রাত ১:০০, শনিবার, ২৩শে জুন, ২০১৭ ইং
/ ক্রিকেট / নারী ক্রিকেটের নিজস্ব পরিচিতির চেষ্টায় আইসিসি
নারী ক্রিকেটের নিজস্ব পরিচিতির চেষ্টায় আইসিসি
মে ৯, ২০১৭

ক্রিকেট বিশ্বে পুরুষ ও নারী ক্রিকেটের মধ্যে ব্যবধান অনেক। বিশ্বায়নের এই যুগে ছেলেদের ক্রিকেট বিশ্বের প্রতিটি বোর্ডের কাছে যতটা গুরুত্ব পায় নারীদের ক্রিকেট যেন ততটাই অচ্ছুত ও উপেক্ষিত। এর সুস্পষ্ট একটি প্রভাব আন্তর্জাতিক বাজারেও। ছেলেদের ক্রিকেটের জন্য যেভাবে স্পন্সর প্রতিষ্ঠানগুলো এগিয়ে আসে নারী ক্রিকেটের প্রতি ঠিক ততটাই বিমুখ।
সমস্যাটি বাংলাদেশ নারী ক্রিকেটের পাশাপাশি অস্ট্রেলিয়া, ভারত, ইংল্যান্ড ও আইসিসি-র স্থায়ী অন্যান্য সদস্যদের ক্ষেত্রেও বিদ্যমান। সঙ্গত কারণেই ‘অস্তিত্ব সংকটের’ মুখে নারী ক্রিকেট। আর নারী ক্রিকেটের এমন সমস্যা সমাধানে নড়েচড়ে বসেছে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের অভিভাবক সংস্থা আইসিসি। ছেলেদের ক্রিকেটের অনুরূপ বিশ্বব্যাপী নারী ক্রিকেটেরও একটি নিজস্ব পরিচিতি এনে দিতে নতুন নতুন কার্যক্রম শুরু করেছে। গত ২৩ ও ২৪ এপ্রিল দুবাইয়ে অনুষ্ঠিত হয়েছে নারী ক্রিকেটের সামগ্রিক উন্নয়ন নিয়ে আইসিসি-র দুই দিনের এক কর্মশালা। যেখানে বিশ্বের অন্যান্য দেশগুলোর সাথে বাংলাদেশের পক্ষ থেকে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ ক্রিকেটের ন্যাশনাল গেমস ডেভেলপমেন্টের প্রধান নাজমুল আবেদীন ফাহিম। মঙ্গলবার বিসিবি-তে সেই কর্মশালার কথাই তুলে ধরেন গণমাধ্যমে। ফাহিম জানান, এখনও মনে করা হয় যে নারী ক্রিকেট হলো ছেলেদের ক্রিকেটের বর্ধিতাংশ। ওদের নিজস্ব একটি পরিচিতি দরকার। এটি ছাড়া নারী ক্রিকেটকে বাঁচানো যাবে না। সবার মনে রাখা উচিত নারী ক্রিকেট একটি আলাদা বিষয়। সেটা প্রথমে প্রতিষ্ঠিত করা জরুরি।
তিনি আরও জানান, কীভাবে আমরা তাদের ঘরোয়া ক্রিকেটে আরও উন্নতি করতে পারি, তাদের কোন ফর্মেটকে উৎসাহিত করতে পারি সেই বিষয়েও আলোচনা হয়েছে। মেয়েদের জন্য আলাদা নারী কোচের ব্যবস্থা করা, তাদের আলাদাভাবে কোচিংয়ে নিয়ে আসা, নতুন নতুন সুযোগ তৈরী করা। তাছাড়া তাদের বল কেমন হতে পারে, তাদের জন্য আলাদা ক্রিকেট সামগ্রী তৈরী করা যায় কী না এমন বিষয়ের ওপর গুরুত্বা দেয়া হয়। কর্মশালায় নারী ক্রিকেটের টেকসই উন্নয়নের বিষয়টিও আলোচনা এসেছে বলে জানন, ন্যাশনাল গেমস ডেভেলপমেন্ট প্রধান।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :