেই একাদশে ফিরেছেন ইমরুল।

প্রথম ম্যাচে একাদশে নেই তাসকিন আহমেদ, শফিউল ইসলাম, সানজামুল ইসলাম ও মেহেদী হাসান মিরাজ। অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজার সঙ্গে পেস বোলিংয়ে আছেন রুবেল হোসেন ও মুস্তাফিজুর রহমান। স্পিনে সাকিব আল হাসানের সঙ্গে আছেন মাহমুদউল্লাহ ও মোসাদ্দেক হোসেন।

বাংলাদেশ একাদশ: তামিম ইকবাল, সৌম্য সরকার, ইমরুল কায়েস, মুশফিকুর রহিম, সাকিব আল হাসান, সাব্বির রহমান, মাহমুদউল্লাহ, মোসাদ্দেক হোসেন, মাশরাফি বিন মুর্তজা, মুস্তাফিজুর রহমান, রুবেল হোসেন।

ইংল্যান্ড একাদশ: ওয়েন মর্গ্যান, মইন আলি, জেইক বল, জস বাটলার, অ্যালেক্স হেলস, লিয়াম প্লানকেট, জো রুট, জেসন রয়, বেন স্টোকস, ক্রিস ওকস, মার্ক উড।

টস হেরে ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ

লন্ডনের কেনিংটন ওভালে বৃহস্পতিবার চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির উদ্বোধনী ম্যাচে বাংলাদেশের বিপক্ষে টস জিতে ফিল্ডিং নিয়েছেন ইংল্যান্ডের অধিনায়ক ওয়েন মর্গ্যান। টস জিতলে মাশরাফি বিন মুর্তজাও ফিল্ডিং নিতেন। ভালো সংগ্রহ গড়ার সঙ্গে ফিল্ডিংয়েও উন্নতির আশার কথা জানিয়েছেন বাংলাদেশের অধিনায়ক।

চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে বাংলাদেশের ফেরা

১০ বছরের মধ্যে প্রথমবারের মতো চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে ফিরেছে বাংলাদেশ। ২০০৬ সালের আসরে খেলা দলটি দর্শক হয়ে ছিল ২০০৯ ও ২০১৩। মাশরাফি বিন মুর্তজা ও সাকিব আল হাসান ছাড়া এই টুর্নামেন্টে খেলার অভিজ্ঞতা নেই কারোর।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :