রাত ৮:৩৬, সোমবার, ২৪শে জুলাই, ২০১৭ ইং
/ ক্রিকেট / ওয়েস্ট ইন্ডিজের ভবিষ্যৎ নিয়ে শঙ্কায় স্যামি
ওয়েস্ট ইন্ডিজের ভবিষ্যৎ নিয়ে শঙ্কায় স্যামি
জুন ২১, ২০১৭

ওয়েস্ট ইন্ডিজের ক্রিকেট এখন খাদের কিনারে! আফগানিস্তানের মতো দলের সঙ্গে ১৩৫ রান তুলতেই হিমশিম খেতে হচ্ছে ক্যারিবিয়দের। অথচ যারা ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলকে নিয়ে যেতে পারে শিখরে, তা দাপিয়ে খেলছেন বিশ্বের ঘরোয়া লিগগুলোতে।

ওয়েস্ট ইন্ডিজ বোর্ডের (সিডব্লুআই) নিয়ম-কানুনের কারণেই ক্রিস গেইল, ডোয়াইন ব্রাভোদের জায়গা হচ্ছে না জাতীয় দলের ওয়ানডে ও টেস্ট দলে। ওয়েস্ট ইন্ডিজের ভবিষ্যৎ নিয়ে তাই শঙ্কায় পড়েছেন ড্যারেন স্যামি।

বোর্ডের নিয়ম বলছে, দেশটির ঘরোয়া লিগে না খেললে টেস্ট ও ওয়ানডে দলে জায়গা হবে না। আর বিশ্বের ঘরোয়া টি-টোয়েন্টিতে ক্যারিবিয়ান ক্রিকেটারদের বেশ কদর। সঙ্গে কাড়ি কাড়ি অর্থের হাতছানি। সব মিলে ঘরোয়া লিগে খেলছেন না গেইলরা। তাই জাতীয় দলের বাইরে থাকতে হচ্ছে। আসতে পারছেন না কেন্দ্রীয় চুক্তিতেও।

৩৩ বছর বয়সী স্যামির আপত্তি বোর্ডের পরিচালনা পরিষদ নিয়ে। বোর্ড প্রশাসকদের নিয়ম-কানুন স্যামির পছন্দ নয়। ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেটকে নিয়ে ভয়টা হয়তো সেখান থেকেই। এভাবে চলতে থাকলে ক্যারিবিয়ানরা হারিয়ে ফেলবে তাদের ঐতিহ্য।

সোমবার বিবিসি রেডিও ফাইভ লাইভে ড্যারেন স্যামি বলেন, ‘বর্তমান প্রশাসনকে দিয়ে কিছু হবে বলে মনে হয় না! আপনি তো একজন খেলোয়াড়কে বিদেশি টি-টোয়েন্টি লিগে খেলতে নিষেধ করতে পারেন না। এর মাধ্যমেই তো তারা আর্থিকভাবে সচ্ছল হয়। পরিবার পরিচালনা করে থাকে।’

ওয়েস্ট ইন্ডিজ দুবার টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ জিতেছে। ২০১২ ও ২০১৬ সালে। টি-টোয়েন্টিতে ভালো করলেও অন্য ফরম্যাটে (টেস্ট ও ওয়ানডে) বাজে সময় পার করছে ক্যারিবীয় ক্রিকেট। এর পেছনে বোর্ডের দুর্বল অবকাঠামোকেই দায়ী করছেন স্যামি।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের হয়ে দুবার বিশ্বকাপজী দলের অধিনায়কের ভয়, ‘আমাদের ক্রিকেট যেভাবে চলছে, তাতে বেশি কিছু আশা করতে পারি না। আমার খুব ভয় হয় যে, একদিন কিনা অবনমিত হয়ে আয়ারল্যান্ড ও স্কটল্যান্ডের সঙ্গে খেলতে হয়। এটা আমাদের ক্রিকেটের জন্য খুবই দুঃখজনক।’



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :