সকাল ৮:৪৩, বুধবার, ২৬শে জুলাই, ২০১৭ ইং
/ হকি / সেনাবাহিনী আবারো চ্যাম্পিয়ন
এটিএন বাংলা জাতীয় হকি গোল্ডকাপ
সেনাবাহিনী আবারো চ্যাম্পিয়ন
মে ১৮, ২০১৭

এটিএন বাংলা জাতীয় হকি গোল্ডকাপ টুর্নামেন্টের শিরোপা জিতলো বাংলাদেশ সেনাবাহিনী। মাত্র এক আসর পরই জাতীয় হকির শিরোপা পুনরুদ্ধার করলো তারা। বৃহস্পতিবার মওলানা ভাসানী হকি স্টেডিয়ামে ৩১তম জাতীয় হকি গোল্ডকাপের ফাইনালে টাইব্রেকারে বাংলাদেশ নৌবাহিনীকে ৮-৭ গোলে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয় সেনাবাহিনী। এরআগে, ২০১৩ সালে শিরোপা জিতেছিল তারা। ২০১৫ সালে সেনাবাহিনীকে হারিয়ে শিরোপা জিতেছিল ফরিদপুর জেলা। এবার তারা সেমিফাইনালের আগেই বিদায় নেয়।
জাতীয় দলের তারকা সমৃদ্ধ নৈবাহিনী তিনবার ম্যাচে পিছিযে পড়েও সমতা আনে। তবে ব্যর্থ হয় তারা পেনাল্টি শ্যূট আউটে। ফাইনালের আট মিনিটেই এগিয়ে যায় সেনাবাহিনী। গোল করেন হাসান যুবায়ের নিলয় (১-০)। ১৭ মিনিটের মাথায় ম্যাচে সমতা ফেরায় নৌবাহিনীর রোমান সরকার (১-১)। ২০ মিনিটে সেনাবাহিনীর মনোজ বাবু পেনাল্টি কর্নার থেকে গোল করে এগিয়ে দেন দলকে (২-১)। ২৯ মিনিটে নৌবাহিনীর আশরাফুল পেনাল্টি কর্নার থেকে গোল করে আবারো সমতা ফেরান (২-২)। ৩৭ মিনিটে তৃতীয়বারের মতো এগিয়ে যায় সেনাবাহিনী। এবার হাসান যুবায়ের নিলয় গোল করেন (৩-২)। দুই মিনিট পরেই নৌবাহিনীর রাসেল মাহমুদ জিমি গোল করে আবারো সমতা ফেরান (৩-৩)। সমতা নিয়েই শেষ হয় নির্ধারিত সময়ের খেলা। এরপর ম্যাচ গড়ায় টাইব্রেকারে। সেখানে নৌবাহিনীর ফরহাদ আহমেদ শিটুল, দ্বীন ইসলাম ইমন, ফজলে হোসেন রাব্বি, ও রাসেল মাহমুদ জিমি গোল করলেও মিস করেন রোমান সরকার। অন্যদিকে সেনাবাহিনীর সাব্বির রানা, রোকনুজ্জামান, শফিকুল ইসলাম, পুরস্কর খিসা মিমো ও আহসান হাবিবকে ফাউল করলে সাব্বির রানা স্ট্রোক থেকে গোল করেন। ফলে টাইব্রেকারে জয় পায় সেনাবাহিনী।
১৯৭৪ সাল থেকে শুরু হওয়া এ আসরে সবচেয়ে সফল দল বাংলাদেশ সেনাবাহিনী। এ নিয়ে তারা সর্বাধিক ১৪ বার শিরোপা জিতেছে। ১৯৮১, ৮২, ৮৩, ৮৪, ৮৫, ৮৬ ও ৮৮ সালে (১৯৮৭ সালে টুর্নামেন্ট অনুষ্ঠিত হয়নি) টানা সাতবার (ডাবল হ্যাটট্রিক) চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল। দ্বিতীয় সফল দল ঢাকা জেলা। তারা চ্যাম্পিয়ন হয়েছে নয় বার। এর মধ্যে টানা চারবার জেতে তারা ১৯৯৭, ৯৮, ৯৯ ও ২০০২ (২০০১ সালে টুর্নামেন্ট অনুষ্ঠিত হয়নি)।
ফাইনাল শেষে পুরস্কার প্রদান করেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম। এ সময় উপস্থিত ছিলেন বিমান বাহিনী ভারপ্রাপ্ত প্রধান এয়ার ভাইস মার্শাল মশিউজ্জামান সেরনিয়াবত, স্পন্সর প্রতিষ্ঠান এটিএন বাংলার উপদেষ্টা অনুষ্ঠান নওয়াজেশ আলী খান, হকি ফেডারেশনের সহ-সভাপতি খাজা রহমতউল্লাহ ও টুর্নামেন্ট কমিটির সম্পাদক মাহবুব এহসান রানা।
চ্যাম্পিয়ন দল বাংলাদেশ সেনাবাহিনী এক লাখ টাকা ও ট্রফি পায়। রানার্স আপ বাংলাদেশ নৌবাহিনী পঞ্চাশ হাজার টাকা ও ট্রফি পায়। টুর্নামেন্ট সেরা শফিকুল ইসলাম (সেনাবাহিনী) দশ হাজার টাকা ও ট্রফি পান। সর্বোচ্চ গোলদাতা সেনাবাহিনীর মিলন হোসেন (৩৫ গোল) দশ হাজার টাকা ও ট্রফি পান। টুর্নামেন্টে তৃতীয় হয়েছে ঢাকা জেলা এবং চতুর্থ হয়েছে ঢাকা শিক্ষা বোর্ড। তৃতীয় স্থানের দল ঢাকা জেলা বিশ হাজার টাকা প্রাইজমানি ও ট্রফি পায়।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :