রাত ১২:৫৮, শনিবার, ২৩শে জুন, ২০১৭ ইং
/ ফুটবল / ড্র করে হোঁচট খেলো আবাহনী
ওয়ালটন ফেডারেশন কাপ ফুটবল
ড্র করে হোঁচট খেলো আবাহনী
মে ১৩, ২০১৭

ওয়ালটন ফেডারেশন কাপের উদ্বোধনী ম্যাচে ঢাকা আবাহনীকে জিততে দিলো না সাইফ স্পোর্টিং ক্লাব। প্রথমার্ধে এগিয়ে গিয়েও শেষ পর্যন্ত ১-১ গোলে ড্র করে সাইফের সঙ্গে পয়েন্ট ভাগাভাগি করে ঢাকার জায়ান্ট আবাহনী লিমিটেড।
ফেডারেশন কাপ দিয়ে ঘরোয়া ফুটবলের নতুন মৌসুম শুরু হয়েছে আজ। শনিবার বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে বিকাল পাঁচটায় উদ্বোধনী ম্যাচে আবাহনীর প্রতিপক্ষ ছিল নবাগত সাইফ এসসি। তারকা সমৃদ্ধ সাইফ এসসির বিরুদ্ধে জয়ের পথেই হাঁটছিল ঐতিহ্যবাহীরা। কিন্তু শেষ পর্যন্ত আর আকাশী-নীল শিবিরকে জিততে দেয়নি প্রথমবারের মতো পেশাদার লিগ খেলার ছাড়পত্র পাওয়া দলটি। দুই লাল কার্ডের ম্যাচটি ১-১ গোলে ড্র হয়েছে।
ম্যাচ শুরুর ১৩ মিনিটেই দুই দলের দুই ডিফেন্ডার লাল কার্ড দেখে মাঠ ছাড়েন। আবাহনীর অধিনায়ক মামুন মিয়া ও সাইফ এসসির সর্বোচ্চ পারিশ্রমিকপ্রাপ্ত ডিফেন্ডার তপু বর্মন লাল কার্ড দেখেন।
বল মাঠে গড়ানোর পর পরই আক্রমন-পাল্টা আক্রমনে ম্যাচ জমে উঠেছিল। কিন্তু দশ মিনিটের সময় আবাহনীর গাম্বিয়ান ফরোয়ার্ড ল্যান্ডিংকে রাফ ট্যাকল করেন সাইফ এসসির এক ফুটবলার। রেফারী ফাউলের নির্দেশ দেয়ার পর ল্যান্ডিং ঐ ফুটবলারকে লাথি মারেন। দু’দলের ফুটবলারই মুখোমুখি অবস্থানে চলে আসলে রেফারী তাদের থামানোর চেষ্টা করেন। এ সময় মামুন মিয়াকে পেছন দিয়ে পা দিয়ে আঘাত করেন তপু বর্মন। মামুন মিয়াও পাল্টা আক্রমন করেন তপুকে। সাথে সাথেই রেফারী মিজানুর রহমান দু’জনকেই লাল কার্ড দেখিয়ে মাঠ ছাড়া করেন।
এরপরই যেনো ম্যাচের চিত্র পাল্টে যায়। লাল কার্ডের আগ পর্যন্ত ম্যাচে দু’দলই আক্রমন-পাল্টা আক্রমনে জমিয়ে তুলেছিল। দশ জনের দল পরিনত হওয়ার পর দু’দলের খেলাতেই ঘটে ছন্দপতন। অতিতের মতো সের ম্যারম্যারে ম্যাচই দেখেছে গ্যালারীতে উপস্থিত শ’দুয়েক দর্শক। দুই শিবিরেই বিদেশী কোচ। তারপরও খেলায় কোনো উন্নতির ছোঁয়া দেখা যায়নি।
ম্যাচে প্রথম লিড নেয় আকানী-নীল শিবির। গোলের দেখা পেতে তাদেরকে অপেক্ষায় থাকতে হয়েছে প্রথমার্ধের ইনজুরি টাইম পর্যন্ত। আরিফের লম্বা থ্রু থেকে এমেকা স্লাইডিং হেডে বল জালে জড়ান (১-০)। উৎসবে মেতে উঠে আকানী-নীল শিবির। ফুরফুরে মেজাজেই ড্রেসিং রুমে বিরতিতে যায় দ্রাগো মামিচের শিষ্যরা। আর সাইফ শিবির হতাশা নিয়ে মাঠ ছাড়লেও খেলার ফেরার মন্ত্র খুঁজতে থাকে। ড্রেসিং রুম থেকে সেই মন্ত্র নিয়েই যেনো দ্বিতীয়ার্ধে মাঠে নামে।
আবাহনী শিবিরে এ অর্ধে বেশ কয়েকবার বল চাপিয়েছিল। কিন্তু পরিকল্পনার অভাব ছিল স্পষ্ট। ফলে গোলের দেখা মিলছিল না। অবশেষে ৬৯ মিনিটে কাঙ্খিত সেই গোলের দেখা পায় সাইফ এসসি। বাঁ-প্রান্ত দিয়ে জুয়েল কাট ব্যাক করলেও দু’ডিফেন্ডারের মাঝে দাঁড়ানো ইব্রাহিম চলন্ত বলে আলতো টোকায় গোল আদায় করে নেন (১-১)।
আগামিকাল রবিবার একই ভেন্যুতে চলতি এ আসরের দু’টি হাই ভোল্টেজ ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে। দিনের প্রথম ম্যাচে বিকাল সাড়ে চারটায় শেখ জামালের মুখোমুখি হবে ফরাশগঞ্জ এসসি। আর সন্ধ্যা পৌনে সাতটায় ঢাকা মোহামেডানের বিরুদ্ধে লড়বে চট্টগ্রাম আবাহনী।
উল্লেখ্য, চলতি মৌসুমেই প্রথমবারের মতো দেশের সর্বোচ্চ মর্যদার ফুটবল আসর পেশাদার লিগে খেলার যোগ্যতা অর্জন করেছে সাইফ স্পোার্টিং ক্লাব। দেশের শীর্ষ লিগে খেলার ছাড়পত্র পেয়েই তারকা ফুটবলারদের নিয়ে আসে নিজেদের ছাদের নিচে। দল-বদলের বাজারে সাইফের থাবায় সবচেয়ে বেশী ক্ষতবিক্ষত হয় আবাহনী। সেই আকাশী-নীল শিবিরের বিপক্ষে মাঠে নেমেই নিজেদের শক্তির জানান দিয়েছে সাইফ।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :